পর্দার আড়াল থেকে লাইমলাইটে

তারকাবহুল গ্ল্যামারের দুনিয়ায় নাম লেখানোর স্বপ্ন কে না দেখে। কিন্তু, এত প্রতিযোগীতামূলক জায়গায় এসে কাজ করার সুযোগ পাওয়া সহ নয়। প্রচলিত ধারণা হল, স্টারকিডদের জন্য এই সুযোগ পাওয়াটা খুব সহজ। তবে, এই ধারণাটা কিছুটা হলেও ভাল। স্টারডম পেতে তাঁদেরও অনেক চড়াই-উৎরাই পার হতে হয়। অনেককেই যেমন ক্যারিয়ার শুরু করতে হয়েছে সহকারী পরিচালক হিসেবে।

  • রণবীর কাপুর

সঞ্জয় লিলা বানসালী পরিচালিত, অমিতাভ বচ্চন ও রানী মুখার্জি অভিনিত ‘ব্ল্যাক’ সিনেমার সহকারী পরিচালক ছিলেন কাপুর পরিবারের ছেলে। পরে একই পরিচালকের সিনেমা ‘সাওয়ারিয়া’-তে সোনম কাপুরের সাথে তাঁর অভিষেক হয়। বর্তমানে ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম সব্যসাচী অভিনেতা হিসেবে তিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

  • হৃতিক রোশন

রাকেশ রোশনের ছেলে, শিশু শিল্পী হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু। তারপরও ঘোর মোছা থেকে শুরু করে ক্যামেরা, এডিটিং, পরিচালনার মত অনেক কাজই করতে হয়েছে সময়ের অন্যতম সেরা এই হার্টথ্রুবকে। বাবার অধীনে তিনি ‘কয়লা’ ও ‘করণ অর্জুন’-এর মত সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেন।

  • সিদ্ধার্থ মালহোত্রা

শাহরুখ খান ও কাজলের জনপ্রিয় সিনেমা ‘মাই নেম ইজ খান’। করণ জোহর পরিচালিত এই সিনেমায় সহকারী পরিচালক ছিলেন সিদ্ধার্থ।

  • বরুণ ধাওয়ান

বাবা খ্যাতনামা পরিচালক বরুণ ধাওয়ান। সোনার চামচ নিয়ে জন্মানোর পরও তাঁকে যথেষ্ট কাঠখড় পোড়াতে হয়। ‘মাই নেম ইজ খান’ সিনেমায় তিনি করন জোহরের অধীনে সিদ্ধার্থ মালহোত্রার সাথে সহকারী পরিচালকের ভূমিকায় ছিলেন।

  • অর্জুন কাপুর

অর্জুন কাপুর ছিলেন নিখিল আদভানির সহকারী। সহকারী পরিচালক হিসেবে তিনি শুরু করেন ‘কাল হো না হো’ সিনেমা দিয়ে। এরপর নিজের আইডল সালমান খানের সিনেমা ‘সালাম-ই-ইশক’ সিনমাতেও একই ভূমিকায় ছিলেন তিনি। এরপর তাঁর অভিষেক হয় ‘ইশাকজাদে’ সিনেমায়।

  • সোনম কাপুর

‘ব্ল্যাক’ সিনেমায় রণবীরের সাথে সহকারী পরিচালকদের একজন ছিলেন সোনমও। পরে দু’জনের এক সাথে অভিষেক হয় ‘সাওয়ারিয়া’ সিনেমায়। শোনা যায়, সহকারী পরিচালক হিসেবে তাঁর নাম সঞ্জয় লিলা বানসালির কাছে সুপারিশ করেন খোদ রানী মুখার্জি।

  • ইমরান হাশমি

২০০২ সালের সিনেমায় ‘রাজ’-এর সহকারী পরিচালক ছিলেন এই ‘সিরিয়ার কিসার’। ভাগ্য কাকে বলে, সিনেমাটির সিকিউলে সেই হাশমিই নায়ক বনে যান।

  • কুনাল কাপুর

মনোজ বাজপায়ি ও অমিতাভ বচ্চনের সিনেমা ‘আকস’-এর সহকারী পরিচালক ছিলেন কুনাল। পরবর্তীতে রং দে বাসন্তি সিনেমায় অভিনয় করে লাইম লাইটে আসেন তিনি।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।