তাঁরা শান্তিতেই আছেন, আপনি অশান্তির আগুন নেভান!

ক্রিকেট মাঠে একেকটা বিতর্ক হয়, আর অবাক হয়ে দেখি, অনলাইনে যারা ক্রিকেট নিয়ে দুনিয়ার উদ্ধার করে ফেলে, তারা অনেক বেসিকই জানে না! নো বল বিতর্কে দেখেছি, অন দা লাইন-বাহাইন্ড দা লাইন বিতর্কে দেখেছি, অনেক সময়ই দেখি, মৌলিক ব্যাপারগুলোই তাদের জানা নেই।

স্ট্র্যাটেজিক টাইম আউট ব্যাপারটা কেন আনা হয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টিতে? মূলত পয়সার জন্য। এই ব্রেকে টিভিতে অনেক অ্যাড দেখানো হয়। তো ব্যাপারটাকে জায়েজ করার জন্য এটিকে কেতাবি নাম দেওয়া হয়েছে স্ট্র্যাটেজিক টাইম আউট। এই সময়টায় কোচিং স্টাফ মাঠে ঢুকবে, কৌশল বদল-টদল করতে হলে করবেন। এই সময় কোচরা মাঠে ঢুকবেন, এটিই নিয়ম।

অথচ মাঠে ঢুকেছেন বলে অনলাইনে মুণ্ডুপাত চলছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কোচ সালাউদ্দিন ভাইয়ের। টাইম আউটে মাঠে ঢোকা তো বটেই, চাইলে আম্পায়ারকে কিছু জিজ্ঞেস করতেও পারেন। তার এখতিয়ারেই পড়ে। উনি তো চার্জ করতে যাননি, আম্পায়ারদের কোনো কিছুর কারণ জিজ্ঞেস করতেই পারেন।

অবশ্যই সবারই সবকিছু জানা জরুরি নয়। তবে একটা কিছু নিয়ে ফাটাফাটি করতে নামার আগে তো মৌলিক ব্যাপারগুলো অন্তত জানতে হবে!

সাকিবকে ধাক্কা মারা নিয়ে এক দল তো পারলে সালাউদ্দিন ভাইকে এখনই ফাঁসিতে ঝুলায়! তারা সাকিবের এত বড় ভক্ত, বাংলাদেশ ক্রিকেটের এতটাই একনিষ্ঠ অনুসারী, অথচ সাকিব ও সালাউদ্দিন ভাইয়ের সম্পর্ক জানে না! সাকিব এই দুনিয়ায় যদি কাউকে সবচেয়ে বেশি মানে, যদি একজনকেও মন থেকে মানে, তিনি হলেন এই সালাউদ্দিন। সালাউদ্দিন ভাই সাকিবকে একটা থাপ্পড় দিলে সাকিব হাসিমুখে আরেক গাল পেতে দেবেন। শুধু গুরু-শিষ্যই নয়, দুজনের সম্পর্কের যে গভীরতা, সেটা মাপার মতো বোধ সম্ভবত আপনাদের নেই।

তারা যদিও দুজনের ব্যাপার পাবলিকলি বলার প্রয়োজন বোধ করেন না, তবুও বিপ্লবী ফেসবুক জনতার জন্য ঘটনাটি বলছি। সালাউদ্দিন ভাই টাইম আউটে আম্পায়ারদের সঙ্গে কথা বলছিলেন, সাকিব গিয়ে মজা করে বলেছেন, ‘উনারে সাসপেন্ড করেন, সাসপেন্ড করেন।’ সালাউদ্দিন ভাইও মজা করে গিয়ে ধাক্কা দিয়েছেন এমন ভাবে যে ‘যা ব্যাটা…!’

এসব খুনসুটি তাদের নিত্য চলতে থাকে। প্রতিদিন মানে প্রতিদিনই। শুধু ক্রিকেটে নয়, জীবনের নানা ক্ষেত্রেও সাকিবের বড় ভরসার জায়গা এই সালাউদ্দিন ভাই। আমাদের দেশে মায়ের চেয়ে মাসির দরদ এমনিতেই বেশি দেখা যায়। এখানে তো শুধু আলগা দরদই বেশি দেখা যাচ্ছে না, মাসি হয়ে মাকে শূলে চড়ানো হচ্ছে!

সাকিব, তামিম, মুমিনুলদের কাছে সালাউদ্দিন ভাইয়ের অবস্থান কোথায়, এটা আপনারা কল্পনাও করতে পারবেন না। তাদের ‘স্যার’ তাদের কাছে মহামূল্য একজন। ক্রিকেটে, জীবনে, সবক্ষেত্রে!

আপনি যখন অনলাইনে আগুন জ্বালাচ্ছেন, তারা দুজন তখন একসঙ্গে বসে এসব নিয়ে হাসাহাসি করছেন এবং বলছেন, ‘লোকে পারেও বটে…।’ তো তাঁরা শান্তিতেই আছেন, আপনি অশান্তির আগুন নেভান!

– ফেসবুক ওয়াল থেকে

https://www.mega888cuci.com