ক্যান্সারে আক্রান্ত বধু, হাসপাতালে বিয়ে, ১৮ ঘণ্টা পর মৃত্যু

নতুন বছর, মানে ২০১৮ সালের আগেই বিয়েটা সেরে ফেলতে চেয়েছিলেন কানাডার ডেভ মোশার। ৩০ ডিসেম্বর বিয়ে হওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু, বিধিবাম! নিষ্ঠুর এক ক্যান্সার বাঁধা বেধেছে বাগদত্তা হিদার মোশারের শরীরে।

ডাক্তাররা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, হিদারকে বাঁচানো অসম্ভব। হাতে সময়ও খুব কম। এমনকি যতদিন বাঁচবেন, সেই সময়টা কাটাতে হবে হাসপাতালে – চিকিৎসা বিজ্ঞানের হাজারো যন্ত্রপাতির মাঝে।

বাধ্য হয়ে তাই হাসপাতালেই বিয়ের আয়োজন করা হয়। দিনক্ষণও এগিয়ে আনা হয়। গত ২২ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেন মোশার দম্পতি।

যখন সব স্বাভাবিক ছিল…

যদিও, সেই ইনিংসের আয়ুকাল হয় মোটে ১৮ ঘণ্টা। কারণ, বিয়ের আঠারো ঘণ্টা পরই জীবনের ইতি ঘটে হিদারের। ক্যান্সারের সাথে লড়াইয়ে তিনি জিততে পারেননি।

২০১৬ সালের ২৩ ডিসেম্বর হিদারের শরীরে ধরা পড়ে ব্রেস্ট ক্যান্সার। কাকতালী ভাবে, সেইদিনই হিদারকে বিয়ের প্রস্তাব দেন ডেভ। ডেভ জানতেন, সামনের দিনগুলোতে তাঁদের লড়াই সহজ হবে না, তবুও তিনি পিছপা হননি।

ডেভ বলেন, ‘আমি নিজেকে সেদিন বলি, ওকে এটা বোঝানো দরকার ছিল, এই পথটা ওকে একা হাঁটতে হবে না।’

গত অক্টোবর থেকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয় হিদারকে। ডেভ বলেন, ‘ডাক্তাররা বলেছিল যে তারা জানে, আমরা ৩০ ডিসেম্বর বিয়ে করতে চাই। তবে, আসলেই যদি বিয়ে করার ইচ্ছা থাকে তাহলে দিনক্ষণ এগিয়ে আনতে হবে।’

বিয়ের সময় হিদার বলেছিলেন, ‘আমি যুদ্ধটা চালিয়ে যেতে চাই, একদম জীবনের শেষ অবধি…’ আর এটাই ছিল হিদারের শেষ কথা!

– গ্লোবালনিউজ.সিএ ও সিবিএস.কম অবলম্বনে

https://www.mega888cuci.com