এই ঘর এই সংসার ও সেই বৃষ্টি

শুরু করবো অনেকটা অপরিচিত মুখ ‘বৃষ্টি’ নামক এক অভিনেত্রীকে নিয়ে। তাঁকে খুব কম মানুষই চেনেন। কেননা তাঁর একটা সিনেমা সম্পর্কেই কেবল সকলে জানে, তাও সেই ৯০ দশকের। হ্যা, বলছিলাম নব্বই দশকের বেশ আলোচিত সিনেমা ‘এই ঘর এই সংসার’ সিনেমার কথা। যে কেউ এই ফিল্মটা দেখেই বলবে – ওই সুন্দর মেয়েটাকে আর সিনেমায় কেন দেখা গেলো না!

পুরো গুগুল খুজেও তাঁর সম্পর্কে এক কানাকড়ি তথ্য পেলাম না। আজ তিনি কোথায়, কেউ কি জানেন?

মালেক আফসারীর পুরো ক্যারিয়ারের সেরা কাজ আমার মতে এই সিনেমাটি, যতোদূর জানি এটা ওনার নিজের লেখা গল্প। পরিচালনাও তিনিই করেছিলেন। সব দিক দিয়ে সিনেমাটি তাঁর সর্বেসর্বা খেতাবকেও ছাড়িয়ে গিয়েছেন। সে সময় অনুযায়ী সিনেমার ক্যামেরার কাজ এডিটিং এমনকি লাইটিংটাও ছিলো এক কথায় দারুণ। অবশ্যই এজন্য বর্তমান সময়ের নিভু আলোচিত পরিচালক মালেক আফসারি প্রশংসা পাবেন।

আপনি যদি আবছা রোমান্স পছন্দ করেন তাহলে আপনার জন্য এই সিনেমা। একটু ড্রামাটিক্যাল ট্র্যাজেডি পছন্দ করলে অবশ্যই এটি আপনার জন্য আদর্শ সিনেমা আদর্শ হতে পারে।

  • অভিনয় সংক্ষেপ

আসলে এখানে যারা যারা অভিনয় করেছেন তাদের সম্পর্কে আলোচনা করতে হলেও একশ বার চিন্তা করে লিখতে হবে আর সালমান শাহ কে নিয়ে আলাদা করে কিছু লেখার নাই। তাই তাদের প্রতি সম্মান রেখে আমি আমার ভালো লাগাটা উল্লেখ করলাম।

নাসির খান

নেগেটিভ রোলের জন্য সে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সেরা তিনি এতোটাই আলোচিত ছিলেন যে তার দেওয়া কিছু ডায়লগ আজো অনেক মানুষ মজার ছলে বলে ফেলে। নাসির খান বাংলা সিনেমার একজন অভিনেতা যিনি খুব অনাদরেই চলে গিয়েছেন আমাদের মাঝ থেকে! আমার মনে হয় না সে তাঁর প্রাপ্যটুকু পেয়েছেন যাই হোক এটা আমাদের ব্যর্থতা আমরা তাকে সম্মানিত করতে পারিনি।এই সিনেমায় আপনি দেখতে পাবেন আসলে ভিলেন কীভাবে আপনার কাছে বিরক্তিকর হয়ে উঠে।

  • খলিল

খুব ছোট বেলা থেকে প্রয়াত জনাব খলিল সাহেবের ভিলেনের চাটুকারিতা দেখেই বড় হয়েছি। জনাব হুমায়ুন ফরিদীর পরেই উনাকে আমার খুব বেশিই ভালো লাগতো। কিন্তু এই সিনেমায় খলিল সাহেবকে দেখবেন আদুরে মেয়ের আহ্লাদী বাবা হিসেবে। পুরোটা সময় আপনি বেশ মজার সময় পাড় করবেন যতোক্ষণ তাকে আপনি স্ক্রিনে দেখতে পাবেন।

  • বৃষ্টি

সিনেমায় ‘জলি’ চরিত্রে দেখা যাবে লাস্যময়ী এই নায়িকাকে। এখনো চরিত্রটি দেখে একালের দর্শকরাও ‘ক্রাশ’ খেয়ে বসতে পারেন। চরিত্রটির সাথে নিজেকে যথেষ্ট মানিয়ে নিতে পেরেছিলেন বৃষ্টি। সালমানের সাথে তাঁর রসায়ন ছিল অনন্য।

  • কাহিনী সংক্ষেপ

‘মমতা’ একজন সরকারী কর্মকর্তা। কিছুদিন যাবত তাঁর টাইপ রাইটার মেশিনের উপরে প্রেম-প্রণয়ের কথা মোড়ানো চিঠি পাচ্ছেন। যা তার কাছে বিরক্তিকর। একটা পর্যায় সে বিষয়টা খোলাসা হয় যে তাদেরই এক কলিগ তাকে পছন্দ করে। তো তাদের প্রণয় হয়, বিয়েও হয়। মমতার দুই ভাইয়ের দায়িত্ব শহিদুল্লাহ খান মানে বুলবুল আহমেদ নেন। খুব সুন্দর তাদের সংসার চলতে থাকে বড় হয়ে যায় দুই ভাই এভাবেই সংসার চলতে থাকে। কিন্তু কিছুদিন পরেই কি জানি এক অশনিসংকেত তাদের সংসারের উপর এসে পরে! আস্তে আস্তে কেমন জানি হয়ে যায় সংসার! আসলে কি হচ্ছিলো! তো সেগুলো জানার জন্য অবশ্যই সেই আগের মতো আবারো আমি বলবো সিনেমাটা আপনাকে দেখতে হবে।একই সাথে পাবেন রোমান্স, কিছুটা পারিবারিক ড্রামা এবং বেশ কিছু ট্র্যাজেডি।

এই ঘর এই সংসার

  • পরিচালক: মালেক আফসারী
  • রচয়িতা: মালেক আফসারী
  • প্রযোজনা: খলিল ফিল্মস
  • শ্রেষ্ঠাংশে: সালমান শাহ, বৃষ্টি, বুলবুল আহমেদ, রোজী আফসারী, আলী রাজ, তমালিকা কর্মকার, খলিল, দিলদার, নাসির খান ও আরো অনেকে।
  • ধরণ: পারিবারিক ড্রামা, রোমান্স।
  • ব্যাপ্তিকাল: ১৫৫ মিনিট
  • মুক্তিকাল: ৫ এপ্রিল, ১৯৯৬ইং
  • আইএমডিবি রেটিং ৭.৯/১০
  • ব্যক্তিগত রেটিং: ৯.৭/১০

কৃতজ্ঞতা: রিভিউ ফ্যাক্টরি বিডি

https://www.mega888cuci.com