লিটন হেটাররা এখন কোথায়!

একজন ব্যাটসম্যান যখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে স্ট্রাগল করতে করতে হুট করে বড় একটা ইনিংস খেলে ফেলেন, তখন তার মনঃসংযোগ এবং আত্মবিশ্বাস দ্বিগুণ বেড়ে যায়। আর তারই দৃষ্টান্ত প্রমাণ জাতীয় ক্রিকেট লিগে লিটন কুমার দাসের ঝড়ো ডাবল সেঞ্চুরি।

প্রথমশ্রেণীর ক্রিকেটে এই মৌসুমে দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন লিটন দাস। এ কথা অনস্বীকার্য যে, যাকে নিয়ে চিন্তা করা যায় যে কে হতে পারে আমাদের ভবিষ্যতের সেরা ‘স্ট্যাটার’, তিনি লিটন। টিউবলাইট জ্বালাতে একটা স্ট্যাটার ইউজ করা হয়, আর একটি ক্রিকেট দলের রানের চাকাকে দারুণভাবে ঘোরাতে দরকার হয় একজন চৌকস ওপেনার। এখানে আমি লিটনকে সেই ‘স্ট্যাটার’ খেতাবই দিয়েছি।

আমি বলছিনা লিটন আমাদের ভবিষ্যতের তামিম, তবে একথা স্বীকার্য যে এই লিটনই হতে পারেন একজন সাঙ্গাকারা, একজন গিলক্রিস্ট, একজন ম্যাককলাম। ক্রাইসিস টা যে কি, সেটা লিটন একবার নয়, দুবার বুঝেছেন; একটা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শুরুর দিকে (২০১৫, যখন তাঁর অভিষেক হয়), আর আরেকটি হল এবছর। দুই দুইটা ক্রাইসিস মৌসুম উৎরে উঠে তিনি কিছু রানের দেখা পেয়েছেন।

এ বছরে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ১১ ম্যাচে ২০ ইনিংসে তার রানের সংখ্যা ১২০২ যার যার গড় ৬৬.৭৭ যেখানে ৪ টি করে হাফ সেঞ্চুরি ও সেঞ্চুরি রয়েছে। ১২০২ রান করে তিনি রয়েছেন বছরের সেরা রান সংগ্রাহকদের তালিকায় ৪ নম্বরে!

উপরে আছে ররি বার্নস ১৪০২ রান, ডি.জে ভিলাস ১৩৪৭ ও রোশন সিলভা ১২৫৪ রান করে। আর পিছনে রয়েছেন ম্যাট র‌্যান শ ১১৯৯ রান, কলিন অ্যাকারম্যান ১১৮০ রান, ইয়ান বেল ১১২৭ রান, উসমান খাজা ১১২৪ রান, অ্যালিস্টেয়ার কুক ১১১৩ রান। অন্যদের তুলনায় লিটন ম্যাচ কম খেলেছেন।

বাংলাদেশী ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে সবচেয়ে বেশি রান লিটনের। এরপর রয়েছেন তুষার ইমরান ১০৪৬ রান, সাদমান ইসলাম ৮৭৫ রান, মমিনুল হক ৮৪৪ রান।

কমপক্ষে ১০০০ রান করা ব্যাটসম্যানদের ভিতরে সবচেয়ে বেশি গড় তুষার ইমরানের (৮৭.১৬)! এরপরের নামটা আফগানিস্তানের তরুণ ক্রিকেটার ডারউইশ রাসুলির। তাঁর গড় ৮২.৫৩। তালিকায় তিন নম্বরে আছে লিটন দাসের নাম (৬৬.৭৭)।

এগুলো শুধু নমুনা মাত্র।

ক্রাইসিসটা যেহেতু লিটন অনেকটা পার করে ফেলেছেন, তাই এখন শুধু প্রমান করার পালা। দরকার শুধু মুশফিক ও তামিমের মত অতিরিক্ত অনুশীলন এবং ঘাম ঝরানো পরিশ্রম। তাহলে দেখবেন শেষ হাসিটা ওই ফ্ল্যাট ব্যবসায়ী লিটনই হাসছে। এখন যারা তাঁকে ব্যঙ্গ করে করে ফ্ল্যাট ব্যাবসায়ী বলছে, ঠিক তারাই তখন তাকে রান ব্যবসায়ী বলবেন।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।