তোমার চিহ্ন তবু রবে বেঁচে

মৃত্যু এক ধ্রুব সত্য। মৃত্যু অবধারিত। পৃথিবীর কোনো শক্তিই মৃত্যুকে আটকাতে পারে না। ২০১৮ সালেও তাই এই মৃত্যু কেড়ে নিয়েছে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অনেকগুলো পরিচিত মুখকে। সেই চেনা মুখ গুলো আর ফিরবে না। তবুও তাঁদের স্মৃতি এবং কর্মের মধ্যে তাঁরা বেঁচে থাকবেন।

  • আইয়ুব বাচ্চু

রুপালি গিটার ফেলে এই বছরই আইয়ুব বাচ্চু চলে গেছেন জীবন নদীর ওপারে। গেল ১৮ অক্টোবর স্কয়ার হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। ব্যান্ড সঙ্গীতের ভূবনে বাংলাদেশ তাঁর মত কিংবদন্তি আর পায়নি বললেই চলে। তাঁর হঠাৎ এই চলে যাওয়া বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক জগৎকে অনন্ত কালের এক বেদনায় ডুবিয়ে যায়।

  • আমজাদ হোসেন

কালজয়ী নির্মাতা আমজাদ হোসেন গেল ১৪ ডিসেম্বর মারা যান। ‘ভাত দে’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘সুন্দরী’ ইত্যাদি ছবি এবং ‘জব্বার আলী’ নামের টেলিভিশন সিরিজের জন্য তিনি চীরকাল বেঁচে থাকবেন মানুষের হৃদয়ে। নির্মাণ বা চিত্রনাট্য – যখন যেটাই করেছেন তাতেই তিনি ভিন্ন একটা মাত্রা যোগ করেছেন।

  • আলী আকবর রুপু

বাংলাদেশের বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক আলী আকবর রুপু গেল ২২ ফেব্রুয়ারি মারা যান। ডায়াবেটিস, হার্ট ও কিডিনির অসুখে ভোগার পর রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালের আইসিইউ-তে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

  • সাইদুল আনাম টুটুল

গত ১৮ ডিসেম্বর সাইদুল আনাম টুটুল মৃত্যুবরণ করেন। বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। ১৯৭৯ সালে তিনি ‘সূর্য দীঘল বাড়ি’ সিনেমার সম্পাদনার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়া তিনি ‘ঘুড্ডি’, ‘দহন’, ‘দীপু নাম্বার টু’, ‘দুখাই’-এর মত সিনেমা করেছেন। তার সর্বশেষ বড় কাজ হল ২০০৩ সালে মুক্তি পাওয়া ‘আধিয়ার’

  • আনোয়ার হোসেন

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত চিত্রগ্রাহক আনোয়ার হোসেন মারা গেছেন গেল এক ডিসেম্বর। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় তাঁর তোলা অনেকগুলো ছবি বেশ আলোচিত হয়। তিনি ‘সূর্য দীঘল বাড়ি’, ‘এমিলের গোয়েন্দা বাহিনী’, ‘চিত্রা নদীর পাড়ে’, ‘লাল সালু’, ‘শ্যামল ছায়া’ ইত্যাদি সিনেমার চিত্রগ্রাহক ছিলেন।

  • তাজিন আহমেদ

দীর্ঘ ২২ বছর ধরে দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি। গেল ২২ মে মাত্র ৪৩ বছর বয়সে মারা যান গুণী এই অভিনেত্রী। মঞ্চ নাটকে কাজ করেছেন ‘নাট্যজন’ ও ‘আরণ্যক’-এর হয়ে। এনটিভিতে তাঁর উপস্থাপনায় ‘টিফিনের ফাঁকে’ অনুষ্ঠানটি বেশ জনপ্রিয়তা পায়।

  • শাম্মী আক্তার

কিংবদন্তিতুল্য গায়িকা শাম্মী আক্তার ১৬ জানুয়ারি মারা যান। মৃত্যুকালে নন্দিত সংগীতশিল্পীর বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। ‘আমি যেমন আছি তেমন রবো বউ হবো না রে’, ‘ঢাকা শহর আইসা আমার আশা পুরাইছে’ ‘চিঠি দিও প্রতিদিন চিঠি দিও’, ‘ভালোবাসলেই সবার সাথে ঘর বাঁধা যায় না’, ‘এই রাত ডাকে এই চাঁদ ডাকে হায় তুমি কোথায়’, ‘আমার মনের বেদনা বন্ধু ছাড়া বুঝে না’, ‘আমি তোমার বধূ তুমি আমার স্বামী খোদার পরে তোমায় আমি বড় বলে জানি’, ‘আমি যেমন আছি তেমন রবো বউ হবো না রে’, ‘আমার নায়ে পার হইতে লাগে ষোল আনা’ইত্যাদি জনপ্রিয় গানগুলো তাঁরই গাওয়া।

https://www.mega888cuci.com