মুটিয়ে গেলেন তো ফুরিয়ে গেলেন

‘নায়ক’ – এই তকমাটা তাঁদের শরীর থেকে মুছে গেছে অনেকদিন হল। অধিকাংশই এখন লাইমলাইটের আড়ালে নিভৃতে জীবন কাটাচ্ছেন। আর এতটাই ওজন বাড়িয়ে ফেলেছেন যে প্রথম দেখলে চেনা মুশকিল।

  • ফারদিন খান

তিনি খোদ ফিরোজ খানের ছেলে, সঞ্জয় খান ও আকবর খান তাঁর চাচা। ১৯৯৮ সালে ‘প্রেম আগান’ করে ফিল্মফেয়ারের সেরা নবীন তারকার পুরস্কার জেতেন। এরপর ‘প্যায়ার তুনে ক্যায়া কিয়া’, ‘অল দ্য বেস্ট: ফান বিগিন্স’, ‘নো এন্ট্রি’, ‘হেয় বেবি’র মত সিনেমা করেন। ২০১০ সালে সর্বশেষ তাকে সুস্মিতা সেন, শাহরুখ খানের সাথে ‘দুলহা মিল গ্যায়া’ সিনেমায় দেখা যায়।

  • হিমাংশু মালিক

সর্বশেষ তাঁকে ‘ইয়ামলা পাগলা দিওয়ানা’ সিনেমায় দেখা গেছে। এর আগে তরুণ বয়সে করেছে ‘জাঙ্গাল’, ‘তুম বিন, ‘খওহিশ’ ও ‘রোগ’-এর মত সিনেমা। মল্লিকা শেরাওয়াতের সাথে তাঁর জুটি বেশ বিখ্যাত হয়েছিল। শোনা যাচ্ছে এবার তিনি পরিচালনায় আসছেন, আকবর অ্যারাবিয়ানের প্রযোজনায় পৌরানিক গল্প অবলম্বনে সিনেমাটির নাম ‘চিত্রকুট’।

  • চন্দ্রচুড় সিং

তাঁকে অভিনয়ে আনেন খোদ অমিতাভ বচ্চন ও জয়া বচ্চন। ‘তেরে মেরে সাপ্নে’ দিয়ে অভিষেক। ‘মাচিস’ সিনেমা দিয়ে তিনি বেশ জনপ্রিয় হয়েছিলেন। এর জন্য ফিল্ম ফেয়ারের বিবেচনায় সেরা নবাগতের পুরস্কার জিতেন। এরপর ‘জোশ’ সিনেমায় জুটি বাঁধেন ঐশ্বরিয়া রায়ের সাথে। এছাড়া ‘বেতাবি’, ‘দিল ক্যায়া কারে’, ‘দাগ: দ্য ফায়ার’, ‘ক্যায়া ক্যাহনা’ সিনেমা করেন, এরপর হারিয়ে যান। ক্যায়া ক্যাহনা’র জন্য তিনি ফিল্ম ফেয়ারে সেরা সহ-অভিনেতার পুরস্কার জিতেছিলেন।

  • হারমান বাওয়েজা

তিনি প্রযোজক হ্যারি বাওয়েজার ছেলে। ‘লাভ স্টোরি ২০৫০’ দিয়ে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বিপরীতে অভিষেক। ফিল্ম না চললেও হৃতিক রোশনের সাথে চেহারা ও নাচে মিল খুঁজে পান ভক্তরা। এরপর ‘হোয়াটস ইওর রাশি’, ‘ঢিশকিয়াও’, ‘ইটস মাই লাইফ’ সিনেমা করলেও একটাও বক্স অফিসে সুবিধা করতে পারেনি। শোনা যায়, প্রিয়াঙ্কার সাথে তাঁর সম্পর্কও ছিল।

  • হারিশ কুমার

তেলেগু সিনেমায় শিশু অভিনেতা হিসেবে অভিষেক। এরপর বলিউডে কুলি নাম্বার ওয়ান কিংবা হিরো নাম্বার ওয়ান, কিংবা গাদারের মত হিট সিনেমায় কাজ করেছেন। জুটি বাঁধেন কারিশমা কাপুরের মত শীর্ষ নায়িকার সাথেও। সামনে তাঁকে শাহরুখ খানের জিরো সিনেমায় দেখা যাবে। সর্বশেষ ‘চারদিন কি চান্দনি’ সিনেমায় দেখা যায় তাঁকে।

  • শাদাব খান

বিখ্যাত বলিউড ভিলেন, ‘গাব্বার’ খ্যাত আমজাদ খানের ছেলে। ‘রাজা কি আয়েগি বারাত’ সিনেমা দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয়ে শাদাবের। যদিও তিনি লম্বা যাত্রায় টিকতে পারেননি। সর্বশেষ ২০১৪ সালে ‘দাওয়াত ই ইশক’ সিনেমায় কাজ করেন তিনি।

– স্টোরিপিক ও ফিল্মিমামা অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।