৮১ বছর পর সঙ্গী পেলেন ফ্যাগ

প্রথম ছবিতে ব্যাট উঁচিয়ে আছেন যিনি, টেস্ট খেলেছেন তিনি মাত্র পাঁচটি। একটিও ফিফটি নেই। বল করেননি একটিও। তার পরও ক্রিকেট ইতিহাসে অমর হয়ে আছেন। এমন একটি কীর্তি তার আছে, যা ছিল না ক্রিকেট ইতিহাসে আর কারও। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে একই ম্যাচে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি!

‘ছিল’ লিখতে হচ্ছে, কারণ কীর্তিটি এখন আর তার একার নয়। একই ম্যাচে দুই ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন দ্বিতীয় ছবির এই ব্যাটসম্যান।

প্রথম জনের নাম আর্থার ফ্যাগ। ইংল্যান্ডের হয়ে ক্যারিয়ার লম্বা হয়নি। কিন্তু কেন্টের হয়ে খেলেছেন ২৫ বছর। ৪৩৫ ম্যাচে ৫৮ সেঞ্চুরিতে রান করেছেন ২৭ হাজারের বেশি। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারের উজ্জ্বলতম অধ্যায়টি ১৯৩৮ সালের কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে। এসেক্সের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে করেছিলে ২৯৫ মিনিটে ২৪৪। দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭০ মিনিটে অপরাজিত ২০২।

দুটি ডাবল ছাড়াও ফ্যাগ ক্রিকেট জগতে আলাদা জায়গা নিয়ে আছেন আরেকটি ঘটনায়ও। ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষেই শুরু করেছিলেন আম্পায়ারিং। ১৯৭৩ সালে এজবাস্টনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ডের টেস্টে জেফ বয়কটের বিপক্ষে একটি জোরালো আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার ফ্যাগ। সেসময় মাঠে ক্যারিবিয়ানদের আচরণ তার কাছে ভদ্রোচিত মনে হয়নি। প্রতিবাদে পরদিন মাঠে নামতে অস্বীকৃতি জানান ফ্যাগ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক রোহান কানহাই দু:খ প্রকাশ করতে রাজী হননি। শেষ পর্যন্ত সেই সময়কার ইংল্যান্ডের নির্বাচক ও পেস বোলিং কিংবদন্তি স্যার অ্যালেক বেডসারের অনুরোধে আবার মাঠে নামেন ফ্যাগ। ততক্ষণে দিনের খেলার এক ওভার পেরিয়ে গেছে। ডিকি বার্ডের সঙ্গে সেই এক ওভার আম্পায়ারিং করেন স্থানীয় কাউন্টি দল ওয়ারউইকশায়ারের কোচ অ্যালান ওকম্যান!

সেই ঘটনাবহুল ম্যাচ

যাই হোক, জোড়া ডাবল সেঞ্চুরির সেই কীর্তি ‘একমেবাদ্বিতীয়ম’ হয়ে ছিল প্রায় ৮১ বছর। অবশেষে একজন সঙ্গী পেলেন ফ্যাগ। শ্রীলঙ্কার প্রিমিয়ার লিগ টুর্নামেন্টে ইতিহাসে নাম লিখিয়েছেন অ্যাঞ্জেলো পেরেরা।

পি সারা ওভালে গতকাল শেষ হওয়া ম্যাচে ননডেসক্রিপ্টস ক্লাবের হয়ে পেরেরা প্রথম ইনিংসে করেছেন ২০৩ বলে ২০১, দ্বিতীয় ইনিংসে ২৬৮ বলে ২৩১।

পেরেরার কীর্তি ফ্যাগের চেয়ে একটু আলাদা এক জায়গায়। ফ্যাগ দুটি ডাবল করেছিলেন ওপেন করে, পেরেরা দুটিই পাঁচে নেমে।

শ্রীলঙ্কার হয়ে দুটি টি-টোয়েন্টি ও চারটি ওয়ানডে খেলেছেন ২৮ বছর বয়সী পেরেরা। সবশেষটি ২০১৬ সালে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে তিনি বেশ পরিচিত নাম। ২০১৩ সালে বাংলাদেশর বিপক্ষে সিরিজেই প্রথমবার ডাক পেয়েছিলেন শ্রীলঙ্কা দলে। আন্তর্জাতিক অভিষেকও বাংলাদেশের বিপক্ষে। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলেছেন মোহামেডান ও শেখ জামালের হয়ে।

– ফেসবুক ওয়াল থেকে

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।