বছরজুড়ে আলোচিত তিন অভিনেত্রী

বছরজুড়ে ঢাকার সিনেমায় অভিনেত্রীরা ভিন্ন ধারার সব চরিত্র করার জন্য আলোচিত হয়েছেন। সবার মাঝ হতে তিনজনকে বেছে নেয়া কঠিন। তিনজন বেছে নেয়ার সময় কয়েকটি ‘ফ্যাক্টর’ বিবেচনা করতে হয়েছে। সেগুলো হল – অভিনয় দক্ষতা, শিল্পীকে নিয়ে দর্শকের আগ্রহ এবং সর্বশেষ সিনেমার অবস্থান। সেরা বাছাই করা তাই কষ্টসাধ্য এক ব্যাপার। তবুও তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকা করলে সেখানে থাকবেন – জয়া আহসান, পরীমনি ও পূজা চেরি।

  • জয়া আহসান

২০১৮ সালের ঢালিউডের সেরা অভিনেত্রী কে? এ প্রশ্নের উত্তরে সবাই একসুরেই কথা বলছেন। জয়া আহসান। অনলাইন, প্রিন্ট, টেলিভিশন সকল মিডিয়ার সালতামামিতে জয়া থেকেছেন এক নম্বরেই।

এ বছর জয়ার বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে দুটো ছবি। একটি ‘পুত্র’ অন্যটি ‘দেবী’। প্রথম ছবিতে জয়ার অভিনয় প্রশংসিত হলেও ব্যবসা করতে পারেনি ছবিটি। কিন্তু দ্বিতীয় ছবি ‘দেবী’ ছিল বছরের সেরা সিনেমাগুলোর একটি।

জয়া আহসান অভিনেত্রী বিশেষণের পাশে এ বছর নতুন বিশেষণ যুক্ত করেছেন, প্রযোজক। তাঁর প্রযোজিত ‘দেবী’র জন্য তিনি বৈচিত্র্যময় প্রচারণা করেছেন। এ ছবির বিভিন্ন অনুষঙ্গ নিয়ে ফ্যাশন শো’র আয়োজন করেছে বিশ্বরঙ। টেলিভিশনে সংবাদপাঠ করেছেন জয়া ও সহঅভিনেতা চঞ্চল। জয়া খ্যাত, অখ্যাত অনেক অনলাইন মিডিয়ায় সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। এ ছবিটিকে দর্শকের দুয়ারে পৌঁছানোর সকল চেষ্টাই করেছেন জয়া। সিনেমা মুক্তির পর ঢাকা শুধু নয় ঢাকার বাইরের প্রেক্ষাগৃহেও ছুটে গেছেন তিনি।

অভিনেত্রী জয়াকে এ ছবিতে দেখে মুগ্ধ হননি এমন লোক খুঁজে পাওয়া যাবেনা। তাঁকে প্রকৃত ‘দেবী’ মনে হয়েছে এ ছবিতে। সিনেমার গল্পের চরিত্রের সাথে মিশে যাওয়ার সহজাত ক্ষমতায় জয়া আলোকিত করেছেন ‘দেবী’।

প্রয়াত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ‘রানু’ চরিত্রটিকে জয়ার চেয়ে ভালো বোধহয় আর কেউ ফুটিয়ে তুলতে পারতেন না পর্দায়। জয়া যে ঝুঁকি নিয়েছিলেন তাতে লেটার মার্ক নিয়েই উৎরে গেছেন। একটি ছবি দিয়েই প্রায় একবাক্যে সকল সিনেপ্রেমীর চোখে বছরের শীর্ষ অভিনেত্রী কিংবা নায়িকার ‘খেতাব’ তাই জয়াই পেয়েছেন, অন্য কেউ নন।

অভিনেত্রী শুধু নয় যদি সেরা প্রযোজকের কোন তালিকা থাকতো সেখানেও এক নম্বরেই থাকতেন জয়া আহসান। ‘দেবী’ চলচ্চিত্রের সাফল্য এ কথাই বলে।

  • পরীমনি

পরীমনির ক্যারিয়ারের টার্নিং পয়েন্ট বলা যায় ‘স্বপ্নজাল’ ছবিটিকে। এ ছবির আগে পরীকে গতানুগতিক সিনেমার নায়িকা হিসেবে জানতো সকলে। অভিনেত্রী পরীর চেয়ে গ্ল্যামারাস পরীকে চিনতো দর্শক। গিয়াস উদ্দীন সেলিমের একটি ছবি পরীকে আমূল বদলে দিল। মেকআপ না নিয়ে শুধু অভিনয় দিয়ে পরী মুগ্ধতার পরশ বুলিয়েছেন দর্শকের চোখে। পরী সাদামাটা নারী চরিত্রে কতটা সুশ্রী তা যারা ছবিটি দেখেছেন তাঁরা টেঁর পেয়েছেন। পরীর লাবণ্যের সাথে যুক্ত হয়েছিল তাঁর অভিনয়। নির্মাতা পরীর সুপ্ত প্রতিভাকে তুলে এনেছেন সিনেমার পর্দায়।

পরী একটি ছবি করার পর নিজের দক্ষতার প্রতি সচেষ্ট হয়েছেন। তিনি এখন সিনেমার গল্পের প্রতি মনোযোগী হয়েছেন। বছরের শেষদিকে একটি ওয়েবফিল্মে কাজ করলেন তিনি। এতেই বোঝা যায় একটি ছবি তাঁর মনোজগতে কতটা প্রভাব বিস্তার করেছে।

বছরের অন্যতম আলোচিত অভিনেত্রী তাই, পরীমনি। ‘স্বপ্নজাল’ ছবির শুভ্রা, কিংবা বলা চলে ওয়েবফিল্ম ‘প্রীতি’র দু:সাহসিক সাংবাদিক প্রীতি।

  • পূজা চেরি

ঢালিউডে ২০১৮ সালে সবচেয়ে আলোচিত নবাগতা কে? এমন প্রশ্নের জবাবে অধিকাংশ উত্তরদাতার উত্তর হবে, ‘পূজা চেরী’। একসময়ের শিশু শিল্পী, বর্তমান সময়ের চিত্রনায়িকা পূজার মাঝে সিনেমার নায়িকার সকল উপাদান খুঁজে পেয়েছেন সিনেবোদ্ধারা।

পূজাকে প্রথম দেখা যায় ‘নূর জাহান’ ছবিতে। কলকাতার অদ্রিতের বিপরীতে পূজার অভিনয় মন ছুঁয়ে যায় সকলের। অভিনেত্রী পূজার মাঝে সম্ভাবনা খুঁজে পেয়েছিলেন সকলে, একটি ছবি দেখেই। তারই ধারাবাহিকতা বজায় থাকলো ‘পোড়ামন ২’- এ। এ ছবিতেও পূজার সাবলিল অভিনয় দর্শকের বিশ্বাসের ভিত্তিকে মজবুত করলো। ছবিটির অভাবনীয় সাফল্যে পূজাকে নিয়ে ভাবালো সকলকে। টিনএজ নায়িকা পূজা চেরী পরিণত হলেন ‘ক্রাশ’-এ। গ্রাম্য কিশোরীর এত সরলরূপে দীর্ঘকাল কোন নায়িকাকে দেখেনি দর্শক।

পূজার অভিনয়, নৃত্য পারদর্শিতা ও গ্ল্যামার তাঁকে আলোচিত নায়িকায় পরিণত করেছে। পাবলিক ইভেন্টেও তাঁকে নিয়ে দর্শকের আগ্রহ লক্ষ্যণীয়।

বছরের শেষ সময়ে ‘দহন’ ছবির গার্মেন্টস কর্মীর চরিত্রে পূজার ‘ন্যাচারাল’ অভিনয় তাঁকে বছরের অন্যতম সেরা অভিনেত্রীর তালিকায় ঠাঁই দিতে দ্বিতীয়বার ভাবায়নি কাউকে।

বছরের সেরা অভিনেত্রীদের তালিকায় তাই বিভিন্ন মিডিয়ায় পূজা চেরি উঠে এলেন, অভিনয় দক্ষতায়। চলচ্চিত্রবোদ্ধাদের মতে পূজা হতে যাচ্ছেন আমাদের আগামীর তারকা, যাঁর মাঝে ঢালিউড খুঁজে পাবে ভরসা।

তালিকায় শবনম ফারিয়া, মাহিয়া মাহি এলে দোষণীয় হতো না। যাঁরা আসেননি তাঁরাও যথেষ্ঠ যোগ্যতা সম্পন্ন। আসছে বছরে সকল প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি ঘুচিয়ে সিনে ইন্ডাস্ট্রিকে সফল করে তুলবেন সকলে মিলে, এ আশা করতেই পারি আমরা। অন্তত বছরজুড়ে নতুনদের দাপটে এ স্বপ্ন দেখা দোষের নয়।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।