সরকার: সময়োপযোগী কনসেপ্ট, দু্র্দান্ত ছবি

নির্বাচনের প্রার্থী কেমন হওয়া উচিত?

কোনো একটা রাজনৈতিক দল থেকে মনোনয়ন পেলেই তিনি নির্বাচন করতে পারেন কিংবা নিজে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে থাকেন। কিন্তু কোন প্রার্থীকে দেখেছেন যাকে জনগন এসে অনুরোধ করছে নির্বাচন করার জন্য?

হুম, ট্রাক ভর্তি ‘সমর্থক’ নিয়ে মনোনয়ন পত্র তুলতে দেখা যায়। তবে, আমি কিংবা আপনি ভাল করেই জানি, ওই সমর্থকদের পেছনে কতগুলো টাকা আর কতটি বিরিয়ানির প্যাকেট আছে।

প্রত্যেকটা দেশেরই প্রত্যেকটা অঞ্চলেই কিছু নিজের খেয়ে বনের মোষ তাড়ানোর মত কিছু লোক আছে যারা নিজের কাজ করার পরও অন্যের জন্য নিজেকে অকাতরে বিলিয়ে দেয়। এরা মানুষের উপকারের মাঝেই নিজেদের আনন্দ দেখে থাকে কোন প্রকার বিনিময় ছাড়াই।

আমি আপনি চোখ বন্ধ করলেই এমন মানুষ খুঁজে পাবো। আচ্ছা এমন সব মানুষ যদি নির্বাচিত হয় কিংবা এদের যদি জনগন অনুরোধ করে সংসদ সদস্য নির্বাচন করে থাকে তাহলে দেশটা অনেক খানি এগিয়ে যাবে, তাই না?

যাই হোক সিনেমা নিয়ে কথা বলার কথা বলতেছি, নির্বাচনের কথা। সিনেমার কথা বলতে গিয়েই নির্বাচনের কথা বলতে হচ্ছে কারণ যে সিনেমার কথা বলবো তার বিষয়বস্তু হলো নির্বাচন। সিনেমার নাম ‘সরকার’; পরিচালক এ আর মুরুগাদস।

কর্পোরেট জগতের ‘মনস্টার’ খ্যাত সুন্দর রামাস্বামী নামের একজন এন আর আই আমেরিকা থেকে ভারতে আসেন ভোট দেয়ার জন্য। ভোট দিতে গিয়ে জানতে পারেন তার ভোটটা অন্য কেউ অসুদপায় অবলম্বন করে আগেই দিয়ে ফেলেছে। সুন্দর রামাস্বামী বেঁকে বসেন। তিনি তার একমাত্র ভোট দেয়ার জন্য মামলা করেন নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে। শেষ পর্যন্ত সুন্দর কি তাঁর ভোট দিতে পারবে? – এসবই এই সিনেমার মূল উপজীব্য।

সিনেমার প্রশংসার দিকে সবার প্রথমেই থাকবে এই সিনেমার কনসেপ্ট। কি দুর্দান্ত কনসেপ্ট এই সিনেমার। অন্তত এই কনসেপ্টের জন্য হলেও এই সিনেমা দেখা উচিত। এরপরেই আসে বিজয়ের অভিনয়। বিজয়ের অভিনয় নিয়ে কিছু বলার নাই।

যারা বিজয়কে চিনেন বা জানেন তাদের আর নতুন করে তার অভিনয়ের কথা বলতে হয় না। বিজয়ের অভিনয়ের সাথে পাল্লা দিয়ে সিনেমার সিনেমাটোগ্রাফি ছিলো দুর্দান্ত। দেখে চোখের প্রশান্তি পাওয়া যায় তা সে লং স্কেল, শর্ট স্কেল কিংবা অ্যাকশন সিকোয়েন্সের শট হোক!

সিনেমার চিত্রনাট্য আর সিকোয়েন্স গুলো অতটা ভালো হয় নাই। এ আর মুরুগাদস আসলে এতো সুন্দর কনসেপ্ট এর সিনেমা বানায় কিন্তু ইদানিং তার চিত্রনাট্য আর সিকোয়েন্স এ কিছুটা দুর্বলতা লক্ষ করা যাচ্ছে। এর আগে মহেশের সাথে ‘স্পাইডার’ বানালো। আশা করি এরপর থেকে তিনি তার আগের ‘থুপাক্কি’ কিংবা ‘গজনী’ টাইপ দুর্দান্ত গল্পের সাথে চিত্রনাট্যও ততটাই সুন্দর করবেন।

https://www.mega888cuci.com