এই মণি-মুক্তাগুলো বক্স অফিসে প্রাপ্য সম্মান পায়নি!

হিন্দি সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির ছবি মানেই জমকালো সে, জীবনের চেয়েও বড় কিছু চরিত্র যারা প্রয়োজনে নাচতে পারে আইটেম নাম্বারে কিংবা ঝাঁপিয়ে পড়তে পারে পরাক্রমশালী কোনো ভিলেনের বিরুদ্ধে। তবে, এই ফর্মুলার বাইরেও বলিউডে কিছু ছবি হয় যারা হয়তো বক্স অফিসকে সন্তুষ্ট রাখতে পারে না, তবে ছুঁয়ে যেতে পারে সিনেমাপ্রেমীদের মন।

  • ১৯৭১ (২০০৭)

মনোজ বাজপেয়ি’র এই ছবিটি মুক্তির সময় আলোচিত হলেও, মুক্তির ১৩ বছর যখন আবারো অনলাইনে মুক্তি পায় তখন সুনাম কুড়ায়। দেরীতে হলেও বা মন্দ কি! অমৃত সাগরের পরিচালনায় নির্মিত এই ছবিটি ছয়জন যোদ্ধার গল্প বলেছে, যাদের যুদ্ধের সময় আটক করে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী।

  • কারিব কারিব সিঙ্গেল (২০১৭)

ইয়োগি একজন কবি, একটু পাগলাটে আর খুব আপত্তিকর রকমের লাউড। এরপরও নিজেকে অন্যের কাছে পছন্দশীল করে তোলাটা সহজ কাজ নয়। চরিত্রটি করেন প্রয়াত ইরফান খান। দর্শকদের জন্য ব্যাপারটা তাই মনোমুগ্ধকর।অনলাইন ডেটিং সাইটের সুবাদে তাঁর পরিচয় হয় জয়ার সাথে। জয়ার স্বামী মারা গেছেন। ছবির দু’জনই মধ্যবয়সী। অন্যরকম একটা ভাললাগা ও ভালবাসার গল্প একটু একটু করে এগিয়ে যায়। গল্প এগোতে যায় দেহরাদুন, এরপর জয়পুর, শেষ হয় গ্যাংটকে গিয়ে। ছবির একদম শেষ দৃশ্যে গিয়ে আসে সম্পর্কের পূর্ণতা। ওল্ড স্কুল রোম্যান্টিক ড্রামা। ঠোঁটের কোনে হাসি এনে দেওয়া একটা ছবি।

  • কামিয়াব (২০১৮)

অভিনেতা হিসেবে সঞ্জয় মিশ্র যতটা আন্ডাররেটেড, তার চেয়েও বেশি আন্ডাররেটেড ছবি হল ‘কামিয়াব’। ছবির পুরোটাই সঞ্জয় মিশ্র’র ‘ওয়ান ম্যান শো’। ছবিটা শাহরুখ-গৌরীর রেড চিলিজ এন্টারটেইনমেন্ট থেকে আসলেও জনপ্রিয়তা পায়নি বক্স অফিসে। যদিও, অনলাইনে মুক্তি পেয়ে ছবিটি বেশ সাফল্য পায়।

  • তুম্বাড় (২০১৮)

সমালোচকদের দৃষ্টিতে ২০১৮ সালের অন্যতম সেরা ছবি ছিল তুম্বাড়। তুম্বাড় গ্রামের ক্ষমতাধর এক ব্রাহ্মণ জমিদার পরিবারের এক কালো অধ্যায়কে কেন্দ্র করে এগিয়েছে ছবির গল্প। এমন হরর আর অতিপ্রাকৃত সিনেমাই বলিউডে হয়েছে খুব কম। উপমহাদেশের ‘সুপার-ন্যাচরাল’ ঘরানায় এই ছবিটি অন্যতম সেরা সংযোজন। ফিল্ম ফেয়ারে তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পায়। যদিও, বক্স অফিস থেকে আশানুরূপ সাফল্য পায়নি ছবিটি।

  • মিথ্যা (২০০৮)

দারুণ এক কমিক থ্রিলার। ছবিটিতে একগাদা প্রতিভাবান অভিনেতা আছেন। রণবীর শোরে, নেহা ধুপিয়া, নাসিরুদ্দিন শাহ আর বিনয় পাঠকরা উপভোগ্য করে তুলেছেন ছবিটিকে। বিনোদনের জন্য ছবিটি যথেষ্ট হলেও, মুক্তির সময় দর্শক ছবিটিতে মোটেও আগ্রহ পায়নি।

 

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।