তামিম ইকবাল আনপ্লাগড

বাংলাদেশ ওয়ানডে সিরিজ জিতে নিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে। পুরো সিরিজে ব্যাট হাতে অদম্য ধারাবাহিকতার প্রতীক ছিলেন তামিম ইকবাল খান। তিন ম্যাচে দুটো সেঞ্চুরি ও একটি হাফ সেঞ্চু্রির সৌজন্যে করেছেন ২৮৭ রান। তামিম ইকবাল নিজেকে বদলে নিয়েছেন অনেকটাই। সেই তামিম ইকবাল খানের ভিন্নধর্মী এক সাক্ষাৎকার নিয়েছে ক্রিকেট বিষয়ক গণমাধ্যম ইএসপিএনক্রিকফো। ২৫ টি মজার প্রশ্নে তামিম ইকবাল দিয়েছেন মজার ২৫ টি উত্তর।

চট্টগ্রামে কোথায় দুপুরের খাবার খেতে পছন্দ করেন?

– দমফুঁক

যে বৈশিষ্ট্য আপনি সকল ড্রেসিংরুমে চান…

– মিউজিক

কোন সুস্বাদু খাবারটি আপনি রান্না করতে পারেন?

– স্মুদিস

কোন অনুশীলন করতে আপনি ভয় পান?

– ওয়ার্ম-আপ

কোন বাংলাদেশি ক্রিকেটার সবসময় তার ফোনের দিকে তাকিয়ে থাকে?

– সবাই

পাড়ার ক্রিকেটের নিয়মগুলো বলুন যেগুলো আপনি বাংলাদেশে অনুসরণ করতেন…

– সীমানার বাইরে বল গেলে আউট, সোজা ছয় মারা যাবে। উইকেটের মান সাধারণের চেয়ে দ্শ গুণ।

জীবনে কোন বিখ্যাত ব্যাক্তির সাথে দেখা করতে চান?

– দুজন, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও রজার ফেদেরার।

টেস্ট ক্রিকেটে ব্যাট করার সময় বোলিং এর অবসরে কি করতে পছন্দ করেন?

– আমি অপ্রয়োজনীয় কোন স্থাপনা যেমন বিল্ডিং দেখি, নিজেকে সুইচ অফ করে আবার অন করি।

আপনাকে নিয়ে যদি কোন সিনেমা হয়, সেখানে নিজের চরিত্রে কাকে দেখতে চাইবেন?

– সালমান খান।

ক্রিকেট ফ্যান নয় এমন কোন ব্যক্তিকে ক্রিকেট কিভাবে বোঝাবেন?

– যদি আমি আমেরিকায় থাকি, তাহলে এটিকে বেসবলের সাথে তুলনা করে তাদের জন্য বোঝা কঠিন করে দিতাম।

সবচেয়ে বিরক্তিকর আউট কোনটি?

– রানআউট

যদি আপনার কোন সুপারপাওয়ার থাকতো তাহলে সেটি কোনটি হতো?

– প্রতি বলে ছয় মারার ক্ষমতা।

ছয় মারার প্রথম শর্ত কোনটি?

– শতভাগ নিশ্চিত হতে হবে আপনি এ বলে ছয় মারতে চান।

আপনার জীবনের বিখ্যাত ছয় কোনটি?

– ২০০৭ বিশ্বকাপে জহির খানকে মারা সে ছয়, যেবার আমরা ভারতকে হারিয়েছিলাম।

আপনার প্রিয় ছুটি কাটানোর জায়গা?

– লন্ডন।

ক্যারিয়ার শেষে কোন রেকর্ডের মালিক হতে চান?

– বাংলাদেশের হয়ে সব ফরম্যাটে সর্বোচ্চ রান।

বাংলাদেশের বিরিয়ানির পর কোন দেশের বিরিয়ানি সুস্বাদু?

– ভারত

ফোনে কোন অ্যাপ অধিকাংশ সময় ব্যবহার করা হয়?

– হোয়াটসঅ্যাপ

নিজেকে আত্মগোপন করার জন্য কখনো ছদ্মবেশে বাইরে গিয়েছিলেন?

– আমি নিজেকে প্রকাশ করিনা, কেউ যদি জানতে চায় আমি তামিম ইকবাল কিনা বলি না আমি তামিম না।

সাঁতারে কখনো মাশরাফিকে হারাতে পেরেছিলেন?

– কোন সুযোগ নেই।

ব্যাট করতে এলে সাউন্ডট্র্যাকে কোন সঙ্গীতটি রাখতে চান?

– আমি মিউজিকের ভক্ত নই। ব্যাট করার সময় আমি নার্ভাস থাকি, প্রথম বলটি পার করতে পারলেই বাঁচি।

বোলারদের চেয়ে ব্যাটসম্যানের মাথা ঠাণ্ডা রাখেন কিভাবে?

– কারণ তাঁরা বোলারদের চেয়েও বিচক্ষণ।

টেলিভিশনে খেলা দেখার সময় স্ট্যাম্প মাইকে কার কথা শুনতে পছন্দ করবেন?

– মহেন্দ্র সিং ধোনি

কঠিন ডায়েট চার্ট অনুসরণের পরেও কোন খাবার দেখে নিজেকে সামলানো যায় না?

– চিকেন রোস্ট

ক্যাচ ফেলে দেয়ার পর কোন বাংলাদেশি বোলারের অভিব্যাক্তি দেখে মজা পান?

– ক্যাচ ফেলার নয়, ক্যাচ যখন ওঠে তখন তাসকিন দু’হাত প্রার্থনার মতো ভাঁজ করে রাখে। ওটা দেখতে মজাই লাগে, কারণ ক্রিকেটের প্রতি ওর ভালোবাসাটা অপরিসীম; ও চায় না ওর কোন ক্যাচ বা উইকেট মিস হোক।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।