ওয়েব সিরিজে উড়ছে টাকা!

বিনোদনের পৃথিবী আমূল পাল্টে গেছে। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম গুলো এখন বিনোদনের প্রধান মাধ্যম। বানিজ্যেও তাঁরা ছাড়িয়ে যাচ্ছে মূল ধারাকে। সতেজ স্ক্রিপ্ট, ভিন্নধর্মী স্ক্রিনপ্লে আর প্রতিভাবান সব অভিনেতাদের নিয়ে উপমহাদেশে নতুন এক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে সাম্প্রতিক সময়ের একগাদা ওয়েব সিরিজ।

শুধু ভারতেই নয়, ভারতের বাইরেও সিরিজগুলো পেয়েছে সমান দর্শকপ্রিয়তা। আর অনেক ক্ষেত্রেই এদের নির্মান ব্যয় সাধারণ সিনেমার চেয়ে বেশি হয়। তেমনই কিছু ব্যয়বহুল ওয়েব সিরিজ নিয়ে আমাদের এবারের আয়োজন।

  • স্যাকরেড গেমস

ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজ ‘স্যাকরেড গেমস’। নওয়াজুদ্দীন সিদ্দিকী তাঁর ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা কাজ করেন এখানে। নেটফ্লিক্সে মুক্তি পায় এর দুই মৌসুম। চমৎকার স্টোরিলাইন আর দারুণ সিনেম্যাটোগ্রাফির সুবাদে দর্শকদের কাছে প্রশংসিত হয়। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ফ্যান্টম প্রোডাকশন জানিয়েছে প্রথম সিজনের বাজেট ছিল ২৫ থেকে ৪০ কোটি রুপি। প্রথম সিজনের বিশাল জনপ্রিয়তার পর দ্বিতীয় সিজনের বাজেট ছিল আকাশচুম্বি। খরচ হয় ১০০ কোটি রুপি।

  • ইনসাইড এজ

ক্রিকেট নিয়ে ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা কাজ হয়েছে এই সিরিজে। ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্ধকার সব অধ্যায়ের অজানা গল্প জানিয়েছে এই সিরিজ। অ্যামাজন প্রাইমে প্রথম কিস্তি মুক্তি পায় ২০১৭ সালের জুলাইয়ে। দু’টি সিজনে মোট ১৬ টি এপিসোড ছিল। প্রতিটি এপিসোডের পেছনে গড়ে দুই কোটি রুপি করে খরচ হয়েছে। আর মার্কেটিংয়ে খরচ হয়েছে আরো ১৩ কোটি রুপি।

  • ব্রিদ

অ্যামাজন প্রাইম ভিডিও-তে এখন অবধি ‘ব্রিদ’-এর দু’টো কিস্তি মুক্তি পেয়েছে। আর মাধবন ছিলেন প্রথম সিজনের কেন্দ্রীয় চরিত্রে। দ্বিতীয় সিজনে ছিলেন অভিষেক বচ্চন। সিরিজটি নির্মান করতে কত ব্যয় হয়েছে, সেটা জানা না গেলেও এটুকু জানা যায় যে – স্রেফ মার্কেটিংয়ের জন্য দু’টি মৌসুমের জন্য খরচ করা হয়েছে মোট ৪০ কোটি রুপি।

  • পাতাল লোক

সমালোচকদের মতে এটা ভারতের ইতিহাসের সেরা ওয়েব সিরিজ। অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওতে ২০২০ সালের মে-তে মুক্তি পাওয়া এই থ্রিলার সিরিজের নির্মান ব্যয় ২০ কোটি রুপি। আর প্রচার ও মার্কেটিংয়ে খরচ হয়েছে আরো তিন কোটি রুপি।

https://www.mega888cuci.com