ভিকি কৌশল বনাম কার্তিক আরিয়ান: লড়াইটা জিতবেন কে!

দু’জনের মধ্যে মিল যেমন অনেক, অমিলও অনেক।

সবচেয়ে বড় মিল হল, কার্তিক আরিয়ান আর ভিকি কৌশল হলেন বলিউডের নতুন প্রজন্মের তারকা। দু’জনের দারুণ অভিনয় দক্ষতা সর্বজনবিদিত। তরুণ প্রজন্মের কাছে এই দু’জনের গ্রহণযোগ্যতা ও চাহিদাও বিস্তর। আর সবচেয়ে বড় ব্যাপার হল, হাসি দিয়েই একালের দর্শকদের সম্মহিত করতে পারেন দু’জনই।

আর অমিল হল, দু’জন ভিন্ন দু’টি ঘরানায় কাজ করে প্রশংসিত হচ্ছেন। একদিকে ভিকি ‘উরি: দ্য সার্জিকাল স্ট্রাইক’-এর মত সিরিয়াস ছবির সিরিয়াস চরিত্র করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এর আগে করেছেন ‘মাসা’, ‘রাজি’ ও ‘সাঞ্জু’। অন্যদিকে কার্তিকের সাফল্য এসেছে রোম্যান্টিক-কমেডি ঘরানার ‘প্যায়ার কি পাঞ্চনামা’, ‘সনু কে টিটু কি সুইটি’ বা ‘লুকাছুপ্পি’র মত সিনেমা করে।

বলা হচ্ছে, সময়ে দু’জনই সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় ও সমাদৃত নায়ক। দু’জনের লড়াইটা এখন একে অপরকে ছাড়িয়ে যাওয়ার। এই লড়াইয়ে জিতবেন কে?

দু’জনের প্রতিভা ও ভবিষ্যৎ সম্ভাবনা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। তবে, বলিউডের লড়াই জিততে তো এর চেয়েও বেশি কিছু দরকার। সেই এক্স ফ্যাক্টরটা কতটুকু আছে এই দু’জনের মধ্যে?

কার্তিক এক গাদা বানিজ্যিক ছবির নানা ধরণের ছবি করেছেন। তাঁর অভিনয়ের বিষয়টা পুরোপুরিই কমিক সেন্সের ওপর নির্ভরশীল। অন্যদিকে ভিকি একটু ব্যতিক্রম। তিনি গুজরাটি ‘কামলি’র চরিত্রে যেমন ফিট হয়েছেন, তেমনি ‘রাজি’-তে পাকিস্তানি সেনা কর্মকর্তার চরিত্র করেছেন। আর ‘উরি’-তে ছাড়িয়ে গেছেন অভিনয়ের সকল মাপকাঠিকেই।

অভিনয়, পরিশ্রম, সিনেমার স্ক্রিপ্ট ও চরিত্রের ব্যাপারে বোঝাপড়া – এসকে মানদণ্ড ধরলে তাই এখন অবধি লড়াইয়ে এগিয়ে আছেন ভিকিই। তবে, কার্তিক আরিয়ান বানিজ্যিক মসলাদার কিংবা এন্টারটেইনমেন্টের প্যাকেজ নির্ভর ছবিতে নিজেকে এমন একটা অবস্থানে নিয়ে যাচ্ছেন যে, তাঁর একাধিপত্ত যে কারো জন্যই ভাঙাটা মুশকিল হবে।

সব মিলিয়ে লড়াইটা ভিন্ন দু’টি ঘরানার। বলা উচিৎ বলিউডের সবচেয়ে পুরনো আর বিতর্কিত একটি যুদ্ধের নতুন দুই কুশীলবের আবির্ভাব ঘটেছে। এককালে যে লড়াই দেখা গেছে তিন খানের মধ্যে, এখন সেটাই যেন নতুন করে মঞ্চস্থ হচ্ছে।

খানদের মধ্যে কে সেরা? – এই প্রশ্নের জবাবে সেই নব্বই দশক থেকে শুরু করে আজ অবধি কোনো মোক্ষম উত্তর পাওয়া যায়নি। সেটা ইন্ডাস্ট্রির প্রেক্ষাপটে ভাল একটা ব্যাপার। ভিকি কৌশল আর কার্তিক আরিয়ানরা যেভাবে এগোচ্ছেন, তাতে তাঁদের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য হয়ে গেলে ব্যাপারটায় অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না!

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।