মানুষ কেন আত্মহত্যা করে!

পরিসংখ্যান বলছে সারা বিশ্বে প্রতিবছর প্রায় দশ লক্ষ মানুষ আত্মহত্যা করে। প্রতি বছর সারা বিশ্বে যে সব কারণে মানুষের মৃত্যু ঘটে তার মধ্যে আত্মহত্যা ত্রয়োদশতম প্রধান কারণ! আর এর জন্যে দায়ী করা হয় ডিপ্রেশন বা বিষন্নতাকে। পৃথিবীতে প্রতি ১৬ মিনিটে একজন মানুষ সুইসাইড করে এই ডিপ্রেশনের জন্য।

মানুষ ডিপ্রেশনে কেন ভোগে? বিজ্ঞান বলছে- সুখ, আনন্দ বা স্বাভাবিক মানষিক অবস্থার ব্যাঘাত ঘটার কারণেই ডিপ্রেশনের সৃষ্টি হয়। যার ফলে দেখা দেয় মানষিক উদ্বিগ্নতা, অসহায়ত্ব, হতাশা, অস্থিরতা।

২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুতে ঈশানা নামে একজন মেয়ে আত্মহত্যা করেন। এবং শেষে জানা যায় কীভাবে আত্মহত্যা করলে মৃত্যু নিশ্চিত হবে তা নিয়েই তিনি মৃত্যুর আগে ৪৮ ঘন্টা ঘাটাঘাটি করেছেন। একজন মানুষ নিজেকে মেরে ফেলার জন্যে গোটা দু’দিন সময় ব্যয় করেছেন, এই ব্যপারটা মৃত্যুর চেয়েও বেশি প্যাথেটিক! আগামীকাল বেঁচে থাকলে আপনি একজন প্রেমিকা পাবেন, গোটাকয়েক বন্ধু পাবেন, সর্ষে ইলিশ দিয়ে গরম ভাত খেতে পারবেন, সমূদ্রপাড়ে ভিজতে পারবেন এইসব জানার পরেও মানুষ আত্মহত্যা করে। কেন করে?

ভাবুনতো জীবনের প্রতি কতটা বিতশ্রুদ্ধ হলে একজন মানুষ আত্মহত্যার কথা ভাবতে পারে? জীবন কতটা অপ্রিয় হয়ে উঠলে মানুষ চূড়ান্ত পর্যায়ের সিদ্ধান্তটি নেয়?

জীবনটাকে কে না ভালোবাসে? কে চায় জীবনে আর কোনো জন্মবার্ষিকী না আসুক? মানুষের সব আয়োজনতো বেঁচে থাকার জন্যেই।

এই যে চারপাশের মানুষগুলো হুটহাট মরে যাচ্ছে, কেনো মরে যাচ্ছে? একটু আদর পায়না বলে, ভালোবাসা পায়না বলে, প্রতারিত হয় বলে, জীবনটা অসহনীয় হয়ে ওঠে বলে, বেঁচে থাকাটা গুরুত্বহীন হয়ে ওঠে বলে।

দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে সুইসাইড নোট লিখে আমেরিকার এক ব্যাক্তি শেষ পর্যন্ত আত্মহত্যা করলেন। মানুষটা আসলে এই দীর্ঘ সময়ে লিখতে চেয়েছিল আমি বাঁচতে চাই। প্রতিটি মুহুর্তেই মানুষ কোনো না কোনোভাবে জানান দিচ্ছে সে বাঁচতে চায়। এমনকি নিজের জীবন বিসর্জন দেবার মুহুর্তেও মানুষ আসলে বাঁচতেই চায়।

হোবেস সর্ট তাঁর লেভিথান নামক গ্রন্থে বলেছেন, ‘নিজের জীবন ধ্বংসকারী যেকোনো ক্রিয়াই প্রাকৃতিকভাবে নিষিদ্ধ। এই প্রাকৃতিক নিয়ম ভঙ্গ করা অযৌক্তিক এবং অনৈতিক। মানুষের জন্য যৌক্তিক হলো সে মৃত্যুকে ভয় পাবে এবং সে সুখের প্রত্যাশায় থাকবে।’

অথচ মানুষ মৃত্যুর ভয় আর সুখের প্রত্যাশাকে বৃদ্ধাংগুলি দেখিয়ে নিজেকে সিলিং ফ্যানে ঝুলিয়ে দেয়, মুঠোভর্তি স্লিপিং পিল খায়, প্রচন্ডরকম ভীতু মানুষটাও পাঁচ তলার ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়ে কংক্রিটের রাস্তায়!

https://www.mega888cuci.com