দুরারোগ্য ব্যাধিও তাঁদের জীবনে বাঁধা হতে পারেনি

ব্রেন ক্যান্সার না হলেও, এটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই যে ইরফান খান বিরল এক রোগে আক্রান্ত। তাঁর সাম্প্রতিক সময়ের টুইট সেই কথাই বলছে। তবে, একই সাথে এটাও সত্যি যে, বলিউড তারকাদের এমন নানারকম শক্ত রোগে আক্রান্ত হওয়ার এটাই প্রথম নজীর নয়। বিখ্যাত সব তারকারা নানারকম রোগের সাথে লড়াই করেছেন, আবার প্রতাপ নিয়ে ফিরেও এসেছেন পর্দায়। ইরফান চাইলে সেসব থেকে অনুপ্রাণিত হতে পারেন।

  • মনিষা কৈরালা

এখানে সবার আগেই আসবে মনিষা কৈরালার নাম। ওভারিয়ান ক্যানসার ধরা পড়ার পর ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে দিয়ে চিকিৎসা শুরু করান। ২০১২ সালের ডিসেম্বরে অস্ত্রোপচার হয় তাঁর। কেমোথেরাপিও করান অভিনেত্রী। প্রায় পাঁচ বছর হয়ে গিয়েছে মনীষা সম্পূর্ণ ক্যানসার মুক্ত।

  • অমিতাভ বচ্চন

বিগ ‘বি’র এক সময় নিউরোমাসকুলার নামের রোগ ছিল, যাকে ডাক্তারি পরিভাষায় ‘মেসথেনিয়া গ্রাভিস’ বলা হয়। এই রোগে সাধারণত চোখ ও মুখের মাসলগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। শরীর এতটাই দুর্বল হয়ে পড়ে যে কথা বলারও শক্তি থাকে না। যদিও, এখন অমিতাভ এখন পুরোপুরি সুস্থ। ১৯৮৪ সালে ‘কুলি’ ছবির সেটে দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিলেন অভিনেতা। সেই সময় তিনি ফিরেছিলেন মৃত্যুর দুয়ার থেকে।

  • অনুরাগ বসু

পরিচালক অনুরাগ বসু ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন। ‘গ্যাংস্টার’ ও ‘লাইফ ইন আ মেট্রো’র সময় ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়ে অনুরাগের। তবে, চিকিৎসার পর এখন পুরোপুরি সুস্থ বলিউডের এই বাঙালি পরিচালক।

  • শাহরুখ খান

শাহরুখ খানও রোগ-শোক থেকে দূরে নয়। আট বার কাঁধে অস্ত্রোপচার করিয়েছেন বলিউডের বাদশা। এ ছাড়া তিনি যে অবসাদে ভুগছিলেন, সে কথা নিজেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছিলেন শাহরুখ। যদিও সব বাধা পেরিয়ে এখন সুস্থ ভাবে কাজ করছেন।

  • সালমান খান

সাল্লু ভাই নার্ভের রোগে আক্রান্ত। ডাক্তারি পরিভাষায় এই রোগের নাম ‘ট্রাইজেমিনাল নিউরালজিয়া’। এই রোগীরা নাকি আত্মহত্যাপ্রবণ হয়ে পড়েন। ‘আপ কি আদালত’ নামের টেলিভিশন অনুষ্ঠানে গিয়ে নিজেই এ কথা জানিয়েছিলেন বলিউডের ভাইজান। এই রোগের সময় মুখের চোয়ালে অসম্ভব রকম ব্যাথা। এক্ষেত্রে সালমানকে অ্যাকশন দৃশ্যে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়।

  • হানি সিং

ভারতের পার্টি কিং, মানে হানি সিং জীবনের লম্বা সময় মানসিক অবসাদে ভুগেছেন। অবস্থা এতটাই খারাপ হয়েছিল যে গান বাজনা প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলেন তিনি। দীর্ঘ চিকিৎসার পর আবার তিনি ফিরেছেন ইন্ডাস্ট্রিতে।

  • লিসা রে

২০০৯ সালে ক্যানসারে আক্রান্ত হন বিখ্যাত এই মডেল ও বলিউড অভিনেত্রী। চিকিৎসাশাস্ত্রে তাঁর এই রোগের নাম ‘মাল্টিপল মিলোমা’। এই ধরনের ক্যানসারে বোনম্যারো (অস্থিমজ্জা) ক্ষতিগ্রস্ত হয়। লিসা রে চিকিৎসা নিয়ে এখন শরীরের ক্যান্সার দূর করেছেন। তবে, তিনি এখনো পুরোপুরি সুস্থ নন।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।