অথচ তিনি গেয়েছিলেন জীবনের জয়োগান

সুশান্ত সিং রাজপুতের সর্বশেষ আলোচিত ছবির নাম ‘ছিচোড়ে’। বক্স অফিস কিংবা সমালোচক – সবার প্রশংসা কুড়িয়েছিল ছবিটি। ছবির গল্পটা না বললেই নয়।

ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম দফায় পাশ না করে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছিল বাবা মায়ের একমাত্র ছেলে। উঁচু এক অ্যাপার্টমেন্টের বাড়ান্দা থেকে ঝাঁপ দেয়। সেই দফায়, জীবনটা টিকে ছিল। ওই অবস্থা থেকে আলাদা হয়ে যাওয়া বাবা-মার নতুন লড়াই শুরু হয়।

আনি ও মায়া দম্পতি ছেলেকে একটু একটু করে যেমন সুস্থ করে তোলেন, তেমনি জীবনেরও গুরুত্ব বোঝাতে শেখান। সেই লড়াইয়ে এই দু’জনের সাথে সামিল হন বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের বন্ধুরা। সুশান্ত-শ্রদ্ধা কাপুররা পুরো ছবি জুড়ে একটা কথাই বলে গেছেন, জয়-পরাজয়ের চেয়েও জীবনের গুরুত্ব অনেক বেশি, জীবন অনেক সুন্দর।

অথচ, নিজের ছবির সেই বার্তাটাই বেমালুম ভুলে গেলেন কেন্দ্রীয় চরিত্র করা সুশান্ত সিং রাজপুত। তিনি আর নেই। মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় নিজের বাড়িতে পাওয়া গেছে এই অভিনেতার ঝুলন্ত মৃতদেহ। বয়স হয়েছিল মাত্র ৩৪ বছর। এতটুকু জীবনে কী এমন অজানা দু:খ আর হতাশা তাঁকে গ্রাস করেছিল যে এই পথটা বেঁছে নিতে হল।

অনুপ্রেরণা খুঁজতে গেলে এই রাজপুতের জীবনটা যে কারো জন্যই আদর্শ হতে পারে। টিভি অভিনেতা ছিলেন, টেলিভিশন সিরিজ ‘পবিত্র রিশতা’ দিয়ে ঘরে ঘরে তিনি পরিচিতি পেয়ে যান। সেখান থেকে ২০১৩ সালের ছবি ‘কাই পো চে’ দিয়ে তিনি বড় পর্দায় আসেন।

বাকিটা ইতিহাস। ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বকশী’, ‘শুধ দেশি রোম্যান্স’, ‘এম এস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’, ‘কেদারনাথ’, ‘পিকে’ কিংবা ‘ছিচোড়ে’ – মনে রাখার মত কত কিছুই তো করেছেন।

তার স্ট্রাগল আর উত্থানটা খুবই অবিস্মরণীয়।

একটা সময় ব্যাকগ্রাউন্ড ড্যান্সার ছিলেন। বড় তারকাদের পেছনে নাচতেন। নেচেছেন হৃত্তিক রোশনের পেছনেও। সেখান থেকে তিনি একালে এসে সময়ের সবচেয়ে প্রতিভাবান অভিনেতাদের একজন হয়েছেন। তিনি কেন জীবনের ওপর থেকে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। এত সুন্দর জীবনটা কেন তিনি নিজের হাতে শেষ করবেন? – হিসাব মেলানো যায় না। কি এমন কষ্ট ছিল তাঁর? অজানাই রয়ে গেল উত্তরটা।

ভারত বর্ষের ইতিহাস ‘রাজপুত’-দের ছাড়া লেখা অসম্ভব। অমিত সাহসী এই জাতটার বড় একটা অংশ ছিল যোদ্ধা। যোদ্ধা হিসেবে তাঁদের খ্যাতি ছিল একটা সময়। অথচ, সামান্য একটা জীবনের যুদ্ধে এভাবে হেরে গেলেন একজন রাজপুত। কেন? – মনে হয় না, সহসাই এই রহস্যের সমাধান হবে না।

 

https://www.mega888cuci.com