সেকাল বনাম একাল: বদলে যাওয়া ‘ফ্রেন্ডস’

শুরুটা হয়েছিল ১৯৯৪ সালে। এনবিসি’র টেলিভিশন সিরিজ ‘ফ্রেন্ডস’ ছিল নিউ ইয়র্ক শহরের পাঁচ বন্ধু – র‌্যাচেল, রস, মনিকা, শ্যান্ডলার, ফোবি ও জো’র জীবনের গল্প। কালক্রমে সেটা হয়ে ওঠে টেলিভিশনের ইতিহাসেরই অন্যতম জনপ্রিয় ও ব্যবসাসফল অধ্যায়।

সেই গল্পের ইতি হয় ২০০৪ সালে গিয়ে। এরপরও কেটে গেছে অনেকগুলো বছর। এই সময়ে আরো গাদাখানেক সিনেমা কিংবা টেলিভিশন শো করেছেন ‘ফ্রেন্ডস’-এর কুশীলবরা। দিয়েছেন অসংখ্য সাক্ষাৎকার।

জেনিফার অ্যানিস্টন, ডেভিড শিউমার, কোর্টনি কক্স, ম্যাথু পেরি, লিসা কুড্রো ও ম্যাট লব্ল্যাঙ্ক – ছবির মূল শিল্পীরা এরপর আর যাই করে থাকুন না কেন সব কিছুর সাথেই চলেছে ফ্রেন্ডস-এর তুলনা, সবখানেই কোনো না কোনো ভাবে ফ্রেন্ডস-এর প্রসঙ্গ এসেছে।

সামান্য ১০ টা সিজনের সেই টেলিভিশন শো-তে আসলেই যেন জাদু ছিল। কেমন আছেন সেই শীর্ষ ছয় কুশীলব? চলুন জেনে নেই।

  • জেনিফার অ্যানিস্টন (চরিত্র – র‌্যাচেল গ্রিন)

ফ্রেন্ডস-এর সবচেয়ে স্টাইলিশ চরিত্র ছিল র‌্যাচেল গ্রিনের। কৃতিত্ব জেনিফার অ্যানিস্টনের। পরবর্তীতে নিজের কমেডি ও অভিনয়ের জাদু তিনি অক্ষুন্ন রেখেছেন হলিউডে। কার্যত, বর্তমান বাস্তবতায় তিনিই সবার মধ্যে সবচেয়ে বড় তারকা।

  • ডেভিড শিউমার (চরিত্র – রস গেলার)

তিনি ছিলেন জীবাশ্মবিদ, ডায়নোসরের প্রতি শৈশব থেকে অতি মাত্রায় কৌতুহলী। চরিত্রটি করা ডেভিড শিউমার পরে আরো বেশ কয়েকটা ছবি ও টেলিভিশন সিরিজ করেন। সম্প্রতি এনবিসি’র ‘উইল অ্যান্ড গ্রেস’-এও দেখা যায় তাঁকে।

  • কোর্টনি কক্স (চরিত্র – মনিকা গেলার)

রসের ছোট বোন মনিকা ছিলেন একজন রাধুনী। চরিত্রটি করা কোর্টনি কক্স নব্বই দশকের টেলিভিশন দুনিয়ার ক্রেজ ছিলেন। পরে কেন্দ্রীয় চরিত্রে তিনি ‘কুগার টাউন’ নামের আরেকটি টেলিভিশন শো করেন ও সমান জনপ্রিয়তা পান।

  • ম্যাথু পেরি (চরিত্র – শ্যান্ডলার বিঙ)

ফ্রেন্ডস-এর সবচেয়ে রসাত্মক চরিত্র হল শ্যান্ডলার বিঙের। বিদ্রপাত্মক মন্তব্যের জন্য তাঁর কোনো জুড়ি নেই। চরিত্রটি করা ম্যাথু পেরির বাস্তব জীবন অবশ্য হাসি-তামাশায় কাটেনি। জুলিয়া রবার্টসের সাবেক প্রেমিক মাদকাসক্ত হয়ে জীবনকে খাঁদের কিনারায় নিয়ে গিয়েছিলেন। আজো নিয়মিত পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয় তাঁকে। টেলিভিশনের পর্দার নিয়মিত এই মুখ এরপর ‘দ্য অড কাপল’ ও ‘সেভেন্টিন এগেইন’-এর মত টেলিভিশন শো করেন।

  • লিসা কুড্রো (চরিত্র: ফিবি বাফে)

ফিবির চরিত্র করা লিসা কুড্রো তাঁর নাঁকি সুরের উদ্ভট গানের জন্য বিখ্যাত। এখন তিনি অভিনয়, প্রযোজনা ও লেখালিখির সাথে জড়িত।

  • ম্যাট লব্ল্যাঙ্ক (চরিত্র: জো ট্রিব্বিয়ানি)

সিরিজটিতে ম্যাট লব্ল্যাঙ্ক একজন স্ট্রাগলিং অভিনেতার চরিত্র করেন। জো ট্রিব্বিয়ানি চরিত্রটি বেশ জনপ্রিয়তা পায়। লব্ল্যাঙ্ক টেলিভিশনের দুনিয়ায় বিশাল ব্যাপার। অভিনয় ও উপস্থাপনা – সবই করেন। জিতেছেন গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারও।

– ইনসাইডার অবলম্বনে

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।