আসছে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক!

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক নির্মানের পথে দ্রুতই কাজ এগোচ্ছে। সিনেমাটি নির্মিত হবে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে। এই ব্যাপারে সর্বশেষ খবর হল সিনেমাটির নানা দিক নিয়ে চূড়ান্ত কিছু দিক নির্দেশণা দিয়ে ভারতে গেছে বাংলাদেশের পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল।

সিনেমাটি নিয়ে ভারতের জাতীয় সম্প্রচারযন্ত্র দূরদর্শন টিভি, অল ইন্ডিয়া রেডিওর কর্মকর্তা ও  নির্মাতা শ্যাম বেনেগালের সঙ্গে বৈঠক করবেন তারা। তবে, সবচেয়ে বড় যে আলোচনা হবে সেটা হল ‘বাজেট’। এই বাজেটটা জানা হয়ে গেলেই বোঝা যাবে কতটা বড় পরিসরে নির্মিত হবে এই সিনেমাটি। সিনেমাটি নির্মানে ভারতের ভূমিকা কি হবে, বাংলাদেশের ভূমিকা কি হবে – সে ব্যাপারেও বিস্তারিত আলোচনা হবে। তবে, সিনেমাটিতে কে কে অভিনয় করবেন, কার কি ভূমিকা হবে – সে ব্যাপারে এখনই কোনো সূরাহা হচ্ছে না।

রবিবার (পাঁচ মে, ২০১৮) ঢাকা থেকে এই প্রতিনিধিদলটি দিল্লীতে গেছে। প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী। বাকি চার সদস্য হলেন তথ্য সচিব আবদুল মালেক, বিএফডিসির পরিচালক (প্রোডাকশন) নুজহাত ইয়াসমিন, মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (চলচ্চিত্র বিভাগ) প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে ডকুমেন্টারি ফিল্ম ‘হাসিনা: আ ডটারস টেল’-এর নির্মাতা রেজাউর রহমান খান পিকলু। সব ধরণে আলাপ-আলোচনা শেষে তাঁরা আগামী ৯ এপ্রিল প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে ফেরার কথা রয়েছে।

সিনেমাটি নির্মানের প্রাথমিক উদ্যোগ নেওয়া হয় ২০১৭ সালে। সেবার ভারত ও বাংলাদেশ সরকার বঙ্গবন্ধুর ওপর চলচ্চিত্র ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক একটি তথ্যচিত্র নির্মাণের ব্যাপারে চুক্তি স্বাক্ষর করে। বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক সিনেমাটি তাঁর শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ২০২০ সালে মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। বোঝাই যাচ্ছে শিগগিরই ছবিটির নির্মান কাজ শুরু করা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।

শ্যাম বেনেগাল

জানিয়ে রাখা ভাল, ভারত-বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের এই সিদ্ধান্ত পর্যবেক্ষণ করতে গত পহেলা এপ্রিল ঢাকায় আসেন ছবিটির পরিচালক ভারতীয় নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল। তিনি বাংলাদেশে চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) একটি বৈঠকেও অংশ নেন। দেখা করে গেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও। ঘুরে দেখেন গাজীপুরের শফিপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফিল্ম সিটি। বরেণ্য এই নির্মাতা সর্বশেষ ২০১০ সালে ‘ওয়েল ডান আব্বা’ নামের একটি ছবি নির্মান করেছিলেন। সিনেমাটি ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পায়।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।