অস্কারে বিজয়ীর নাম ঘোষণাকারী যেভাবে নির্ধারিত হয়

আমরা সবাই জানি যে প্রতি বছর অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডে কিংবা অস্কারে একজন মূল উপস্থাপক থাকে। তবে, এর বাইরেও একাধিক ব্যাক্তি বিভিন্ন সময় মঞ্চে এসে উপস্থাপনায় অংশ নেন। প্রতিটি ক্যাটাগরিতে বিজয়ীর নাম ঘোষণার জন্য মূল বা সহ উপস্থাপকেরা উপস্থিত অতিথিদের মধ্য থেকে দুই থেকে তিনজনকে মঞ্চে ডাকেন এবং তারা সবার সামনে লাল খাম খুলে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন। কথা হচ্ছে, কোন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীর নাম কারা ঘোষণা করবেন, এটা কীভাবে নির্ধারিত হয়?

সুনির্দিষ্ট করে বলতে গেলে এটার কোনো নির্দিষ্ট নিয়ম নেই। তবে বহু বছরের ট্রেন্ড বিশ্লেষণ করলে কিছু জিনিস পরিস্কার বোঝা যায়।

যেমন, বিজয়ী যিনি হবেন, তার সঙ্গে ঘোষণাকারীর কোনো না কোনো একটা সম্পর্ক থাকে। যেমন ২০০৭ সালের অস্কারে সেরা পরিচালকের পুরস্কার জিতেছিলেন মার্টিন স্কোরসেজে। তার নাম ঘোষণার জন্য মঞ্চে এসেছিলেন হলিউডের তিনজন নামী পরিচালক- স্টিভেন স্পিলবার্গ, ফ্রান্সিস ফোর্ড কোপোলা এবং জর্জ লুকাস। ১৯৭০ এবং ৮০ এর দশকে হলিউডের চলচ্চিত্রের ধারা বদলে দেওয়ার পেছনে এই চারজনের অবদান অস্বীকার করার কোনো জো নেই এবং সবাই জানেন তারা চারজন খুব ভালো বন্ধু।

এরকম উদারহরণ আরও প্রচুর আছে। তবে সবক্ষেত্রেই যে ইচ্ছাকৃতভাবে বিজয়ীর সঙ্গে সম্পর্ককে ভিত্তি হিসেবে ধরে ঘোষণাকারী নির্ধারিত হয়েছে, তেমনটা না।

তাহলে এখানে আদর্শ রীতি কী?

চলচ্চিত্র ইতিহাসবিদ ক্যারি রিকে কয়েকটি দিকের কথা উল্লেখ করেছেন –

  • সাধারণত, আগের বছরের সেরা অভিনেতা পরের বছরের সেরা অভিনেত্রীর নাম এবং আগের বছরের সেরা অভিনেত্রী পরের বছরের সেরা অভিনেতার নাম ঘোষণা করেন।
  • নন-অ্যাক্টিং ক্যাটাগরির কিছু পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন অভিনেতা-অভিনেত্রীরা।
  • প্রযোজকেরা সাধারণ চান এমন কেউ বিজয়ীর নাম ঘোষণা করুক, যার ছবি সে বছর বক্স অফিসে সাড়া ফেলেছে বা যার অভিনয় সবার দৃষ্টিগোচর হয়েছে।
  • বিদেশি অভিনেতা-অভিনেত্রীদের জন্যও একটা স্পট বরাদ্ধ থাকে। যেমন – এর আগে ক্রিস্টোফ ওয়াল্টজ কিংবা পেনেলোপি ক্রুজ অস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেছেন। ২০১৮ সালে প্রেজেন্টারদের তালিকায় নাম ছিল এইজা গঞ্জালেস।

তবে এর বাইরে প্রেজেন্টার হিসেবে র‌্যানডমলিও কাউকে বাছাই করা হয়। এখানে ছবিতে দেখা যাচ্ছে, ২০১৭ সালের অস্কারে সেরা অভিনেত্রী এমা স্টোনের নাম ঘোষণা করেন ২০১৬ সালের সেরা অভিনেতার অস্কার বিজয়ী লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও।

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।