বলিউডের অন্ধকার জগৎ: জমকালো প্রাসাদের গোপন কুঠুরি

বাইরে থেকে দেখলে মনে হয় বলিউড তারকাদের জীবন আক্ষরিক অর্থেই গোলাপ ফুলের শয্যা। কিন্তু, লোকে ভুলেই যায় গোলাপে কেবল মোহনীয় সুবাসই নয়, কাঁটাও আছে। বলিউড তারকাদের জীবনেও তাই আলোর পাশে আছে অন্ধকার। চলুন, তেমনই কিছু অধ্যায়ের কথা জেনে নেই।

  • রীনা রয়ের সাথে সোনাক্ষী সিনহার অদ্ভুত মিল

সোনাক্ষীর বাবা শ্রত্রুঘ্ন সিনহার সাবেক প্রেমিকা ছিলেন রিনা। সেই রিনার সাথে কেন সোনাক্ষীর চেহারার এত মিল? এই নিয়ে কিছুদিন তোলপাড় হয় ভারতীয় গণমাধ্যমে। সোনাক্ষী তেলেবেগুনে জ্বলে উঠে বলেছিলেন, ‘প্রত্যেকেরই একটা অতীত থাকে। সেই অতীত আঁকড়ে ধরে কেউই বাঁচতে চান না। এসব রসাল গসিপের উপাদান ছাড়া আর কিছুই নয়। আর আমার সাথে সবচেয়ে বেশি মিল আমার মায়ের।’

  • কঙ্গনা রনৌতের দুই নৌকায় পা

ক্যারিয়ারের শুরুটায় অনেক স্ট্রাগল করতে হয়েছে গুণী অভিনেত্রী কঙ্গনাকে। ব্যক্তিগত জীবনটাও তখন তাঁর স্বাভাবিক ছিল না। এক সাথে দু’টো প্রেম করতেন। দু’জন হলেন আদিত্য পাঞ্চোলি ও আধিয়ান সুমান। এটা কঙ্গনার জীবনের অন্ধকার অধ্যায় গুলোর একটি।

  • শারীরিক সম্পর্কের বিনিময়ে কাজ

এনডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রনবীর সিং তাঁর ক্যারিয়ারের অজানা এক অধ্যায়ের কথা জানিয়েছেন। তাঁর দাবী, ক্যারিয়ারের শুরুতে রোলের বিনিময়ে এক পুরুষ কাস্টিং ডিরেক্টর বর্তমান সময়ের প্রতিভাবান এই অভিনেতার সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়তে চেয়েছিলেন। রণবীর সেই প্রস্তাবে সাফ ‘না’ বলে দেন, ‘আমি একটু দেরীতে বুঝতে পারি সে কি চাইছিল। আমি সরাসরি না বলে দেই। সম্ভবত সে সিনেমার নায়কদের মত কষ্ট পেয়েছিল।’

  • বর্ণবাদ ও বৈষম্য

কারিনা কাপুরের সাথে এক সাথে ‘আজনাবি’ সিনেমায় কাজ করেছিলেন বিপাশা। তখন বিপাশার খ্যাতি আকাশচুম্বী, কারিনার ইন্ড্রাস্টিতে পায়ের মাটি তখনও আজকের মত শক্ত হয়নি আজকের। সেই অবস্থাতেই বিপাশাকে ‘কালি বিল্লি’ বা ‘কালো বিড়াল’বলে মন্তব্য করেছিলেন কারিনা। বলাই বাহুল্য, বিপাশার গায়ের কালো রঙের দিকেই ইঙ্গিত ছিল তাঁর। ধানুশ কিংবা মনোজ বাজপাইয়ের মত প্রতিভাবানরাও এমন বর্ণবাদী বিদ্বেষের শিকার হয়েছেন

  • রণবীর কাপুরের মাদকাসক্তি

এই মুহূর্তে বলিউড পরিচালকদের প্রথম পছন্দ রণবীর কাপুর। নি:সন্দেহে বলিউডের খ্যাতনামা কাপুর পরিবারের অন্যতম সেরা অভিনেতা তিনি। তবে, খুব কম মানুষই এটা জানেন যে, তরুণ বয়সে মাদকাসক্তি থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে অনেক বেগ পেতে হয়েছে তাঁকে।

  • বিগ স্টাররাও  বি গ্রেড সিনেমায়

বলিউডে খ্যাতি চিরস্থায়ী না। তাই, অর্থের টানে এখন বড় বড় তারকারাও এক সময় ছোট-খাটো সিনেমা করতে বাধ্য হন।  এমনকি রাজেশ খান্না বা অমিতাভ বচ্চনের মত কিংবদন্তিরা তো রীতিমত বি গ্রেড সিনেমাতেও নাম লিখিয়েছেন। ২০০৮ সালে ‘ওয়াফা: এ ডেডলি লাভ স্টোরি’র মত তৃতীয় সারির সিনেমায় দেখা গেছে। অমিতাভ বচ্চন করেছেন ‘বুম’। এমনকি মিঠুন চক্রবর্তী, ধর্মেন্দ্র কিংবা বিনোদ খান্নারাও একই কাজ করেছেন।

  • আমির খানের বিবাহ বহিভূর্ত সন্তান

সব্যসাচী অভিনেতা হিসেবে পরিচিত আমির খানের ব্যক্তিগত জীবন সুখকর নয়। শোনা যায়, তাঁর বিবাহ বহির্ভূত এক সন্তান আছে। সেই সন্তানের জন্ম দিয়েছেন জেসিকা হিনেস। যদিও, আমির কখনোই সেই সন্তানকে নিজের ছেলে বলে স্বীকৃতি দেননি।

  • শক্তি কাপুরের কাস্টিং কাউচ বিতর্ক

২০০৫ সালে একটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম স্টিং অপারেশন চালিয়ে শক্তি কাপুরের ‘কাস্টিং কাউচ’ প্রকাশ্যে আনে। ওই ভিডিওতে দেখা যায়, একজন নারী সাংবাদিক নায়িকা সেজে তাঁর কাছে কাজ চাইতে গেলে তিনি বলছেন, ফিল্মে কাজ করতে চাইলে, কাস্টিং কাউচের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে! শক্তি সরাসরি ওই নারীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ারও প্রস্তাব দেন।

যদিও এই খ্যাতিমান অভিনেতা তাঁর বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগ এবং স্টিং অপারেশনের সময় বলা সব বক্তব্য অস্বীকার করে বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। ওই ভিডিওটা নকল, টেম্পার করে আমার মুখ বসিয়ে দেওয়া হয়েছে।’

– এন্টারটেলস অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।