জুভেন্টাসে কত বেতন পান রোনালদো?

চলতি মৌসুমের আগেই জুভেন্টাসে নাম লেখানো ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর বেতন কত? প্রশ্নের জবাব শুনলে রীতিমত আকাশ থেকে পড়বেন। সিরি ‘এ’-তে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেতন পাওয়া গঞ্জালো হিগুয়েনের চেয়ে রোনালদোর বেতন তিনগুন বেশি।

বলাই বাহুল্য, রোনালদো হলেন সিরি ‘এ’র সর্বোচ্চ বেতনধারী খেলোয়াড়। সম্প্রতি সিরি ‘এ’র খেলোয়াড়র পারিশ্রমিকের বিশাল এক তালিকা প্রকাশ করেছে খেলাধুলা বিষয়ক ইতালিয়ান পত্রিকা গ্যাজেট্টা ডেল্লো স্পোর্ট। সেখানেই উঠে এসেছে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য।

সদ্যই ১০০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে (৮৮ মিলিয়ন পাউন্ড/১১৭ মিলিয়ন ডলার) রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে পাড়ি জমান। জুভদের হয়ে এখনো গোলের খাতা খুলতে না পারার কারণে যথেষ্ট সমালোচনার মুখেও পড়তে হচ্ছে তাকে।

যদিও, এই ফর্ম তাঁর পারিশ্রমিকের ওপর বিন্দু মাত্র প্রভার ফেলছে না। বরং এই লিগে খেলা বাকি তারকাদের সাথে রোনালদোর পারিশ্রমিকের পার্থক্যটা রীতিমত আকাশ আর পাতালের মতই।

ইতালিয়ান গণমাধ্যমটি জানিয়েছে, চার বছরের চুক্তি অনুযায়ী প্রতি মৌসুমে তুরিনে রোনালদোর পারিশ্রমিক ৩১ মিলিয়ন ইউরো (২৮ মিলিয়ন পাউন্ড/৩৬ মিলিয়ন ডলার)। পাঁচ বারের ব্যালন ডি’র ও উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী তারকার সমপরিমান পারিশ্রমিক এর আগে সিরি ‘এ’-তে কোনো খেলোয়াড়ই পাননি।

জুভেন্টাসে রোনালদো যোগ দেওয়ার পরপরই ক্লাবটি ছেড়ে এসি মিলানে পাঠানো হয় আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড গঞ্জালো হিগুয়েনকে। চুক্তি অনুযায়ী তিনি প্রতি মৌসুমে ক্লাবটি থেকে পাবেন ৯.৫ মিলিয়ন ইউরো (৯ মিলিয়ন পাউন্ড/১১ মিলিয়ন ডলার)।

পারিশ্রমিকর দিক থেকে তৃতীয় স্থানেও আছেন আরেক আর্জেন্টাইন। তিনি হলেন জুভেন্টাসের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় পাওলো দিবালা। প্রতি মৌসুমে তাঁর আয় সাত মিলিয়ন ইউরো (৬ মিলিয়ন পাউন্ড/৮ মিলিয়ন ডলার)।

এর পরের দু’জনও হলেন জুভেন্টাসের খেলোয়াড়। তাঁরা হলেন বসনিয়ার মিরালেম পিজ্যানিক ও ব্রাজিলের ডগলাস কস্তা। প্রতি মৌসুমে দু’জনের পারিশ্রমিক যথাক্রমে ৬.৫ ও ৬ মিলিয়ন ইউরো।

বোঝাই যাচ্ছে, সিরি ‘এ’-তে জুভেন্টাসের বাজেট অন্য যে কোনো দলের চেয়ে বেশি। প্রতি মৌসুমে স্রেফ বেতন-ভাতা বাবদ ম্যাসমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির দল ব্যয় করছে ২১৯ মিলিয়ন ইউরো (১৯৭ মিলিয়ন পাউন্ড/২৫৩ মিলিয়ন ডলার)।

এখানে দ্বিতীয় স্থানে থাকা এসি মিলান তাঁদের চেয়ে যোজন যোজন পিছিয়ে আছে। পারিশ্রমিক বাবদ তাদের প্রতি মৌসুমে ব্যয় ১৪০ মিলিয়ন ইউরো (১২৬ মিলিয়ন পাউন্ড/১৬২ মিলিয়ন ডলার)।

তৃতীয় স্থানে আছে এএস রোমা। তাদের প্রতি মৌসুমে ব্যয় ১০০ মিলিয়ন ইউরো (৯০ মিলিয়ন পাউন্ড/১১৬ মিলিয়ন ডলার)। খরচের দিক থেক সবচেয়ে নিচে আছে এমপোলি। প্রতি মৌসুমে পারিশ্রমিক বাবদ তারা খরচ করে মোটে ১৬ মিলিয়ন ইউরো।

– গোল.কম অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।