নার্কোস ঢাকা: ড্রাগ, অপরাধ জগৎ ও ঢাকা

বিনোদনের জগতে এখন ওয়েব প্ল্যাটফরম বেশ জনপ্রিয়। বাংলাদেশেও যুগের এই হাওয়ার সাথে তাল মেলাচ্ছে। বাংলাদেশেও এখন বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে ওয়েব প্ল্যাটফরম বেশ জনপ্রিয়। আইফ্লিক্স বা বায়োস্কোপ অরিজিনাল এখন দর্শকদের কাছে খুব পরিচিত নাম।

টেলিভিশন নাটক এবং সিনেমার পাশাপাশি ওয়েব সিরিজ জনপ্রিয় একটি মাধ্যম হিসেবে উঠে আসছে। এখানে কাজ করছেন দেশ সেরা প্রযোজক, পরিচালক এবং অভিনয়শিল্পীরা। এবার জনপ্রিয় এবং দক্ষ নির্মাতা খিজির হায়াত খান আসছেন তার প্রথম ওয়েব সিরিজ ‘নার্কোস ঢাকা’ নিয়ে। ঢাকা শহরের ভয়াবহ ড্রাগ সিন্ডিকেট নিয়ে তৈরী হতে যাচ্ছে এই ওয়েব সিরিজটি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফার্স্ট লুক পোস্টার প্রকাশ করে নির্মাতা খিজির হায়াত খান নিজেই ‘নার্কোস ঢাকা’র ঘোষণা দিলেন।

আমাদের দেশে সাধারনত সমসাময়িক বিষয় নিয়ে তেমন ভাবে কোন কাজ করা হয়না। কিন্তু খিজির হায়াত খান এর আগে জঙ্গী ইস্যু নিয়ে ‘মিস্টার বাংলাদে নামে সিনেমা বানিয়েছেন। যেখানে ধর্মের দোহাই দিয়ে তরুণ সমাজকে বিপথে নিয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে সন্ত্রাসী হামলা সহ আরো অনেক বিষয় তুলে ধরেছেন তিনি। এবার আমাদের দেশে  ড্রাগ নামক মরণ বিষ এবং এর ভয়াবহতা নিয়ে দর্শকদের সামনে আসছেন তিনি।

খিজির হায়াত খান

নির্মাতা হিসেবে খিজির হায়াত খান মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ‘অস্তিত্বে আমার দেশ’ সিনেমাটি পরিচালনার মধ্য দিয়ে আলোচনায় আসেন। এটি তাঁর পরিচালিত প্রথম সিনেমা। এরপর নির্মাণ করেন খেলাধুলা ভিত্তিক সিনেমা ‘জাগো’। যেটি দর্শকদের কাছে প্রশংসা এবং জনপ্রিয়তা পায়। এরপর প্রযোজক এবং অভিনেতা হিসেবে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ নির্মাণ করেন। এবার ‘কারার ওই লৌহ কপাট’ নামের একটি সিনেমা নিয়ে হাজির হতে যাচ্ছেন এই গুণী নির্মাতা। এটি হতে যাচ্ছে তার পরিচালিত তৃতীয় সিনেমা।

কিছুদিন আগে নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ছবি আপলোডের মধ্য দিয়েই তার নতুন সিনেমার সম্পর্কে সবাইকে জানানোর একটি প্রয়াস নেন তিনি। খিজির হায়াত খান বলেন, ‘কারার ওই লৌহ কপাট ছবিটির চিত্রনাট্য তৈরি করা হচ্ছে। আশা করছি ফেব্রুয়ারি বা মার্চ মাসে দৃশ্যধারণ শুরু করতে পারবো। ২০১৯ সালের শেষ দিকে ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে নিয়ে যাওয়ার ইচ্ছে আছে। আপাতত চিত্রনাট্য লেখার কাজ চলছে।’

সিনেমার টাইটেল গান লেখার কথাও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যক্ত করেছেন এই গুণী পরিচালক। সিনেমার চিত্রনাট্য লেখা শেষ করার পর শিল্পী তালিকা জানানো হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। এরই মধ্যে হঠাৎ করে ওয়েব সিরিজ নিয়ে কাজ করা বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অনেকদিন ধরে ভাবছি একটা ওয়েব সিরিজ বানাবো। এক্সাইটিং কিছু পাচ্ছিলাম না। অবশেষে আমার অপেক্ষার পালা শেষ হয়েছে। আমাদের প্রাণের শহর ঢাকার ভয়াবহ করতে যাচ্ছি নার্কোস ঢাকা।’

এর গল্প লিখেছেন শাকিব রায়হান।  এই ওয়েব সিরিজের একটা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে খিজির হায়াত খান নিজেও অভিনয় করবেন বলে জানিয়েছেন। খুব শ্রীঘই শ্যুটিং শুরু হতে যাচ্ছে এই ওয়েব সিরিজটির। যদিও শিল্পী তালিকা নিয়ে এখনো খোলসা করেননি এই গুনী পরিচালক। তবে গল্প এবং চরিত্রের সাথে খাপ খায় এমন অভিনেতা-অভিনেত্রীদের দেখা যাবে ‘নার্কোস ঢাকা’ তে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

ড্রাগের মতো একটি সেন্সিটিভ ইস্যু নিয়ে ওয়েব সিরিজ নির্মান করার যে পদক্ষেপ খিজির হায়াত খান নিয়েছেন তার জন্য প্রশংসা পাবার যোগ্য তিনি। আশাকরি ‘নার্কোস ঢাকা’ যুগের সাথে মানানসই এবং মানসম্মত একটি ওয়েব সিরিজ হিসেবে জনপ্রিয়তা এবং প্রশংসা লাভ করবে।

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।