জমকালো সূচনা, ট্র্যাজেডিক বিদায়

বলিউডে এমনিতেই টিকে থাকা শক্ত। অনেক প্রতিভাবানই বলিউডে ভাগ্যের সন্ধানে আসেন, ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান। তাঁদের ভাগ্য নি:সন্দেহে খারাপ। এর থেকেও দুর্ভাগা হলেন তাঁরা যারা বলিউডে এসে মোটামুটি ভাল ভাবে সূচনার পর কোনো ট্রাজেডির শিকার হয়ে বাধ্য হয়ে বিদায় নেন।

  • ফারাজ খান

নামটা এই প্রজন্মের চেনার কথা না। ১৯৮৯ সালের রোম্যান্টিক মিউজিক্যাল সিনেমায় তাঁর কাজ করার কথা ছিল। যদিও, শ্যুটিং শুরুর আগে তিনি এতটাই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন যে পরিচালক বাধ্য হয়ে সালমান খানকে চরিত্রটি দেন। বাকিটা তো ইতিহাস! পরে ফিরে ফারাজ ‘ফারেব’, ‘মেহেন্দি’ ‘পৃথিবীর মত সিনেমা করলেও কখনো বলিউডে থিঁতু হতে পারেননি।

  • আনু আগারওয়াল

এই নামটা শুনলে হয়তো চিনবেন না, কিন্তু যখন বলা হবে তিনি ‘আশিকি’ ছবির নায়িকা তাহলে ঠিকই বুঝে যাবেন কার কথা বলা হচ্ছে। এরপর অবশ্য আরো নয়টা সিনেমা করেছিলেন। বড় একটা দুর্ঘটনার শিকার হন তিনি। ২৯ দিন কোমায় থাকতে হয়। এরপর আর বলিউডে লড়াই চালিয়ে যাওয়া শক্ত ছিল তাঁর জন্য।

  • নরেন্দ্র ঝাঁ

চরিত্রাভিনেতা হিসেবে তিনি দারুণ ছিলেন। হায়দার, রঈস, ঘায়েল ওয়ান্স এগেইন, হামারি আধুরি কাহানি, কাবিল, ফোর্স ২, মোহেঞ্জোদারোতে কাজ করেছিলেন। ভিলেন হিসেবে বেশ মানিয়ে যেতেন। তবে, ২০১৮ সালের ১৪ মার্চ হার্ট অ্যাটাকে তাঁর মৃত্যু হয়।

  • তরুণী সাচদেব

‘পা’ সিনেমায় ‘অরো’র ছোট্ট বান্ধবীর কথা মনে আছে? তিনি হলেন তরুণী সাচদেব। এর আগে দু’টি মালায়ালাম ও একটি তামিল সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। যদিও, ২০১২ সালে নেপালে নিজের ১৪ তম জন্মদিনের দিনে বিমান দুর্ঘটনায় তাঁর মৃত্যু হয়।

  • স্নেহা উল্লাল

২০০৫ সালে। ভারতীয় গণমাধ্যম জানালো বলিউড পেয়েছে নতুন ঐশ্বরিয়া রায়। সালমানের বিপরীতে সেই ‘নতুন ঐশ্বরিয়া’ খ্যাত স্নেহা উল্লালের অভিষেক হল ‘লাকি: নো টাইম ফর লাভ’ সিনেমায়। সালমান খানের সিনেমায় অভিষেক, এটা তো আর চাট্টিখানি ব্যাপার নয়! এরপর ২০০৯ সাল পর্যন্ত তিনি কাজ করেন বলিউডে। দক্ষিণী সিনেমা ইন্ড্রাস্টিতে ২০১৫ সাল অবধি কাজ করেন। এরপর অটো ইমিউন ডিজিসের কারণে তাঁকে বিদায় নিতে হয়।

  • কোয়েনা মিত্র

২০০২ থেকে ২০০৯ সাল অবধি তিনি ছিলেন বলিউডে। ২০১০ সালে করেছিলেন তামিল সিনেমা। এরপর থেকে তিনি অনিয়মিত। গ্ল্যামার আর সৌন্দর্যের মিশেলে তাঁর শুরুটা মন্দ ছিল না। প্লাস্টিক সার্জারি করতে গিয়ে ব্যর্থ হন। তাই, তিনি বিনোদনের দুনিয়া থেকে দূরে সরে আছেন। ২০১৪ সালে তিনি ‘বেশ করেছি প্রেম করেছি’ নামের টালিউডের একটা বাংলা সিনেমায় কাজ করেন তিনি।

  • ফাওয়াদ খান

পাকিস্তানি এই গায়ক ও নায়কের বলিউডে অভিষেক হয় ২০১৪ সালে। সোনম কাপুরের বিপরীতে ‘খুবসুরাত’ সিনেমায় অভিনয় করে তিনি ফিল্মফেয়ারে সেরা নবাগত অভিনেতার পুরস্কার পান। এরপর ‘কাপুর অ্যান্ড সনস’ ও ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ সিনেমাতেও তিনি প্রশংসিত হন। যদিও, ২০১৬ সালের পর থেকে তিনি আর বলিউডে নেই। বলিউড থেকে পাকিস্তানি হটাও আন্দোলনের কারণে আর তার কাজ করা হয়নি বলিউডে। আদৌ হবে কি না সন্দেহ।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।