বয়সের ফারাক, মনের নয়

প্রেমের ক্ষেত্রে বয়স কোনো বাঁধা নয়। এই ধ্রুব সত্যি কথাটা নতুন করে প্রমাণ করেছেন এই বলিউড তারকারা। তাঁদের জন্য বয়স স্রেফ একটা সংখ্যা, মনের মিলটাই বড় ব্যাপার।

  • আমির খান ও কিরণ রাও

‘লগন’-এর সেটে যখন সহকারী পরিচালক কিরণ রাওয়ের সাথে আমির খানের পরিচয় হয় দু’জনের বয়সের পার্থক্য ছিল নয় বছর। তবে, সেটা বিয়ের জন্য বাঁধা হয়নি। ২০০৫ সালে বিয়ে করা এই দম্পতির আছে এক ছেলে।

  • দিলীপ কুমার ও সায়রা বানু

দিলীপের বয়স ছিল ৪৫, আর সায়রার ২২। মানে যখন তাঁরা বিয়ে করেন তখন দিলীপের অর্ধেক বয়সেরও কম বয়স ছিল সায়রার। এই দম্পতি নি:সন্তান।

  • ধর্মেন্দ্র ও হেমা মালিনী

‘শোলে’ ছবির সেটে যখন মন দেওয়া নেওয়া হয়ে যায় তখন ধর্মেন্দ্র আর হেমার বয়সের পার্থক্য ছিল ১৩ বছর। পরবর্তীতে তাঁরা বিয়ে করেন। তাঁদের দুই মেয়ে।

  • রাজেশ খান্না ও ডিম্পল কাপাডিয়া

দু’জনের বয়সের পার্থক্য ১৫ বছর। মাত্র ১৬ বছর বয়সে ৩১ বছর বয়সী রাজেশ খান্নাকে বিয়ে করেন ডিম্পল। তাঁদেরই মেয়ে হলেন টুইঙ্কল খান্না ও রিঙ্কি খান্না।

  • সঞ্জয় দত্ত ও মান্যতা দত্ত

মান্যতা সঞ্জয়ের চেয়ে ১৯ বছরের ছোট। দীর্ঘ নয় বছর প্রেম করার পর এই জুটি বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। ২০০৮ সালে তাঁদের বিয়ে হয়। সঞ্জয়ের এটা তৃতীয় বিয়ে। মান্যতা বলেন, ‘আমিই ফাইনাল মিসেস দত্ত।’

  • বনি কাপুর ও শ্রীদেবী

শ্রীদেবীর চেয়ে প্রযোজক বনি কাপুর আট বছরের বড়। যখন বিয়ে হয় তখন শ্রীদেবী ছিলেন সাত মাসের অন্তসত্তা। বনির প্রথম স্ত্রী হলেন মোনা সুরি কাপুর। আগের ঘরে বনির দুই সন্তান।

  • শহীদ কাপুর ও মিরা রাজপুত

বলিউডের চকলেট বয় শহীদ কাপুর নিজের চেয়ে ১৩ বছরের ছোট মিরা রাজপুতকে বিয়ে করেন ২০১৫ সালে। ২০১৬ সালে তিনি কন্যা সন্তানের বাবা হন।

  • সাইফ আলী খান ও কারিনা কাপুর

সাইফ তাঁর স্ত্রী কারিনার চেয়ে ১১ বছরের বড়। তাঁদের বিয়ে হয় ২০১২ সালে। একমাত্র ছেলে তৈমুর। সাইফের জন্য বয়স অবশ্য কখনোই কোনো ব্যাপার নয়। এই নবাবের প্রথম স্ত্রী অমৃতা সিং ছিলেন তাঁর চেয়ে ১৩ বছরের বড়।

– বলিউড বাবল অবলম্বনে

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।