একটি সারাহাহ অভিজ্ঞতা ও জীবনের ইচ্ছা

‘আপনাকে যে আমি কতো ভালোবাসি, কোন দিনই আপনার জানা হবে না’

সারাহাহ, নামে একটা সাইট দেখছি অনেকেই ব্যাবহার করছে। ঘণ্টা দুয়েকের জন্য একাউণ্ট খুলে, সেটা শেয়ার করেছিলাম। এই ওয়েব সাইটের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, আপনি মেসেজ করবেন কিন্তু কেউ আপনার নাম পরিচয় জানতে পারবে না।

যেহেতু কেউ আপনার নাম পরিচয় জানতে পারছে না, তাই প্রাপক’কে আপনি যা ইচ্ছে তাই লিখে জানান দিতে পারেন। ঘণ্টা দুয়েকের মাঝে প্রায় শ’খানেকের উপর টেক্সট পেয়েছি। এর সব গুলো যে অতি চমৎকার ছিলো, তেমন না। তবে অবাক হয়ে খেয়াল করলাম বেশিরভাগ টেক্সট’ই ভালোলাগা, ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ।

একজন লিখেছে- ‘আমি তোমার জন্য আজীবন অপেক্ষা করবো’

আরেকজন লিখেছে – ‘আপনাকে অনেক দিন ধরে বলতে চেয়েছি, বলতে পারিনি। আজ যেহেতু সুযোগ হয়েছে তাই বলে ফেলি-আমি আপনাকে ভালোবাসি’

মানুষের ভালোলাগা কিংবা ভালোবাসা পেতে কার না ভালো লাগে। অস্বীকার করবো না, আমার অন্তত বেশ ভালোই লাগে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে আমরা আমাদের জীবনের সব ইচ্ছে কি পূরণ করতে পারি? কারো হয়তো ইচ্ছে ছিলো ডাক্তার হবার, হয়ে বসে আছে- ব্যাংকার! কারো হয়তো ইচ্ছে ছিলো শিক্ষক হবার, হয়ে বসে আছে সাংবাদিক! কারো হয়তো শিল্প-সাহিত্য ভালো লাগতো, সে হয়তো ইঞ্জিনিয়ার বনে গিয়ে এখন নয়টা-পাঁচটা চাকরি করছে।

কারো হয়তো স্বপ্ন ছিলো নিজের বাড়ি-গাড়ি থাকার, সে হয়তো অফিসের কেরানী হয়ে প্রতিদিন বাসে ঝুলে অফিস করছে! কেউ হয়তো জীবনভর ভেবেছিলো ঘুরে বেড়াবে, সে হয়তো অফিসের ম্যানেজার হয়ে দিন রাত কাজ করে চলেছে!

অর্থাৎ জীবনের বেশির ভাগ ইচ্ছাই আমরা আসলে পূরণ করতে পারি না। কিন্তু কেউ’কে ভালো লাগলে কিংবা কেউ’কে ভালোবেসে ফেল’লে সেটা স্বনামে জানান দিতে সমস্যা কোথায়? ভালোবাসা তো কোন খারাপ কিছু না। যে কেউ যে কাউকে ভালবাসতে পারে এবং সেটা জানানও দিতে পারে। এরপর ভালোবাসা পেলে ভালো, না পেলে কষ্ট হবে। সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু, তাই বলে এই সামান্য ইচ্ছে টুকু’ও আমরা কেন পূরণ করবো না, আমার ঠিক মাথায় আসছে না।

এই জীবনে আমার যাকেই ভালো লেগেছে, আমি সেটা জানান দিতে পেরেছি। সেই ভালোবাসা জানান দিতে গিয়ে আবিষ্কার করেছি, আমার ভালোলাগা কিংবা ভালোবাসা’কে ব্যাবহার করে কেউ হয়তো তার বস্তুগত চাওয়া, পাওয়া কিংবা নিজের স্বার্থ হাসিল করেছে। ভালোবাসি বলে এরপর ভালোবাসার নানান সংজ্ঞাও খুঁজে বেড়াতে পারে। এতে আমি কষ্ট পেয়েছি। হয়তো অনেক কষ্ট’ই পেয়েছি। তবে সেটা তো আমার সঙ্কীর্ণতা নয়। সেটা তার কিংবা তাদের সঙ্কীর্ণতা।

দিন শেষে সেই ভালোবাসার মানুষটি হয়তো এক সময় করুণার পাত্রেও পরিণত হতে পারে। এটাই বাস্তবতা! কিন্তু তাই বলে ভালোলাগা কিংবা ভালোবাসা জানান দেয়া যাবে না, এমন তো না।

আমরা মানুষরা পৃথিবীতে একবার’ই আসি। বেঁচে থাকতে বেশিরভাগ ইচ্ছেই আমরা আসলে পূরণ করতে পারি না, এর সঙ্গে যুক্ত হয় নানান সামাজিকতা। কিন্তু ভালোবাসা তো চমৎকার একটা ব্যাপার। তাই কেউ’কে ভালো লেগে গেলে সেটা জানান দেয়াই বোধকরি ভালো। এতো ছোট খাটো ইচ্ছে অপূর্ণ রেখে জীবন পার করে ফেলার কোন মানেই হয় না।

https://www.mega888cuci.com