সিনেমা রিমেক করা যায়, অনুভূতি না!

কিছু কিছু জিনিসের সাথে আপনার অ্যাটাচমেন্ট এমনভাবে তৈরি হয়ে যায়, যে আপনি সেটার সাথে বেঁচে থাকেন, হিন্দিতে বললে ‘জি রাহা হো’। শুধু বেঁচে থাকাটাই না, সেসব জিনিসের প্রতি বা সাথে আপনার এক ধরনের অনুভূতি সৃষ্টি হয়ে যায়। আপনি সেই অনুভূতি সারাজীবন রিভাইন্ড করতে থাকেন আপনার জীবদ্দশায় এবং প্রতিবার অনুভব করার সময়, আপনি ফিরে যান সেই সময়ে।

আপনার সেই অনুভব করা সময়, যদি এখন রিমেক করা হয় তাহলে কেমন লাগবে? ভালো লাগবে নাকি কনফ্লিক্টেড ক্ল্যাশ তৈরি হবে?

এখনকার সময়ে এসে আমি যদি, রিমেকের বিপক্ষে কথা বলি সেটা অবশ্যই মানানসই না। কিন্তু, সবকিছু রিমেক করাও কি ঠিক?

ফরেস্ট গাম্প সিনেমা রিমেক করছেন আমির খান। আমির খান কে নিয়ে কোন ধরনের সন্দেহর অবকাশ নেই, সে তার সেরাটাই দিবে। এমনকি অনেকের কাছে মনে হবে কিছু কিছু জায়গায় সে টম হ্যাংকস কেও ছাড়িয়ে যাবে। বলিউডে এটা যদি কেউ রিমেক করতে পারে তবে সেটা আমিরই। তবে ফরেস্ট গাম্প কি আদৌ রিমেকের দরকার ছিলো? ফরেস্ট গাম্প তো নিজেই নিজের জায়গায় স্বমহিমায় উজ্জ্বল হয়ে সবার উপড়ে অবস্থান করছে। সোজা কথায়, ফরেস্ট গাম্পের কোন রিমেক এর প্রয়োজন ছিলো না। সেটা আমির কিংবা অন্য যেকেউ করুক না কেন। কোন দরকার ছিলো না।

এদিকে টিসিরিজ, বৌ এর অনুরোধে ঢেঁকি না শুধু আরো কত কি গিলে খেয়ে আমার কিশোর বয়সের সুন্দর স্মৃতি, দুঃস্বপ্নে পরিণত করে দিচ্ছে। ওয়াল-ই, ফাল্গুনী পাঠক কে কেনো খেয়ে দিতে হবে রিমেকের নাম করে? ভূষণ কুমার কে বলতে ইচ্ছে করে, আপনার বৌ সুন্দর আছে তাতে সন্দেহ নাই। তাই বলে বৌ এর যে ট্যালেন্ট নাই সেটা দেখতে কি আতশ কাঁচ লাগবে? আপনার বৌ চাইছে ওকে, যা খুশি দেন। শুধু আমার শৈশব কিংবা কিশোর বয়সের মধুর স্মৃতিগুলোকে দুঃস্বপ্নে পরিণত করবেন না।

সিনেমাপ্রেমী হিসেবে অনেকেই হয়তো সাউথের ‘৯৬’ সিনেমা দেখেছেন। সেটাই তেলেগুতে রিমেক হচ্ছে। তৃষার জায়গায় সামান্থা আর সেথুপাথির জায়গায় স্বওরানন্দ! সিরিয়াসলি, আই মিন সিরিয়াসলি!

মাইরি বলছি, এটা দেখার পর আমি আর নিতে পারছি না। কেউ দড়ি দাও কিংবা মাটি ফাঁক হয়ে যাও, আমি ঢুকে যাবো।

সিনেমা রিমেকের নামে একটা সিনেমার আবহটাকে নষ্ট কেন করতে হবে? দুনিয়াতে কি ভালো গল্পের অভাব পড়েছে? নাকি সোনার ডিম পারা হাঁস যেহেতু সোনা দেয় তাহলে সেই হাঁসই আবার তৈরি করি! কিছু কিছু সিনেমা থাকে যা শুধুমাত্র সিনেমায় থাকে না একেকটা অনুভূতি হয়ে যায়। সিনেমা রিমেক করা যায়, অনুভূতি না!

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।