প্রয়োজনে বিশ্বকাপটাই পাকিস্তানকে দিয়ে দেবে ভারত!

ভারত-পাকিস্তান রেষারেষিটা অনেক পুরনো ব্যাপার। তবে, বর্তমানে এই দা-কুমড়ো সম্পর্কটা আগের চেয়ে অনেক বেশি। সেটা এতটাই যে বিশ্বকাপের লিগ পর্বে দেশদু’টির মধ্যকার ম্যাচ আয়োজন নিয়েও আছে শঙ্কা।

সেই আগুনে এবার নতুন করে ঘিঁ ঢাললেন গৌতম গম্ভীর। শুধুমাত্র লিগ পর্বের ম্যাচই নয়, ফাইনালে পাকিস্তানের সাথে খেলা পড়লেও সেই ম্যাচ ওয়াকওভার দেয়ার অভিমত ব্যক্ত করলেন ভারতের সাবেক এই ভারতীয় অধিনায়ক।

গেল ১৪ ফেব্রুয়ারিতে পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলার পর ভারত-পাকিস্তান সম্পর্ক এখন ভয়ংকর। যার প্রভাব পড়েছে ক্রিকেটেও। আসন্ন বিশ্বকাপে লিগ পর্বে দেখা হচ্ছে ভারত-পাকিস্তানের। ঐ ম্যাচ ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে রেখেছে ভারত। এতে সমালোচনা বেড়েছে।

কিন্তু, এসব সমালোচনাকে আমলে নিচ্ছে না ভারত। তাই ভারতের সাবেক বাঁ-হাতি ওপেনার আরও তিক্ত ভাষায় কথা বললেন, ‘লিগ পর্বের ম্যাচই শুধু নয়, প্রয়োজনে বিশ্বকাপের ফাইনালের উঠলেও পাকিস্তানকে ওয়াকওভার দেয়া উচিত।’

পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলার পর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের আলোচনার ঝড় তুঙ্গে। সামনে বিশ্বকাপ থাকায় আলোচনাটা আরো বেড়ে গেছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বাতিলের হুমকি দিয়ে ভারত ইতোমধ্যে ক্রিকেটের প্রধান সংস্থা আইসিসি চিঠিও দিয়েছে। সেই চিঠিকে সাড়া দেয়নি আইসিসি। আইসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিচার্ডসন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ‘আইসিসি ইভেন্টে সব দেশকেই একটা নিয়ম মেনে চলতে হয়। নিয়ম অনুযায়ী প্রতিযোগিতার সব ম্যাচে দল নামাতে হবে এবং খেলতে হবে। যদি কোনও দল নিয়ম ভঙ্গ করে তবে পয়েন্ট দিয়ে দেয়া হবে বিপক্ষ দলকে। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ যথা নিয়মে হওয়ার বিষয়ে আমরা আশাবাদী।’

এমনকি পাকিস্তান-ভারতের মধ্যকার লিগ পর্বের ম্যাচ আয়োজন নিয়েও কোনো শঙ্কা দেখছেন না তিনি। বলেছেন, ‘বিশ্বকাপে লিগ পর্বে মুখোমুখি হবে ভারত-পাকিস্তান। ম্যাচটি আয়োজন নিয়ে কোনোরকম শঙ্কা নেই।’

তবে এসব কথাকে খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ দিচ্ছেন না গম্ভীর। তার কাছে আগে দেশ। দেশের মানুষের কাছেও সবকিছুর আগে জন্মভূমি বলে বিশ্বাস করেন তিনি। গম্ভীর বলেন, ‘দুই পয়েন্ট গুরুত্বপূর্ণ নয়। দেশ গুরুত্বপূর্ণ। নিহত ৪০ সেনা একটি ক্রিকেট ম্যাচের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। যদি আমরা বিশ্বকাপের ফাইনালেও যাই, সেখানে প্রতিপক্ষ থাকে পাকিস্তান। তবেও ম্যাচ ছেড়ে দেয়ার প্রস্তুতি রাখা উচিত। সমাজের কেউ কেউ বলছেন, খেলার সঙ্গে রাজনীতি জড়ানো উচিত নয়। কিন্তু একটি ক্রিকেট ম্যাচের চেয়ে জওয়ানরা অবশ্যই বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

তবে আইসিসি ইভেন্টে কোন দলের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কট করা কঠিন হবে বলে মনে করেন গম্ভীর, ‘পুলওয়ামাতে যা ঘটেছে, তা মেনে নেয়া যায় না। আমি জানি, আইসিসির টুর্নামেন্টে পাকিস্তানকে বয়কট করা ভারতের জন্য কঠিন হবে। তবে তারা এশিয়া কাপ বা অন্য কোথাও পাকিস্তানকে বিপক্ষে খেলা বন্ধ করতে পারে।’

জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের বিপক্ষে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে রাউন্ড রবিন লিগের ম্যাচ বয়কট করেছিলো ইংল্যান্ড। সেটির উদাহরণ টেনে এনে গম্ভীর বলেন, ‘ম্যাচ বয়কট করে ইংল্যান্ডও প্রতিবাদ করেছিলো। যদি ভারতীয় বোর্ডও এমন সিদ্ধান্ত নেয়, তবে সবাইকে মানসিকভাবে প্রস্তুত ও শক্ত থাকতে হবে।’

https://www.mega888cuci.com