কি ভেবে এই ছবিগুলো ছেড়েছিলেন ক্যাটরিনা?

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে সব থেকে জরুরী ব্যাপার হল সিদ্ধান্ত নিতে পারা। বেছে বেছে চরিত্র করার মত জটিল ও শক্ত কাজ এখানে আর নেই বললেই চলে। শীর্ষে থাকা তারকারা এখানেই রোজই অনেক ছবি করার প্রস্তাব পান, এর অধিকাংশই ছেড়ে দেন। এটা করতে গিয়ে অনেক সম্ভাব্য হিট ছবিও হাতছাড়া হয়ে যায়।

এমনটা ক্যাটরিনা কাইফের ক্ষেত্রেও সত্য। তিনি যেসব ছবির প্রস্তাব পেয়ে ছেড়ে দিয়েছিলেন, সেগুলোর নাম শুনলে যে কেউই আকাশ থেকে পড়তে বাধ্য।

  • চেন্নাই এক্সপ্রেস (২০১৩)

রোহিত শেঠির ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’-এ শাহরুখ খানের বিপরীতে জুটি বাঁধার কথা ছিল ক্যাটরিনার। তবে, পরে সিনেমাটি করেন দিপীকা পাড়ুকোন। আর যথারীতি তিনি বাজিমাৎ করেন।

  • ইয়েহ জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি (২০১৩)

আবারো ক্যাটরিনার চরিত্র চলে যায় দিপীকার কাছে। কেউ কেউ বলেন, এই স্ক্রিপ্টটা নাকি না পড়েই ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ক্যাটরিনা কাইফ।

  • সিঙঘাম (২০১১)

আবারো রোহিত শেঠির ছবি। আবারো ক্যাটরিনার না। চরিত্রটি এবার চলে যায় দক্ষিণী নায়িকা কাজল আগরওয়ালের হাতে। সিনেমাটি বক্স অফিসে কল্পনাতীত সাফল্য পায়।

  • বারফি! (২০১২)

রণবীর কাপুরের বিপরীতে এই ছবির দ্বিতীয় নারী চরিত্রের জন্য প্রথমে বিবেচনা করা হয়েছিল ক্যাটরিনা কাইফকে। তবে তিনি প্রস্তাব নাকোচ করে দিলে বলিউডে অভিষেক হয়ে যায় ইলিয়েনা ডি’ক্রজের। আসলে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার চেয়ে কম গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র করতে রাজি ছিলেন না ক্যাটরিনা।

  • বাজিরাও মাস্তানি (২০১৫)

২০১৫ সালের সেরা ছবিগুলোর একটি ছিল বাজিরাও মাস্তানি। অথচ, সিনেমাটিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রটি হাতছাড়া করেন ক্যাটরিনা কাইফ। এবারো সিনেমাটি চলে যায় দিপীকার হাতে। সঞ্জয় লীলা বনসালীর নির্মানে দিপীকা তাঁর ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা অভিনয় করেন এই ছবিতে।

  • হাফ গার্লফ্রেন্ড (২০১৭)

শ্রদ্ধা কাপুর নয়, ‘হাফ গার্লফ্রেন্ড’ সিনেমার জন্য অর্জুন কাপুরের বিপরীতে প্রথম প্রস্তাব করা হয় ক্যারিনা কাইফকে। যদিও, ক্যাটরিনা সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। কারণ, তাঁর বিশ্বাস ছিল যে অর্জুন কাপুরকে তাঁর পাশে অল্পবয়সী মনে হবে। যদিও, পর্দায় বাইরে অর্জুনের সাথে ক্যাটের দারুণ বোঝাপড়া।

এখানেই শেষ নয় ক্যাটরিনা, তাঁর ক্যারিয়ারে এমন ‘ব্লান্ডার’ আরো করেছেন। শোনা যায় ‘চক্রযুদ্ধ’ ও ‘গুন্ডে’ ছবির জন্যও ক্যাটরিনার কাছে প্রস্তাব এসেছিল। দু’টোর কোনোটাই শেষ অবধি সাইন করেননি ক্যাটরিনা। কেন? – এই প্রশ্নের উত্তর অবশ্য অজানা।

দেশিমার্টিনি অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।