‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’-এর সেই ক্ষুদে মেয়েটি এখন কোথায়!

নির্মাতা কবির খানের সেরা কাজগুলোর একটি ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’। ২০১৫ সালের ঈদে মুক্তি পাওয়া ছবিটি বক্স অফিসে ঝড় তুলেছিল তো বটেই, সাথে জয় করে নিয়েছিল সমালোচকদের মনও।

স্বয়ং সালমান খানের ক্যারিয়ারেরও অন্যতম দর্শকনন্দিত কাজ হল এই ছবি। যেন নিজের ও দর্শকদের প্রত্যাশাকেও ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন ভাইজান। ছবিটাতে সালমান খান যতটা না আলো ছড়িয়েছেন, তার চেয়েও বেশি যেন প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন সাত বছর বয়সী হার্ষালি মালহোত্রা।

মাত্র সাত বছর বয়সী এই শিশু তারকা ছবিতে মাত্র একটাই সংলাপ বলেছিলেন, ছবির একদম অন্তিম দৃশ্য। আর সেটা দেখে চোখের পানি ফেলেছেন লাখো দর্শক। কথা না বলতে পারা পাকিস্তানি এক শিশুর চরিত্র করা হার্ষালি মালহোত্রার জন্য ‘বাজরাঙ্গি ভাইজান তাই একটা রূপকথার নাম।

এলেন, দেখলেন, জয় করলেন – ঠিক এমনই ছিল তার যাত্রা। শুধু প্রশংসা কুড়ানোই নয়, ছবিটির জন্য স্টারডাস্ট ও জি সিনে-সহ মোট পাঁচটা পুরস্কার তিনি জিতেছেন নবাগত হিসেবে। ফিল্মফেয়ারেও সেরা নবাগত অভিনেত্রীর পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছিলেন।

বাজরাঙ্গি ভাইজান এখন ভারতের ইতিহাসের তৃতীয় সেরা ব্যবসাসফল ছবি। আর বলিউডের বিবেচনায় এটা দ্বিতীয় সেরা। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও জুটে যায় ছবিটির।

ছবিতে হার্শালির চরিত্রের নাম ছিল ‘শাহিদা’। সেই মেয়েটির বয়স এখন ১২। এরপর আর খুব কমই এসেছেন পর্দায়।অল্প সময়েই বেশ বড় হয়ে গেছেন।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।