সালমান-ক্যাটরিনা জুটি: বক্স অফিসের প্রাণ

বলিউডে কোন জুটি এখন বক্স অফিসে সবচেয়ে বেশি গ্রহনযোগ্য? কিংবা বক্স অফিসে কোন জুটি সবচেয়ে বেশি লাভজনক? – এমন সব প্রশ্নের জবাবে প্রথমেই যাদের কথা মাথায় আসে, তাঁরা হল সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ। নিজেদের একজন প্রথম ছবি থেকে শুরু করে আজ অবধি যতগুলো ছবিতে তাঁরা জুটিবদ্ধ হয়েছেন, সবগুলোতেই প্রমাণ হয়ে গেছে যে তাঁরাই এই মুহূর্তে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ব্লকবাস্টার জুটি।

নিন্দুকেরা অবশ্য বলেন, ক্যাটরিনার জন্য বলিউডের ভাইজান হচ্ছেন একটা সিঁড়ির মত। একদম গোঁড়া থেকে তিনি সালমান খানের সাথে জুটি বেঁধে কাজ করছেন। তা না হলে কি ‘বুম’-এর মত দ্বিতীয় সারির ছবি দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা ক্যাটরিনা এখন শীর্ষ নায়িকাদের একজন হন!

  • উড়ন্ত সূচনা

শুরুটা হয় ২০০৫ সালের ‘ম্যায়নে প্যায়ার কিউ কিয়া’র মধ্য দিয়ে। ছবিটাতে সালমানের স্ত্রী’র চরিত্রে ছিলেন সুস্মিতা সেন। আর ক্যাটরিনা কাইফের চরিত্রটা ছিল সালমানের প্রেমিকার। ত্রিভুজ প্রেমের গল্পটা বক্স অফিসেও বেশ সাফল্য পায়। আবারো সালমান রোম্যান্টিক-কমেডি ঘরানায় বড় সাফল্য পান।

এই সময়ে বাস্তব জীবনেও সালমানের সাথে সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল ক্যাটরিনার। যদিও, সেটা টেকেনি। তবে, এই টানাপোড়েন কখনোই তাঁদের পেশাদার জীবনে প্রভাব ফেলেনি। বরং, ছাড়াছাড়ি হওয়ার পরই এই জুটি আরো বড় সাফল্য পেয়েছে। এই ঘটনা খোদ বলিউডের ইতিহাসে বিরল ব্যাপার।

 

  • টাইগারের বাজিমাৎ

সালমান-ক্যাটরিনা জুটির এখন অবধি সবচেয়ে বড় কাজ হল ‘এক থা টাইগার’। এরপর টাইগার ফ্র্যাঞ্চাইজির দ্বিতীয় কিস্তি ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’-তেও ছিলেন এই জুটি। দু’টোই বলিউডে ব্লকবাস্টারের তকমা পায়। ছবি দু’টি মিলে বক্স অফিস থেকে ৫২৫ কোটি রুপি আয় করে। ছবি দু’টিতে সালমানের পাশাপাশি ক্যাটরিনাকেও অ্যাকশন দৃশ্যে দেখা যায়। দর্শকরাও বেশ উপভোগ করেন।

  • বর্তমান সময়

সর্বশেষ এই জুটিকে দেখা গেছে ‘ভারত’ ছবিতে। ২০১৮ সালটা সাল্লু’র জন্য ভাল যায়নি। এরপর ২০১৯ সালে এই ছবিটা দিয়েই হারানো জায়গা ফিরে পেয়েছেন তিনি। ছবিটি বক্স অফিস থেকে প্রায় ২০০ কোটি রুপি নিয়ে ফিরেছে।

নিজেদের মধ্যে জুটি বেঁধে সালমান-ক্যাটরিনা এখন অবধি যা করেছেন সবগুলোই ব্যবসা সাফল্য পেয়েছে। এর বাইরে পরস্পরের বিপরীতে কাজ না করেও ‘পার্টনার’ ও ‘যুবরাজ’-এর মত ছবি করেছেন তাঁরা। ডেভিড ধাওয়ানের ‘পার্টনার’ বেশ সাফল্য পেলেও মুখ থুবড়ে পড়েছিল তারকাবহুল ‘যুবরাজ’।

ক্যাটরিনা কাইফ একই সাথে সময়ের অন্যান্য সেরাদের সাথেও সমান তালে কাজ করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে বাকি দুই খান – শাহরুখ ও আমির আছেন। আছেন অক্ষয় কুমার, হৃতিক রোশন কিংবা রণবীর কাপুর। কিন্তু, কারো সাথেই তাঁর সাফল্যের হার সালমানের ধারের কাছেও পৌঁছায়নি। একই কথা সালমানের ক্ষেত্রেও খাটে।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।