সালমান + আলিয়া + বনসালী = ব্লকবাস্টার?

১৯৯৯ সালে সুপারহিট রোমান্টিক সিনেমা ‘হাম দিল দে চুকে সানাম’ সিনেমায় সঞ্জয় লীলা বনসালীর সাথে শেষবার কাজ করেছিলেন বলিউডের ভাইজান সালমান খান। তারপর প্রায় দীর্ঘ দুই দশক পর আবারো সঞ্জয় লীলা বানসালীর সিনেমায় অভিনয় করতে চলেছেন সালমান খান।

মাঝে ‘সাওয়ারিয়া’তে অতিথি চরিত্রে তাঁকে দেখা গিয়েছিল, তবে সেটা শুধুই বন্ধুত্বের খাতিরে। নতুন সিনেমার নাম ‘ইনশাআল্লাহ’। তবে এই সিনেমার অন্যতম চমক হতে যাচ্ছে আলিয়া ভাট। এই প্রথমবার একসাথে অভিনয় করতে যাচ্ছেন তিনি অভিনেতা সালমান খানের সাথে এবং পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালীর নির্দেশনায়।

লম্বা একটা সময় দু’জনের মুখ দেখাদেখি বন্ধ ছিল। শুরুটা সাল্লু ভাই-ই করেছিলেন। ২০১০ সালে বনসালীর ছবি ‘গুজারিশ’ দেখে সালমান বলেছিলেন, ‘কোনো ‍কুকুরও গিয়ে এই ছবি দেখবে না।’

বনসালী পুরনো বন্ধুর এই আচরণে কষ্ট পান। তিনি নীরবতা ভেঙে বলেছিলেন, ‘যদি একজন পুরনো আর বিশ্বস্ত বন্ধু এমন বলেন, তাহলে আমার মনে হয় এই বিনোদন জগতে আমার আর কিছু করার নেই।’ এরপর থেকেই তাঁদের সম্পর্কের টানাপোড়েন শুরু হয়। তবে, সম্প্রতিই সেই অচলায়তন ভাঙা গেছে।

বর্তমানে আলী আব্বাস জাফরের ‘ভারত’ সিনেমার শুটিং করছেন সালমান খান। ২০১৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত দক্ষিণ কোরিয়ান সিনেমা ‘ওডে টু মাই ফাদার’ সিনেমা অবলম্বনে এটি নির্মিত হচ্ছে। সালমান খান ছাড়াও ‘ভারত’ সিনেমার বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন-জ্যাকি শ্রফ, ক্যাটরিনা কাইফ, টাবু, বরুণ ধাওয়ান, সুনীল গ্রোভার প্রমুখ। চলতি বছর ঈদুল ফিতরে সিনেমাটি মুক্তির কথা রয়েছে।

অন্যদিকে কয়েকদিন আগে মুক্তি পেয়েছে আলিয়া ভাটের ‘গাল্লি বয়’ সিনেমাটি। বক্স অফিসে এরই মধ্যে সুপারহিট সিনেমা হিসেবে সফলতা এবং প্রশংসা কুড়াচ্ছে এটি। তাঁর পরবর্তী সিনেমা অভিষেক বর্মন পরিচালিত ‘কলঙ্ক’। ইতিমধ্যে এই সিনেমার একটি গান এবং টিজার রিলিজ করা হয়েছে যা প্রশংসা কুড়াচ্ছে সবার। মাধুরী, সঞ্জয় দত্ত, বরুন ধাওয়ান, আদিত্য রয় কাপুর, সোনাক্ষী সিনহার সাথে এই সিনেমায় আলিয়া যে আবার বক্স অফিসে ঝড় তুলবে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

সম্প্রতি ‘বাহুবলি’ খ্যাত দক্ষিণের পরিচালক এস এস রাজামৌলি’র নতুন সিনেমা বিগ বাজেটের সিনেমা ‘ট্রিপল আর’ সিনেমায় রামচরন এবং জুনিয়র এনটি আর আর সাথেও আছেন আলিয়া। এই ডিসেম্বরে রণবীর কাপুর এবং অমিতাভ বচ্চনের সাথে ‘ব্রক্ষ্মাস্ত্র’ সিনেমায় দেখা যাবে এ অভিনেত্রীকে। এছাড়া ‘সড়ক-২’ এবং অরুনিমা রায়ের বায়োপিকে ও দেখা যাবে আলিয়াকে।

এই খবর নিয়ে বেশ কিছুদিন বলিউডে গুঞ্জন থাকলেও ফাইনালি এই প্রসঙ্গে টুইটারে সালমান খান লিখেছেন, ‘প্রায় ২০ বছর পর কিন্তু আমি আনন্দিত অবশেষে আমি ও সঞ্জয় তাঁর পরের সিনেমা ‘ইনশাআল্লাহ’ দিয়ে একসাথে ফিরছি। আলিয়ার সঙ্গে কাজ করার অপেক্ষায় আছি। ইনশাআল্লাহ আমাদের এই পথচলায় আমরা সবার দোয়া পাবো।

আলিয়া ভাটের ভাষায়, ‘এ যেন জেগে জেগে স্বপ্ন দেখার মতো, তারা আমাকে প্রস্তাব দিল আর আমি রাজি হয়ে গেলাম। সঞ্জয় স্যার ও সালমান খান ম্যাজিক্যাল জুটি এবং আমি তাদের সঙ্গে ইনশাআল্লাহ সিনেমার পথচলায় যোগ দিচ্ছি।’

সঞ্জয় লীলা বানসালীর সিনেমা মানেই বিশাল নজরকাড়া সেট, সুমধুর গান, ঝমকালো পোষাক, সুনিপুণ নির্দেশনায় যেকোন সিনেমা অসাধারন মাস্টারপিস হিসেবে গণ্য করা হয়। ‘দেবদাস’, ‘ব্ল্যাক’, ‘গালিয়ো কি রাম-লীলা’, ‘বাজিরাও মাস্তানি’, ‘পস্মাবত’-এর মতো ক্ল্যাসিক সিনেমা উপহার দিয়ে বনশালী নিজেকে নিয়ে গেছেন এক অন্য উচ্চতায়।

তাই তার নির্দেশনায় বলিউডের নতুন জুটি হিসেবে মেগাস্টার সালমান এবং এই সময়ের অন্যতম সেরা জনপ্রিয় দক্ষ অভিনেত্রী আলিয়া যে দর্শক, সমালোচক এবং বক্স অফিসে যে ঝড় তুলতে যাচ্ছেন তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। আর নির্মাতা বনসালী ছবিটিকে তাঁর ক্যারিয়ারের নতুন একটা অধ্যায় হিসেবে দেখছেন।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘এই ছবিটা আমি অনেকদিন হল বানাতে চাইছি। জীবন কেবলই অন্ধকার রাতের গল্প নয়, এখনে সুন্দর, সোনালী সকালও আছে। তেমনই একটা ছবি হবে এটা। আমি মনে করি এটা আমার ক্যারিয়ারের নতুন একটা অধ্যায় হতে যাচ্ছে।’

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।