চকলেট বয় থেকে মাস্তান: একটি অতিমানবীয় রুপান্তর

প্রথম সিনেমা ‘পোড়ামন ২’ তখনো মুক্তি পায় নি। অথচ মুক্তির আগেই তিনি হয়ে গেছেন দারুণ আলোচিত। চুক্তিবদ্ধ হয়ে গেছেন তৌকীর আহমেদের ‘ফাগুন হাওয়া’ ছবিতে। সেটা ছিল কেবল শুরু। ‘পোড়ামন ২’ ২০১৮ সালের সবচেয়ে বেশি সাফল্য পাওয়া ঢাকাই সিনেমা।

এখানেই শেষ নয়। বড় বিস্ময়টা তখন জমাই ছিল। ‘দহন’ সিনেমার পোস্টার, গান যখন সামনে চলে আসে তখনই বোঝা যায় নিজেকে ভেঙে নতুন কিছু একটা করতে চলেছেন সিয়াম আহমেদ। আর সিনেমা মুক্তির পর বোঝা গেল কাজটাতে পুরোপুরি সফল বাংলাদেশের নতুন ধারার এই নায়ক।

চকলেট বয় চেহারা হওয়ার পরও ‘তুলা’ নামের বখাটে এক মাস্তানের চরিত্রে তিনি কতটা সফল হতে পারবেন সেটা নিয়ে দর্শক-সমালোচকসহ অনেকের মনেই সন্দেহ ছিল বিস্তর। তবে, নিজের পরিশ্রম আর অভিনয় দক্ষতায় সকল সন্দেহ আর সংশয় এক নিমিষে বাতাসের সাথে মিলিয়ে দিয়েছেন সিয়াম।

অথচ তাঁর নায়ক হবার কথাই ছিল না। বিদেশ থেকে ব্যারিস্টারি পাশ করে আইন পেশায় জড়াতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ভাগ্যে তাঁর লেখা ছিল রঙিন ভুবনে। আর তাই তিনি এই মুহুর্তে হয়ে উঠেছেন প্রতিশ্রুতিশীল নায়ক।

ছাত্রাবস্থায় মডেলিং করতেন টুকটাক। সেখান থেকে ডাক পান এয়ারটেলের ভালোবাসা দিবসের নাটক ‘ভালোবাসা ১০১’-এ। রেদোয়ান রনির পরিচালনায় নাটকটি তখন বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল। এরপর বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেন। অবশ্য ‘রুমডেট’ নাটকটি সমালোচিত হয়েছিল।

হঠাৎ করেই বিরতি, ব্যারিস্টারি পড়তে চলে যান ইংল্যান্ডে, সেটা ২০১৫ সালে সেপ্টেম্বরের কথা। এক বছল সেখানে নর্থামব্রিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আইনি পড়াশোনা শেষ করে ফেরেন ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে। সেখানে তাঁর ফলাফলও বেশ ভাল। তবে, ব্যারিস্টারি নয়, অভিনয়েই তাঁর সকল মনোযোগ।

আইন পেশায় নিজেকে ব্যস্ত করার আগে টিভি নাটকে কাজ শুরু করেন, বাবার কাছে সময় চেয়েছিলেন এক বছর। ২০১৬ সালে আবার ফিরে আসেন নাট্যভিনয়ে। অভিনয় করেছিলেন মন শুধু মন ছুঁয়েছে, পথ জানা নাই, মেঘ-সহ বেশ কয়েকটি নাটকে।

নিজের সমুজ্জ্বল ক্যারিয়ার গঠনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা ছিল ২০১৭ সালে। বছরের শুরুতেই ‘বখাটে’ শর্ট ফিল্ম দিয়ে দারুণ আলোচনায় চলে আসেন। আয়নাবাজি অরিজিনাল সিরিজের ‘কে কোথায় কিভাবে’ তে নিজের প্রতিভার পরিচয় দেন।

এরপর একে একে ঝড়ের পরে, জ্যাকসন বেলাল, চিরকুঠের শব্দ, ছেলেটি অবন্তীকে ভালোবেসেছিল, এক্স ফ্যাক্টর রিলোডেড, মেঘ এনেছি ভেজা, তোমার আমার প্রেম সহ বেশ কয়েকটি নাটক দিয়ে হয়ে যান বছরের অন্যতম সেরা টিভি অভিনেতা, যার কারণে পেয়েছেন দর্শক জরিপে মেরিল প্রথম আলো পুরস্কারের মনোনয়ন, তাঁর আগের বছরে পেয়েছিলেন সমালোচক মনোনয়ন।

টিভি নাটকে যখন নিজেকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে যাচ্ছেন, তখনই ডাক পেলেন চলচ্চিত্রের। জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘পোড়ামন ২’ দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় তাঁর। ছবিটিতে প্রত্যাশামাফিক সাফল্যও পেয়েছেন। ‘দহন ’দিয়ে তিনি ছাড়িয়ে গেছেন প্রত্যাশাকেও। ‘ফাগুন হাওয়া’ দিয়ে নিজের প্রতিভাকে আরো একবার যাচাই করে নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন সিয়াম।

নাটক থেকে যখন চলচ্চিত্রে চলে এলেন, তখন একজন নাট্যপ্রেমী হিসেবে আক্ষেপ হয়েছিল, তবে এখন যদি চলচ্চিত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত হন, সেই আক্ষেপটা ঘুচবে। কোনো সন্দেহ ছাড়াই বলা যায়, সিয়ামের শুরুটা হয়েছে দুর্দান্ত।

এবার লম্বা দৌঁড়ে তিনি কতটা সাফল্য কতটা পাবেন, তার জন্য সময়ের অপেক্ষা করা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই!

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।