নায়িকারা যখন ‘সিরিয়াল কিসার’

উপমহাদেশীয় সংস্কার অনেক আগেই ভেঙে ফেলেছে বলিউড। তাই তো, ভারতীয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ছবিগুলোতে সাহসী সব দৃশ্য দেখা যায়। আর এসব দৃশ্যে অংশগ্রহণের দিক থেকে পিছিয়ে নেই নায়িকারাও। তাঁদের নিয়েই আমাদের এবারের আয়োজন।

  • বিপাশা বসু

বিপাসা বসু এই তালিকায় কোনো সন্দেহ ছাড়াই থাকবেন সবার ওপরে। তিনি ছবিতে থাকবেন, অথচ তাতে ‍চুমু থাকবে না – তা কি করে হয়। ডিনো মরিয়া, জন আব্রাহাম, ইমরান হাশমি, একালের রণবীর কাপুর, কিংবা স্বামী করণ সিং গ্রোভার – সবাইকেই তিনি পর্দায় চুমু খেয়েছেন। তার মত কেউ আসেননি, ভবিষ্যতেও আসবে কি না সন্দেহ!

  • আনুশকা শর্মা

‘ব্যান্ড বাজা বারাত’ আনুশকার ক্যারিয়ারের শুরুর দিককার ছবি। রণবীর কাপুরের সাথে চুম্বন দৃশ্যে তার সাহসী উপস্থিতি সেবার আলোড়ন সৃষ্টি করে। এখানেই শেষ নয়, ‘বদমাশ কোম্পানি’-তে শহীদ কাপুর, ‘মাত্রু কি বিজলি কা মান্ডোলো’-তে ইমরান খান, পিকে-তে সুশান্ত সিং রাজপুত ও ‘বোম্বে ভেলভেট’-এ তিনি চুমু খান রণবীর কাপুরকে।

  • আলিয়া ভাট

তরুণ বয়সেই অভিনেত্রী হিসেবে আলিয়া বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন। শুধু অভিনয় প্রতিভা দিয়ে নয়, পর্দায় তিনি যথেষ্ট সাহসও দেখিয়েছেন। বিক্রম ভাটের কন্যা ও ইমরান হাশমির কাজিন আলিয়া মোটামুটি সকল সহ অভিনেতাকেই চুমু খেয়েছেন, প্রশংসাও কুড়িয়েছেন।

  • ক্যাটরিনা কাইফ

‘জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা’-তে হৃতিক রোশন ও ক্যাটরিনার চুম্বন দৃশ্যটিকে বলিউডের অন্যতম আইকনিক সিকোয়েন্সের খেতাব দেওয়া যায়। এছাড়াও ‘জাব তাক হ্যায় জান’ ও ‘ধুম থ্রি’-তে ক্যাট চুমু খান যথাক্রমে শাহরুখ ও আমিরকে।

  • বিদ্যা বালান

‘ডার্টি পিকচার’ খ্যাত অভিনেত্রী বিদ্যা বালান পর্দার সাহসী মুখ। তিনি ‘ইশকিয়া’ ছবিতে আরশাদ ওয়ার্সির সাথে খুব আবেগপ্রবণ চুম্বন দৃশ্যে অংশ নেন। এখানেই শেষ নয়, এই অভিনেত্রীর চুমু খাওয়ার তালিকায় আছেন আর মাধবন, সাইফ আলী খান, অভিষেক বচ্চন, ইমরান হাশমিরা।

  • পরিনীতি চোপড়া

পরিনীতি নিজের প্রায় সবগুলো ছবিতেই চুমু খেয়েছেন। এর মধ্যে সুশান্ত সিং রাজপুত ও অর্জুন কাপুরের সাথে তার চুম্বন দৃশ্যের কথা আলাদা করে না বললেই নয়।

  • দিপীকা পাড়ুকোন

তালিকায় দিপীকাও খুব একটা পিছিয়ে থাকবেন না। ‘রাম লীলা’-তে তিনি চুমুর দৃশ্যে ইতিহাস গড়েছেন। সাবেক প্রেমিক রণবীর কাপুরের সাথে ‘তামাশা’তেও তাই। এছাড়া ‘লাভ আজ কাল’-এ সাইফ আলী খান ও ‘ফাইন্ডিঙ ফ্যানি’-তে তিনি চুমু খেয়েছেন অর্জুন কাপুরকে।

  • কঙ্গনা রনৌত

ক্যারিয়ারের একদম গোড়ায় ‘গ্যাঙস্টার’ ছবিতেই সিরিয়াল কিসারের খেতাব পান কঙ্গনা রনৌত। পরে সু-অভিনেত্রী হিসেবে নাম ডাক হলেও চুম্বনের দৃশ্যে খ্যাতি কমেনি এক বিন্দুও। তাকে ‘রাজ ২’-তে অধ্যয়ন সুমানকে, ‘শ্যুটআউট অ্যাট ওয়াদালা’-তে জন আব্রাহামকে, ‘কাট্টি বাট্টি’-তে ইমরান খানকে, ‘রেঙ্গুন’-এ ইমরান খান ও সাইফ আলী খানের সাথে চুম্বনের দৃশ্যে অংশ নিতে দেখা যায়।

  • কারিনা কাপুর

কারিনা কাপুর ক্যারিয়ারে নিজেকে অনেকবারই ভাঙতে পেরেছেন। আইটেম গান হোক কিংবা হোক ঘনিষ্ট দৃশ্যে – সব খানেই তিনি সাহস দেখিয়েছেন। ‘দেব’, ‘জাব উই মেট’, ‘ওম কারা’, ‘কামবাখত ইশক’, ‘কুরবান’, ‘হিরোইন’, ‘কি অ্যান্ড কা’ ইত্যাদি ছবিতে তাঁর চুমুর দৃশ্য আছে। ফারদিন খান, অজয় দেবগন, সাবেক প্রেমিক শহীদ কাপুর, স্বামী সাইফ আলী খান, অর্জুন রামপাল, কিংবা তরুণ অভিনেতা অর্জুন কাপুর – সবাইকেই চুমু খেয়েছেন বলিউডের বেবো।

  • ঐশ্বরিয়া রায়

তালিকাটা সাবেক বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বরিয়াকে ছাড়া কখনোই পরিপূর্ণ হবে না। ‘খাকি’র নেতিবাচক চরিত্রে তিনি চুমু খেয়েছেন অজয় দেবগনকে, ‘গুরু’তে স্বামী অভিষেক বচ্চনকে, ‘ধুম ২’-তে হৃতিক রোশনকে, ‘শাব্দ’-এ সঞ্জয় দত্তকে। ‘চোখের বালি’-তে বাঙালি অভিনেতা প্রসেনজিতের সাথেও তাঁর চুমুর দৃশ্য আছে। ইংরেজি ছবি ‘দ্য মিসট্রেস অব দ্য স্পাইস’-এ তিনি চুম্বন দৃশ্যে অংশ নেন আমেরিকান অভিনেতা ডিলান ম্যাকডারমটের সাথে। একালের রণবীর কাপুরও বাদ যাননি। বয়সের অনেক ব্যবধান থাকার পরও ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এ দু’জনের রসায়ন জমে উঠেছিল।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।