আরেকটি বিশ্বকাপ খেলবেন মেসি?

৩২ বছরের আক্ষেপ ঘুঁচানোর লক্ষ্য নিয়ে এসেছিলেন। সেই আক্ষেপ ঘুঁচলো না। ৩২ বছর বেড়ে গিয়ে ৩৬-এ গিয়ে ঠেঁকলো। আর্জেন্টিনার সাথে সাথে আক্ষেপটা বাড়লো লিওনেল মেসিরও। সেই আক্ষেপ যেটা তিনি ২০১০ সাল থেকে বয়ে বেড়াচ্ছেন।

আগের দুবারই মেসিকে থামতে হয় জার্মানি নামক এক দানবের সামনে। এবার সেই জার্মানি বাদ পড়েছিল গ্রুপ পর্বেই। নতুন দানব হিসেবে উদয় হল ফ্রান্সের। গতি আর তারুণ্য নির্ভর দলের সামনে পেরে উঠলো না লিওনেল মেসিরা।

ফলাফল, আর্জেন্টাইন এই প্রজন্ম আরেকটি বিশ্বকাপ জয়ের সুযোগ মিস করলো। এবারের আক্ষেপটা নি:সন্দেহে বেশি। কারণ, এই প্রজন্মের পুরোটাকে আর কখনোই এক সাথে পাবে না আর্জেন্টিনা।

মাশেরানো-বিগিয়ারা আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় বলে দিয়েছেন। দেশে ফেরার পর হয়তো এই অবসরের মিছিলটা আরো বড় হবে। লিওনেল মেসি কি করবেন? তিনি কি ব্যর্থতা কাঁধে নিয়ে থেমে যাবেন এখানেই? নাকি আরেকটা বিশ্বকাপ অবধি অপেক্ষা করবেন? করবেন শেষ আরেকটা চেষ্টা?

বিশ্ব ফুটবলের কিংবদন্তিদের দু’টি ভাগে ভাগ করা যায়। জিনেদিন জিদান, ইয়োহান ক্রুইফ, মিশেল প্লাতিনি, জার্ড  মুলার, আলফ্রেডো  ডি স্টেফানো, ইউসেবিও, জিয়ানলুইজি বুফন, ফ্রাঞ্জ বেকেনবাওয়ার, পেলে, ম্যারাডোনা, জর্জ বেস্ট, ফেরেঙ্ক পুসকাস, গারিঞ্চা, জাভি হার্নান্দেজ, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, রোনালদো ডি লিমা, ববি চার্লটন, পাওলো মালদিন, লেভ ইয়াশিন, রাউল, রিভালদো, – এদের মধ্যে যারা বিশ্বকাপ জিতেছেন, তাঁরা থাকেন প্রথম শ্রেণিতে। দ্বিতীয় কাতারে থাকেন বাকিরা।

মেসির আপাতত যে ক্যারিয়ার, তাতে তিনি থাকবেন দ্বিতীয় শ্রেনিতে। অথচ, ক্লাব ফুটবলে সাম্প্রতিক সময়ে তো বটেই, ফুটবল ইতিহাসেই মেসির মানের ফুটবলার খুঁজে পাওয়া দুস্কর। ১৪ মৌসুমে ৩২ শিরোপা তিনি জিতেছেন বার্সেলোনার হয়ে।

এক ব্যালন ডি’অরই জিতেছেন পাঁচবার। অথচ, জাতীয় দলের হয়ে ট্রফি জয়ের প্রশ্নেই যেন লিওনেল মেসির সব জারিজুরি শেষ। বিশ্বকাপ ও দুটি কোপা – সর্বশেষ তিনটি বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের ফাইনালে নিজের ম্যাজিকে দলকে নিয়ে গেছেন ফাইনালে। কিন্তু সব সময়ই ফিরেছেন খালি হাতে।

লাতিন দর্শকদের ধরণটাই এমন যে, তারা ট্রফি ছাড়া কিছু বোঝে না। মেসির সৌজন্যে আর্জেন্টিনা তিনটা ফাইনাল খেলেছে, এই কৃতিত্বটা কেউ মনে রাখে না, মনে রাখে কেবল ফাইনালের হার। তাই তো আর্জেন্টিনায় ম্যারাডোনার প্রতি সাধারণের যে আকর্ষণ, যে সমর্থন তাঁর ছিটেফোটাও নেই মেসির জন্য।

মেসির পথে এখন দুটি পথ খোলা। হয় অবসর নিয়ে ফেলা, না হয় আরেকটা বিশ্বকাপের জন্য চেষ্টা করা। মেসি এই বিশ্বকাপের ৩১ তম জন্মদিন পালন করেছেন মেসি। এর অর্থ হল চার বছর বাদে কাতার বিশ্বকাপে তাঁর বয়স হবে ৩৫। এই বয়সে বিশ্বকাপ খেলার তো বিস্তর নজীর আছে। আর সবচেয়ে বড় ব্যাপার হল, চার বছর বাদে আরো তাজা, নতুন এক আর্জেন্টাইন প্রজন্মকে সাথে পাবেন তিনি। তবে, এর আগে ক্যারিয়ারের সিদ্ধান্তটা নিতে হবে মেসিকেই!

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।