চিরাচরিত ‘সিন্ডিকেট’ ও এই সময়ের বাংলা নাটক

অপূর্ব, নিশো, মেহজাবিন, তানজিন তিশার সিন্ডিকেট নিয়ে অনেক কথা উঠছে, যার যখন জনপ্রিয়তা থাকে সে তখন কিছু বলয় সৃষ্টি করেই থাকে। তারাও করছে। মোশাররফ করিম নিয়ে গুঞ্জন ছিল। বলা হত যে তিনি তাঁর স্ত্রীকে নাটকে নিতে বাধ্য করাতেন ,নিজের পারিশ্রমিক কমিয়ে দিতেন স্ত্রী নাটকে নিলে।

মোশাররফ করিমের উত্থানের পিছনে ছবিয়ালের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি, সেই মোশাররফই ছবিয়াল উৎসবে শিডিউল দিতে পারেন না, সেটা দূরত্ব হয়েছিল বলেই। অন্যদিকে মোশাররফ করিমকে নিয়ে জনপ্রিয় হওয়া মাসুদ সেজান এখন আর তাকে নেন না, কারণ দূরত্ব বেড়েছে। ছবিয়ালের সৃষ্টি সিদ্দিকুর রহমান আজ তাদের কাছে ধূসর অতীত। লাভলু-বৃন্দাবন দাশ সুযোগ করিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী শাহনাজ খুশিকে!

চঞ্চল চৌধুরীর নির্দিষ্ট বলয় নিয়ে জাহিদ হাসান কথাও বলেছিলেন, সালাউদ্দিন লাভলুর সঙ্গে তার জুটি অত্যন্ত দর্শকপ্রিয়। সেই লাভলুর সঙ্গে এখন ভালো সম্পর্ক নেই, কাজ করেন না। আখম হাসান, শামীম জামানরা তাদের সঙ্গে নেই। বৃন্দাবন, খুশিদের সঙ্গে বন্ধুত্ব আছে বলেই তাদের সঙ্গে এখনো কাজ করে যান। খোঁজ নিলে জাহিদ হাসানের ও সেইরকম পাওয়া যাবে, হয়তো মাহফুজ আহমেদেরও!

হুমায়ূন আহমেদ একের পর এক নাটকে শাওনকে সুযোগ দিয়ে তারিন, অপিদের বঞ্চিত করেছিলেন। জয়াকে একের পর এক দারুণ চরিত্র দেয়া অনিমেষ আইচ শুধু এখন ভাবনা নিয়েই কাজ করেন,একই কারনে সুমন আনোয়ারের নাটকে মৌসুমী হামিদ! পরপর চারটি সুপার হিট নাটক উপহার দেয়ার পরেও শিহাব শাহিন- তিশা জুটি ভেঙ্গে যায়,জায়গা করে নেয় জাকিয়া বারী মম!

সেই মম-ই আবার ফারুকীর সিনেমায় শুধু তিশাকে নেন এই অভিযোগ আনেন। মাসুদ হাসান উজ্জ্বল নিজের নাটকে বেশিরভাগ ই অপি করিম কে নিতেন,দুইজনের বিচ্ছেদে এখন তার নায়িকা শার্লিন ফারজানা। চয়নিকা চৌধুরীর ১৬১ টা নাটকেই শুধু অপূর্বকে নিয়েছেন, দু’জনের মধ্যে রসায়ন নিয়ে দর্শকদের কাছে মুখরোচক।

সেই অপূর্বই নিজের জীবনের সেরা পাঁচ বাকে চয়নিকা চৌধুরীকে নাম উহ্য রাখেন। সম্পর্ক ভালো থাকলে চয়নিকার প্রথম ছবির নায়ক অপূর্ব ই হতেন। তানজিন তিশার আজকের অবস্থানের পিছনে মাবরুর রশিদ বান্নাহ’র সবচেয়ে প্রভাব বেশি, একের পর এক নাটকে নিয়েছেন। কিন্তু আজকের দিনে এসে যতটুকু শুনলাম দুইজনের সম্পর্ক আজ ভালো অবস্থানে নেই, একই অবস্থা আফরান নিশোর সঙ্গেও!

তিশার জনপ্রিয়তা ছিল বলেই অপূর্বকে সহকর্মী নিতে নিষেধ করতে পেরেছিলেন, তাই শুনেছি আজ চাইলেও অপরপক্ষ থেকে ‘হ্যাঁ’ আসে না, কারণ সে এখন শীর্ষদের একজন। এমনকি তিশার সঙ্গে একের পর এক নাটকে অভিনয়ে সুযোগ পাওয়া আফরান নিশোও তিশার সঙ্গে নাটক করতে চাইছেন না। তিশাকে বেছে নিতে হয় মুশফিক ফারহান কে! অপূর্বের জন্য চয়নিকা চৌধুরী নাটকে তিশাকে নিতেন না, আজ এসে তিশা অভিনয় করছেন চয়নিকা চৌধুরীর সঙ্গে।

সিন্ডিকেট ছিল,সিন্ডিকেট থাকবে। এর মাঝেই নিজেদের উদ্যেগেই ভালো নাটক উপহার দিয়ে যেতে হবে। আগে নাটকের মান ভালো ছিল বলেই এসবে দর্শকেরা মাথা ঘামাতো না। আজ নাটকের মান নিচে নেমেছে বলেই এত আলোচনা। তাই সিন্ডিকেটের চিন্তা না করে যে সকল কারণে আজ এই দুরবস্থা এইসব নিয়ে সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিন। সম্মিলিত প্রচেষ্টা নিন।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।