মেয়ের বিয়েতে বাবার ‘অভিনব’ উপহার

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নবগ্রামের বাসিন্দা অলোক নাথ। তার মেয়ে তিন্নির বিয়ে হয়েছে গত মার্চে। বিয়েতে অভিনব এক উপহার দিয়ে তাঁক লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি।

না, দামী কোনো গাড়ী বা বিপুল সোনা-দানা নয়, নবগ্রামের একটা দাতব্য সংস্থাকে অ্যাম্বুলেন্স উপহার দিয়েছেন তিনি। সকলের আড়ালেই ছিল এই ঘটনা। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ার সুবাদে ভারতীয় গণমাধ্যমের নজরে আসে এই ঘটনা।

অলোক নাথ বলেন, ‘আগে থেকেই ভেবেছিলাম, তিন্নির বিয়েতে অ্যাম্বুলেন্স দান করব। সেই মতো ওই সংস্থাকে টাকা দিয়েছিলাম। বিয়ের আগে ওই ব্যাপারে কারও সঙ্গে বেশি আলোচনা করেনি। শুধু মেয়ে, আমার স্ত্রী তনুশ্রী এবং সংস্থার কয়েকজন এই বিষয়ে জানতেন।’

শুধু তাই নয়, মেয়ের বিয়েতে খুব বেশি আয়োজনও ছিল না। লোক দেখানো দাওয়াতের অনুষ্ঠান বাদ দিয়ে মানবতার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন অলোক নাথ।

মেয়ে তিন্নি বলেন, ‘এমন বাবা-মায়ের সন্তান হয়ে গর্বিত। সমাজ থেকে এত কিছু পাই আমরা। সমাজকেও আমাদের কিছু ফিরিয়ে দেওয়া উচিত।’

শুধু এবারই নয়, এর আগেও মায়ের শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠানে আত্মীয়দের না খাইয়ে ভেলোরের এক হাসপাতালে এক লাখের ওপর ভারতীয় রূপী দান করেন তিনি। সমাজের জন্য কিছু করতে পারাকেই নিজের প্রাপ্তি মনে করছেন অলোক। তিনি বলেন, ‘৫০০ জন মানুষের একজনও যদি সমাজ নিয়ে ভাবেন বা সমাজের জন্য কিছু করতে চান, তাহলে সেটা অনেক ব়ড় প্রাপ্তি হবে আমাদের জন্য।’

– ইন্ডিয়া টুডে ও এবেলা অবলম্বনে

https://www.mega888cuci.com