কী ভেবেছেন? ধরিত্রী প্রতিশোধ নিতে পারে না?

দুটি খবর।

১.

প্যারিসে চলছে ভয়াবহ হিট ওয়েভ। তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি ছাড়িয়েছে। গাড়ি চলাচল বন্ধ। জারি হয়েছে রেড এ্যালার্ট। ইতালির সাতটি শহরেও রেড এ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। ইউরোপের আরো অনেক দেশে নরক নেমে আসছে।

২.

ইউনেসকোর বিশ্ব ঐতিহ্য তালিকা থেকে বাদ পড়ে যেতে পারে সুন্দরবন। ঐতিহ্যের তালিকায় থাকা যেসব জায়গা বিপদাপন্ন সেগুলোর সংরক্ষণের চিত্র ঘেঁটে দেখা হবে। সুন্দরবনকে এখন বন্যপ্রাণীদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিবেচনা করা হচ্ছে। এছাড়া এর কাছে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের প্রক্রিয়া, বন উজাড়সহ পরিবেশবিরোধী কাজের অভিযোগ রয়েছে। সব মিলিয়ে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে সুন্দরবনকে ইউনেস্কো বাদ দিতে পারে।

দুটির কোনটাই আমাদের জন্যে তেমন গুরুত্বপূর্ণ না, তাই না? প্যারিসে হিট ওয়েভ চললে আমাদের কী! সুন্দরবন নিয়ে অবশ্য একটু আহা-উহু করা যেতেই পারে।

ঠিক আছে, আরেকটা খবর দেই। দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে পানি নেই। ভারতের অনেক শহরেও পানির তীব্র অভাব।

আমরাও ঠিক এই পরিণতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। পানি থাকবে না, ছায়া থাকবে না, সবুজ থাকবে না, থাকবে খালি উন্নয়ন, থাকবে খালি এনার্জি।

কী ভেবেছেন? ধরিত্রী প্রতিশোধ নিতে পারে না? ধরিত্রী সর্বংসহা? জ্বী না। তার ওপর করা অনাচার সব সে ফিরিয়ে দিবে। অস্ট্রেলিয়ার পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন সমুদ্র সৈকতে ইন্দোনেশিয়ার সাগর থেকে প্লাস্টিকের প্রবাহ এসে জমা হচ্ছে। জলবায়ূ পরিবর্তন সম্পর্কে এতদিন যেসব ভয়ের গল্প শুনতেন, সেসব এবার সত্যি হচ্ছে। আপনি আর আমি খুব দ্রুতই টের পাবো।

আরো করেন নদী দখল, সুপেয় পানিতে মিশিয়ে দেন কেমিকেল, আরো করেন বন উজার, তৈরি করেন প্লাস্টিক অরণ্য! নদীকে উদ্ধার করতে এলে ম্যাজিস্ট্রেটকে হুমকি দিয়ে পাঠায়ে দেন! খুব জোর, তাই না? খুব দ্রুতই ফল পাবেন। দেখা যাবে কার কত জোর।

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।