যা ঘাম ছড়াচ্ছি তা আমার হয়ে কথা বলবে: মুস্তাফিজ

বোলিং কোচের দায়িত্ব নিয়ে এদেশে আসার পর থেকে একের পর এক সিরিজে এতটাই ব্যস্ত ছিলেন যে কোনো বোলারের সাথে একাকী ট্রেনিং সেশন করা আর হয়ে ওঠেনি। মুস্তাফিজুর রহমানের কাটার রঙ হারিয়েছে, তার দিকেও বিশেষভাবে নজর দেয়া হয়ে ওঠেনি। তাই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পরে যেইমাত্র অবসর মিললো, ঝাঁপিয়ে পড়লেন তাঁর সবচেয়ে মূল্যবান শিষ্যকে নিয়ে। পুরোনো মুস্তাফিজকে আবারও নতুনভাবে ফিরিয়ে আনতে।

মুস্তাফিজ পারবেন? কোর্টনি ওয়ালশ কিন্তু আশারর গানই শোনাচ্ছেন, ‘অনুশীলনে ও (মুস্তাফিজ) খুব ভালোভাবে সাড়া দিচ্ছে, আশা করা যায় খুব তাড়াতাড়িই সে স্বরূপে ফিরবে।’

তাঁর ক্যারিয়ারের সূচনাপর্ব যেন কোনো গ্রিক-রূপকথা। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের কাঁপিয়ে, কাটার জাদুতে বশ করে, আইপিএল-বিপিএল মাত করে তবেই তাঁর শুরু। নয় ওয়ানডেতে ২৬ আর ১৩ টি-২০তে ২২ উইকেট, যেকোনো বোলারের জন্য এক ‘স্বপ্নের শুরু’।

কিন্তু সাফল্য আর ব্যর্থতা নাকি পিঠাপিঠিই আসে। শুরুর সাফল্য উদযাপন করতে না করতেই ডাক পড়লো কাউন্টি ক্রিকেটে, সেখানে গিয়েই বাধিয়ে এলেন কাঁধের চোট। বেশ কিছুদিন ক্রিকেটের বাইরে থেকে কাঁধের চোট থেকে সেরেও উঠলেন বটে, কিন্তু তাঁর জাদুকরী বোলিং-য়েই বেধে গেলো চোট। কাটার আর স্লোয়ারে ব্যাটসম্যানদের বিভ্রান্ত করে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয়া বোলিং, যা তিনি কাঁধের চোট বাধানোর আগে নিয়মিতভাবেই করতেন, ফেরার পর থেকে তা যেন অস্ত্রোপচারের টেবিলেই রয়ে গেলো। শুরুর মোস্তাফিজকে কখনো কখনো তাই মনে হয় দূরের কোনো স্মৃতি, এক নস্টালজিয়া। হঠাৎ হঠাৎ সেই মোহনিয়া ফিরে ফিরে আসলেও, আক্ষেপ জাগে পরক্ষণেই, কোথায় হারালেন সেই মুস্তাফিজ!

যদিওবা এটা জানাই ছিলো, বাইরের কন্ডিশনে মুস্তাফিজের কাটার-স্লোয়ার ততটা কার্যকর হবে না এবং প্রত্যাবর্তনের পর থেকে তিনি বিদেশের মাটিতেই সব ম্যাচ খেলেছেন, তবুও তাঁর নামের পাশে ১৮ ওয়ানডেতে ১৩ উইকেট বড্ড বেশি বেমানান। ইকোনমি রেটটিও ঠিক মুস্তাফিজ সুলভ নয়।

এর পেছনের রহস্য কি? ইনজুরির ধকলের বাইরে অন্য কোনো কারণ নেই তো? যেই কোচেরা মুস্তাফিজের উত্থান কাছ থেকে দেখেছেন, তাঁরা মনে করছেন, বোলিং একশনে পরিবর্তন একইসাথে ভিন্ন কোণে বল করাই মূলত তাঁর পড়তি ফর্মের পেছনে দায়ী।

মোস্তাফিজ তাঁর বোলিংয়ে গত কিছুদিনে যে পরিবর্তন এনেছেন, তা হলো ওয়াইড অব দ্যা উইকেটে গিয়ে বল করছেন। ইঞ্জুরির পূর্বে উইকেটের কাছ থেকেই তিনি বল করতেন এবং তাতে সাফল্যও আসছিলো। তারপরও, গত কয়েক সিরিজে এটি তাঁর বোলিংয়ে দেখা যায় নি।

মোস্তাফিজের সাথে অনুশীলন সেশন শেষে ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে ওয়ালশ বললেন, ‘এখনই তার সম্পর্কে কিছু বলে ফেলাটা খুব তড়িঘড়ি হয়ে যাবে, তবে বলতেই হচ্ছে যে সে (মোস্তাফিজ) খুব দ্রুত সাড়া দিচ্ছে। আমরা এখন চেষ্টা করে যাচ্ছি তাকে উইকেটের কাছে থেকে বল করানো রপ্ত করাতে এবং একইসাথে আরও কিছু কৌশল তাকে আয়ত্ত করাতে।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কাঠিন্য উপলব্ধি করতে মুস্তাফিজের খুব একটা সময় লাগেনি। এখানে টিকে থাকার জন্য তাকে নিত্যনতুন সব কলাকৌশল শেখা দরকার পড়বে, তিনি তা-ও বুঝতে পেরেছেন। তাঁর ইংরেজি দুর্বলতা কারও অজানা নয়, ওয়ালশের কোনো টিপস কিংবা ট্রিকস যেন ফসকে না যায়, তা নিশ্চিতকরণে ট্রেনিংয়ের সময়কালে মাহবুব আল জাকিকে পাশে চেয়েছেন তিনি। যিনি মোস্তাফিজের প্রতিভা সম্পর্কে তাঁর শুরুর দিনগুলো থেকেই জ্ঞাত ছিলেন এবং তখন থেকে মোস্তাফিজের গড়ে ওঠায় যার দারুণ প্রভাব র‍য়েছে।

জাকি বলেন, ‘আমরা মুস্তাফিজকে উইকেটের কাছে থেকে বল করানো রপ্ত করাচ্ছি কেননা এটা তার প্রধান শক্তির জায়গা।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা কাজ করে যাচ্ছি তার মূল শক্তির জায়গা সম্পর্কে তাকে অবগত করতে এবং তা আরও শানিত করতে।’

‘এটি সত্যি যে তার প্রত্যাবর্তনের পর সে স্ট্যাম্পের দূর থেকে প্রচুর বল করেছে এবং এর পেছনে বেশ কিছু কারণ থাকতে পারে। কিন্তু যেহেতু এই পরিবর্তন তাকে সাফল্য এনে দেয়নি, তাই আমরা তাকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছি যে তার পূর্বের ধরনে ফিরে যাওয়া দরকার। বর্তমানে উইকেটের কাছ থেকে আমরা তাকে দিয়ে মাত্র তিন থেকে চার পায়ে বল করাচ্ছি যেন এই ধারা তার অবচেতন মনে গেঁথে যায় এবং যখন সে পুরোদমে বোলিং শুরু করবে খুব বেশি উদ্যম ছাড়াই সে তা করতে পারে।’, যোগ করেন তিনি।

কেবল বল করেই যেন তাঁর পূর্বের ধরনে ফেরত যেতে না হয় তার জন্য অচিরেই একটি ভিডিও সেশনের কথা ভাবছেন কোচেরা। ইনজুরির পূর্বেকার মুস্তাফিজের বোলিং-ই যার উপজীব্য। আগের ধরনের সাথে এখনকার কি পার্থক্য, তা তুলে ধরতেই এই ব্যবস্থা।

যার জন্য এত আয়োজন, সেই মুস্তাফিজ কি ভাবছেন? ‘আমি আত্মবিশ্বাসী, যে পরিমাণ ঘাম ঝরাচ্ছি তা ভবিষ্যতে আমার হয়ে কথা বলবে।’

‘কষ্টে কেষ্ট মেলে’ সাফল্যের এই সহজ তরিকা তো কাটার মাস্টারের অজানা নয়।

———–

ক্রিকবাজে Trying to make Mustafizur bowl from close to the wicket: Walsh শিরোনামে লেখাটি লিখেছেন ক্রিকেট বিষয়ক গণমাধ্যমটির বাংলাদেশ প্রতিনিধি আতিফ আজম।

https://www.mega888cuci.com