টাইগার শ্রফ: নতুন দিনের অ্যাকশন হিরো

স্টার কিড হওয়ার পরও টাইগার শ্রফের অভিষেকটা ছিল চমকপ্রদ। কারণ এমন মারমার কাটকাট অ্যাকশনের প্রত্যাশাটা তাঁর কাছ থেকে ছিল না বলিউডের। ২০১৪ সালে’র ‘হিরোপান্তি’-তে সেটাই করেছেন তিনি।

গেল চার-পাঁচ বছরে টাইগারের যে পারফরম্যান্স তাতে, একটা ব্যাপার কোনো সন্দেহ ছাড়াই বলে দেওয়া যায় যে এই অ্যাকশন জনরা বা ‘মাচোইজম’ই হল তাঁর সেলিং পয়েন্ট।

টাইগারের দ্বিতীয় ছবি বাঘি। আবারো সেই অ্যাকশন, আবারো বাজিমাৎ। এই সিনেমাটি মুক্তির পর নিজেকে অ্যাকশন হিরো হিসেবে মোটামুটি স্থায়ীই করে ফেলেছেন টাইগার।

বক্স অফিসে এর পরের সময় অবশ্য একটু মন্দাই ছিল টাইগারের। কারণ, তাঁর ‘ফ্লাইং জ্যাট’ ও ‘মুন্না মাইকেল’ বক্স অফিসে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। যদিও, ফ্লাইং জ্যাটের বক্স অফিসে সূচনাটা ছিল দারুণ। তবে, লম্বা সময়ের জন্য সেটা দর্শকদের ধরে রাখতে পারেনি। অন্যদিকে মুন্না মাইকেল অ্যাকশনের চেয়েও অনেক বেশি ড্যান্স ফিল্ম।

এই সময়ে জ্যাকি শ্রফের ছেলের জন্য ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকার জন্য বড় কোনো ধামাকার কোনো বিকল্প ছিল না। সেটাই তিনি করেছেন ‘বাঘি ২’ দিয়ে। সাম্প্রতিক সময়ে এটা অবশ্যই বলিউডের সেরা অ্যাকশন সিনেমাগুলোর একটি।

নন-হলিডে রিলিজ হিসেবে এটা মুক্তির দিন বলিউড বক্স অফিসে সবচেয়ে বেশি আয় করা সিনেমা। স্বনামধন্য প্রযোজক সাজিদ নাদিয়াদওয়ালার ক্যারিয়ারেরই এটা অন্যতম সেরা একটা সিনেমা। শেষ অবধি বাঘি ২’র দৌড় বক্স অফিসে ১৬৫ কোটিতে গিয়ে থেমেছে।

এই সময়ের তরুণ প্রজন্মের কাছ থেকে বাজিরাও মাস্তানি, সাঞ্জু, পদ্মাবত, জুড়ুয়া ২’র মত সিনেমা আসছিল, তখন একজন অ্যাকশন হিরোর জায়গাটা খালিই ছিল। বেশ কৃতিত্বের সাথেই সেই জায়গাটা নিতে পেরেছেন টাইগার। আর সেখানে পূর্ণতা আসলো ‘ওয়ার’ ছবিটি দিয়ে। অ্যাকশন আর অভিনয় – দু’টিতেই কৃতীত্ব দেখিয়েছেন টাইগার।

পাঁচ বছরে ছোট্ট ক্যারিয়ারে ওয়ারের আগে যে ছয়টি সিনেমা করেছেন তাঁর মধ্যে ওয়ারের চারটিই ব্যবসাসফল। একটি পৌঁছে গেছে শতকোটির ক্লাবে। দু’টি ফ্লপ হলেও সব মিলিয়ে বক্স অফিসে তাঁর মোট আয় ৪৩২ কোটি ভারতীয় রুপি। ওয়ারের আগে নিজের ঘরানাকে ভেঙে ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার ২’ দিয়ে খুব একটা আলোচিত হননি তিনি। যদিও, ছবিটি শেষ অবধি অ্যাভারেজ তকমা নিয়ে বের হয়েছে বক্স অফিস থেকে।

সামনের দিনগুলোতেও টাইগারের বড় কিছু সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় আছে। ‘র‌্যাম্বো রিমেক’ ও ‘বাঘি ৩’ নিশ্চয়ই তাঁর স্টারডমকে আরো ওপরের দিকে নিয়ে যাবে।

টাইগারের ছয়: ওয়ারের আগ পর্যন্ত

  • স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার ২: ৬৫ কোটি রুপি
  • বাঘি ২: ১৬৫ কোটি রুপি
  • মুন্না মাইকেল: ৩৩.১২ কোটি রুপি
  • আ ফ্লাইং জ্যাট: ৩৮.৬১ কোটি রুপি
  • বাঘি: ৭৬ কোটি রুপি
  • হিরোপান্তি: ৫৫ কোটি রুপি

– কইমই ও বক্স অফিস ইন্ডিয়া অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।