অথচ, অডিশন থেকেই বাদ পড়েছিলেন তাঁরা!

যখন আমরা তারকাদের দিকে তাকাই, তাদের গ্ল্যামারাস জীবন দেখি মনে হয়, জীবনটা তাঁদের জন্য সতিই হয়তো পুষ্প সজ্জা। তবে, অধিকাংশ অভিনয় শিল্পীর ক্ষেত্রেই এই কথাটা সত্যি নয়। বলিউডে ওপরে ওঠার পথে উত্থান-পতনের কোনো শেষ নেই। এখানে ভাল একটা চরিত্র পেতে অনেকের মধ্যেই লড়াই চলে। অনেকে বড় তারকা হওয়ার পরও বাদ পড়েন অডিশন থেকেও। এমনই কিছু ব্যর্থতার গল্প বলতে চলেছি এখন।

  • ভিকি কৌশল ও রণবীর সিং (ভাগ মিলখা ভাগ)

সম্প্রতি এই সাক্ষাৎকারে ভিকি বলেন ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ সিনেমায় মিলখা সিংয়ের চরিত্র্রের জন্য অডিশন দিয়েছিলেন তিনি। তবে, নির্বাচিত হননি। চরিত্রটি পান ফারহান আখতার। একই চরিত্রের জন্য রণবীর সিংয়ের অডিশনও নেওয়া হয়েছিল। তিনিও ব্যর্থ হয়েছিলেন।

  • আলিয়া ভাট (ওয়েক আপ সিড, ব্ল্যাক)

আলিয়া ভাটের ক্যারিয়ার আরেকটু আগেই শুরু হতে পারতো। তিনি রণবীর কাপুরের বিপরীতে ‘ওয়েক আপ সিড’ ও রানী মুখার্জীর ছোট বয়সের চরিত্রের জন্য ‘ব্ল্যাক’ সিনেমায় অডিশন দিয়েছিলেন। দু’টোর কোনোটাতেই নির্বাচিত হননি।

  • বরুণ ধাওয়ান (লাইফ অব আ পাই, ধোবি ঘাট)

পরিচালক ডেভিড ধাওয়ানের ছেলে হওয়ার পরও অডিশন দিতে হয়েছিল বরুণ ধাওয়ানকে। তিনি ‘লাইফ অব আ পাই’ ও ‘ধোবি ঘাট’ – দু’টো ছবিতে অডিশন দেন, দু’টোতেই ব্যর্থ হন।

  • দিপীকা পাড়ুকোন (বেয়োন্ড দ্য ক্লাউডস)

মাজিদ মাজিদীর বিখ্যাত ছবি ‘বেয়োন্ড দ্য ক্লাউডস’-এর জন্য স্ক্রিন টেস্ট নেওয়া হয়েছিল দিপীকার। কিন্তু, সেখানে বলিউডের এই নায়িকাকে মনে ধরেনি মাজিদীর।

  • আনুশকা শর্মা (মুন্নাভাই এমবিবিএস ও থ্রি ইডিয়টস)

রাজকুমার হিরানী দু’বার আনুশকার অডিশন নিয়েছিলেন। একবার ‘মুন্নাভাই এমবিবিএস’ ও অন্যটি ‘থ্রি ইডিয়টস’ সিনেমার জন্য। কোনোবারই হিরানীর পছন্দ হয়নি আনুশকাকে। পরে আনুশকাকে নিয়ে তিনি পিকে ছবিটি করেন।

  • অক্ষয় কুমার (জো জিতা ওহি সিকান্দার)

‘জো জিতা ওহি সিকান্দার’ ছবির জন্য অডিশন দেন অক্ষয় কুমার। তবে, তাকে সিনেমাটির জন্য নেওয়া হয়নি। চরিত্রটি চলে যায় আমির খানের কাছে।

  • সারা আলী খান (ঠাগস অব হিন্দোস্তান)

সারার ক্যারিয়ার শুরু হতে পারতো ‘ঠাগস অব হিন্দোস্তান’ দিয়ে। তিনি ফাতিমা সানা শেখের চরিত্রটির জন্য অডিশনও দিয়েছিলেন। তবে, সেবার ব্যাটে বলে হয়নি।

  • আমিশা প্যাটেল (লগন)

এক সাক্ষাৎকারে আমিশা জানিয়েছিলেন, ‘লগন’ ছবির জন্য তিনি অডিশন দিয়েছিলেন। যদিও, পরে পরিচালক আশুতোষ গোয়ারিকর চরিত্রটির জন্য নেন গ্রেসি সিংকে।

  • কুনাল নায়ার (দিল্লী সিক্স)

তিনি বলিউডের নন, বরং তিনি ব্রিটিশ-ইন্ডিয়ান একজন অভিনেতা। তিনি ‘বিগ ব্যাঙ থিওরি’ নামক একটি আমেরিকান টেলিভিশন সিরিয়ালে কাজ করে খ্যাতি পেয়েছেন। কুনালের বলিউডে অভিষেক হতে পারতো রাকেশ ওম প্রকাশ মেহরার ‘দিল্লী সিক্স’ ছবিটি দিয়ে। তবে, তিনি অডিশন দিয়েই বাদ পড়েন। চরিত্রটি পরে পান অভিষেক বচ্চন।

  • মোহিত মারওয়াহ ও করণ ওয়াহি (আশিকি ২)

দু’জনই ‘আশিকি ২’ ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রের জন্য অডিশন দিয়েছিলেন। কেউই টিকেননি। চরিত্রটি পান আদিত্য রয় কাপুর। মোহিত হলেন অর্জুন কাপুর, সোনম কাপুরদের কাজিন। আর করণ হলেন টেলিভিশন অভিনেতা।

দেশিমার্টিনি অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।