কিয়ারা আদভানি: বলিউড আকাশের নতুন চাঁদ

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি হল একটা সাগরের মত। সাগরে যেমন অনেক মাছ, এখানে তেমন অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী। এখানে অভিনয় শিল্পীরা আসেন, আবার চলেও যান। যারা কেবল অসামান্য প্রতিভাবান আর কঠোর পরিশ্রমীরাই দিন শেষে টিকে থাকেন।

চলতি সময়ে কিয়ারা আদভানি হচ্ছেন তেমন একজন অভিনেত্রী যিনি লম্বা সময় টিকে থাকার একটা সম্ভাবনা সৃষ্টি করেছেন। অল্প সময়ের মধ্যেই বলিউডে তিনি নিজের প্রতি দর্শক ও সমালোচকদের একটা ইতিবাচক মানসিকতার সৃষ্টি করেছেন, যা আজকের দিনে বিরল।

কিয়ারার সাম্প্রতিক সময়ের কাজ হল ‘কবির সিং’। তাঁর বিপরীতে ছিলেন অভিজ্ঞ অভিনেতা শহীদ কাপুর। ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই প্রশংসার বন্যায় ভাসছেন কিয়ারা। দর্শকরা যেমন হাত ভরে দিচ্ছেন, সমালোচকরাও কমতি করছেন না। বছরের অন্যতম ব্যবসায়িক সফল এই ছবিটি ২০০ কোটির ক্লাবেও পৌঁছৈ গেছে অনায়াসে।

আর এই সাফল্যের পর থেকেই বলিউডের অন্দরমহলে প্রশ্নের উদয় হচ্ছে – ‘কিয়ারা আদভানিই কি এই সময়ে ইন্ডিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সবচেয়ে সম্ভাবনাময় তারকা?’

দারুণ সুন্দর একটা চেহারা, মোহনীয় একটা হাসি, আর খুবই সরল আর নিষ্পাপ ব্যক্তিত্ব যেন কিয়ারার অভিনয় দক্ষতার অলঙ্কার হিসেবে কাজ করে। কিয়ারার সব কিছুই তার পক্ষে। এখন কেবল ভাগ্য সহায় হলেই বলিউডে তাঁর ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল। তিনি হারিয়ে যেতে আসেননি।

খুব বেশিদিন হয়নি বলিউডে অভিষেক হয়েছে তার। সময়টা ২০১৪ সাল থেকে ‍শুরু করে এখন অবধি তিনি ভিন্নধর্মী সব চরিত্র করার মধ্য দিয়ে নিজের সম্ভাবনার কথা জানান দিয়েছেন। মূল ধারার বানিজ্যিক ছবি, ওয়েব প্লাটফরম কিংবা বিকল্প ধারা – সব খানেই দেখা যাচ্ছে তাঁর দাপুটে উপস্থিতি।

কিয়ারার জন্ম ১৯৯২। খুব কম লোকই জানেন যে, এই নায়িকার আসল নাম হল আলিয়া আদভানি। প্রথম সিনেমার আগেই নাম পাল্টে কিয়ারা রাখা হয়। কিয়ারা সেই অর্থে স্টার কিড নন।

তবে, তার পরিবারের সাথে সিনেমার বেশ ভাল যোগাযোগ আগের থেকেই ছিল। অভিনেতা অশোক কুমার, সাইদ জাফরি বা জুহি চাওলার সাথে কিয়ারার আত্মীয়তার সম্পর্ক আছে।

‘ফাগলি’ দিয়ে শুরু। এরপর ২০১৬ সালে আসে ‘এম এস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’। কিয়ারা খুব চতুরতার সাথে নিজের চরিত্রগুলো বাছাই করেছেন। প্রতিবারই নিজের চরিত্র ইন্টারেস্টিং ও বৈচিত্রময় কিছু যোগ করার চেষ্টা করেছেন।

মাঝে তেলেগু ছবিতেও নাম লিখিয়েছেন। সেখানে কাজ করেছেন দুই সুপার স্টার মহেশ বাবু ও রামচরণের সাথে। নেটফ্লিক্সের ছবি ‘লাস্ট স্টোরিজ’-এ সাহসী চরিত্র করে ভেঙেছেন সংস্কার।

আর যদি, আলোচনা হয় কেবল হিট ছবি নিয়ে তাহলে কিয়ারা তো সেই পথে ‘কবির সিং’ দিয়ে চলেই এসেছেন। এবার ‍শুধু সাফল্য ধরে রাখার পালা। তো, কিয়ারা এই যাত্রায় সামনে নতুন কোন চমক নিয়ে আসতে যাচ্ছেন?

– আইডব্লিউএমবাজ.কম অবলম্বনে

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।