হিরো থেকে ‘জিরো’: শাহরুখ যেভাবে বাউয়া সিং হলেন

মুক্তিপ্রাপ্ত ‘জিরো’র ব্যাপারে দর্শক ও সমালোচক মহল মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন। তবে, একটা ব্যাপারে সবাই কমবেশি একমত যে সিনেমাটিতে স্বয়ং শাহরুখ খান তাঁর সর্বোচ্চ চেষ্টাটাই করেছেন। শারীরিক প্রতিবন্ধকতার শিকার ৩৮ বছর বয়সী অবিবাহিত বাউয়া সিংয়ের চরিত্রে কিং খান তাই পুরো দমে ফিট।

সিনেমাটির প্রাথমিক পরিকল্পনা হয়  পরিচালক আনন্দ এল রায়ের হাত ধরেই। সেটাও আজ থেকে ছয় বছরেরও বেশি সময় আগের কথা। প্রথমে কেন্দ্রীয় চরিত্রের জন্য সালমান খানকে ভেবেছিলেন পরিচালক।

তবে, ২০১৬ সালে মানে প্রাথমিক পরিকল্পনার চার বছর পর ২০১৬ সালের মার্চে সিনেমাটির সাথে যুক্ত হন শাহরুখ খান। তখনই প্রযোজক হিসেবে যোগ হন গৌরী খান ও রেড চিলিস এন্টারটেইনমেন্ট। সে বছর ডিসেম্বরেই সিনেমার কাজ শুরু হয়োর কথা থাকলেও নানা জটিলতায় নির্মানকাল পিছিয়ে যায়। পরে ২০১৭ সালের মে মাসে শুরু হয় শুটিং।

প্রোডাকশনের কাজ চলাকালে বাউয়া সিংয়ের নাম নিয়েও অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়। বাউনা, বুটকা, বান্ধুয়া, বাটলার মত নামগুলোও আলোচনায় এসেছে। সিনেমার নাম নিয়েও বিস্তর আলোচনা ছিল। রেড চিলিস এন্টারটেইনমেন্ট তিনটি ভিন্ন নাম রেজিস্টার করে রেখেছিল। সেখান থেকে ‘জিরো’ নামটাই সবাই পছন্দ করে। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে সিনেমার নাম ঘোষণা করা হয়। মুক্তি পায় গত ২১ ডিসেম্বর (২০১৮)।

শাহরুখের সাথে সিনেমাটিতে ছিলেন আনুশকা শর্মা ও ক্যাটরিনা কাইফ। আনুশকা শারীরিক প্রতিবন্ধী ও নাসার বিজ্ঞানি আফিয়া ইউসুফজাই ভিন্ডারের চরিত্রটি করেন। আর ক্যাটরিনা কাইফের চরিত্রটি হল সিনেমার তারকা ববিতা কুমারির।

শাহরুখ খানের ক্যারিয়ারে ‘জিরো’ সেরা সিনেমা না হোক, অন্তত সবচেয়ে বড় বাজেটের সিনেমা তো অবশ্যই। সিনেমাটি নির্মানে ব্যয় হয়েছে ২০০ কোটি রুপি। যদিও, প্রাথমিক বাজেট ধরা হয়েছিল ১৫০ কোটি রুপি। পরে নির্মান ব্যয় বেড়ে যায়। এর মধ্যে কেবল ভিএফএক্সেই খরচ হয়েছেন ৭০ কোটি রুপি।

সিনেমাটিতে শাহরুখ খানকে ছোট আকারে দেখানোর জন্য ব্যবহৃত হয়েছে পাঁচ হাজারটি ভিন্ন ভিন্ন ভিএফএক্স শট। এই সংখ্যাটা বাহুবলির চেয়েও বেশি।

আরো পড়ুন

দেশিমার্টিনি অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।