কান্নার নোনা জলে ভবিষ্যতের স্বপ্নসৌধ

আপনার কি মনে পড়ে ২০০৯ সালের শুরুর দিককার কথা? বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়েকে নিয়ে আয়োজিত ত্রিদেশীয় আসরের কথা? স্মৃতির পাতার ধুলো ঝেড়ে দেখে নিন। ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে বাগে পেয়েও ম্যাচ হেরেছিল বাংলাদেশ রুবেলের ওভারে মুত্তিয়া মুরালিধরনের ব্যাটসম্যান বনে যাওয়ায়। আজ এতগুলো বছর পর রুবেল আবার সে স্মৃতি মনে করিয়ে দিল।

এবার রুবেল ছিল পরিণত, আর ওপাশে ছিল আইপিএলে টানা পারফরম করে টি-টোয়েন্টিতে পেকে যাওয়া দিনেশ কার্তিক। প্রায় হাতের মুঠো থেকে বেরিয়ে যাওয়া ম্যাচ পেয়ে বসেছিল দ্য ফিজের এক ওভারেই। ম্যাচের ক্রুশাল মুহূর্ত ছিল ১৯ তম ওভার। দুই ওভারে ৩৪ রান প্রয়োজন, এমন সময়ে সবচেয়ে সিনিয়র বোলার রুবেলকে ছাড়া কাকে ভাবতো সাকিব ? নিজের অভিজ্ঞতার ঝুলি খুলে বসবে দিনেশ কার্তিক তাই বা কে ভেবেছিল ?

আপনি বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবেন এই আসরে বাংলাদেশ ফাইনাল খেলবে এ স্বপ্ন আপনি দেখেছিলেন ? আমরা কোন স্বপ্ন দেখিনি, ওরা দেখেছে, মাঠে যাবার আগে চোয়াল শক্ত করে বলেছে আমরা ফাইনাল খেলতে চাই। সাকিবের রাজ্যের হাল ধরা রাজা মাহমুদুল্লাহর কথাগুলো হাস্যকর শোনালেও আসর শেষে তাই আজ ধ্রুব সত্য। ওরা ফাইনাল খেলেছে এবং শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করেছে।

আমাদের শুরু করা ট্রেন্ড নাগিন নৃত্য গত ম্যাচে শ্রীলঙ্কান দর্শকেরা নেচেছিল, আজ ভারতের দর্শকরা নাচলো, এটাও কি আমাদের জয় নয় ? ভারত – শ্রীলঙ্কা ফাইনাল ধরে নেয়া সকল দর্শককে বোকা বানিয়ে টুর্নামেন্টের শেষ বল পর্যন্ত লড়াইয়ে থাকাও কি আমাদের জয় নয়? শেষ কয়েক ওভারে ভারতের ড্রেসিংরুমে বসে থাকা আমাদের ‘সমালোচক’-দের স্নায়ুচাপে ফেলে দেয়াও কি আমাদের বিজয় নয়? দিনেশ যখন শেষ বলে ছয় মারলো তখন ওদের উল্লাসের আড়ালে বাংলাদেশে বিজয়ের ছাপ পাওয়া যায়, যেন ওরা বড় কোন দলকে হারিয়ে শিরোপা জিতল।

সাকিব আল হাসানের মাটিতে হাঁটু গেঁড়ে কান্না, সৌম্যের কান্না, তাসকিনের কান্না কিংবা ১৮তম ওভারের শেষে সাকিবের রুমাল দাঁত দিয়ে কামড়ানো কি মনে করিয়ে দেয়না ওরা কতটা আবেগ নিয়ে খেলছে? বাংলাদেশের ভাগ্যের আকাশে ফাইনাল এলে যেন দুর্যোগের ঘনঘটা পাওয়া যায়, আজও তাই হলো। এমন কান্না, এমন পরাজয় যেন নতুন কিছু পাওয়ার দ্বার খুলে দিল।

আমরা আজ হেরেছি, অতীতেও হেরেছি, হয়তো ভবিষ্যতেও হারবো। তবে একদিন জিতবো, সেদিন হয়তো সাকিব বা তামিম দলে থাকবে না; তাদের আজকের না পাওয়ার বেদনায় চোয়াল শক্ত করে ভবিষ্যতের তামিম সাকিব বাংলাদেশকে শিরোপা এনে দেবে; এ স্বপ্নটি বুকে ধারন করতেই পারি আমরা সকলে।

আমরা যতোটা না পেশাদার তারচেয়ে বেশি আবেগী; সবাই ক্রিকেট খেলে ‘চাকরি’ হিসেবে, আর আমরা ? আমাদের দেশপ্রেম, আমাদের ভালোবাসা, আমাদের হাসি, আমাদের কান্না সবকিছু মিশে থাকে ফিজের একেকটি ডট বলে, সাব্বিরের একেকটি ছয়ে। তাই তো আমরা আমাদের কান্নার নোনা জলে আঁকতে চাই বিজয়ের স্বপ্নসৌধ।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।