সমালোচনা হল এক চিমটি লবন: সোনম কাপুর

পাশের বাড়ির সদাচঞ্চল ছোট্ট মেয়েটি। মন ভাল করার জন্য যার ছোট্ট একটু হাসিই যথেষ্ট। না, মেয়েটি কিন্তু আর ছোট নেই। জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করতে যাচ্ছেন। ব্যবসায়ী ও প্রেমিকা আনন্দ আহুজার সাথে খেলতে নামছেন নিজের জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস। এর আগে ভারতীয়গ গণমাধ্যম আইএএনএসকে সংক্ষিপ্ত এক সাক্ষাৎকার দেন তিনি।

– বিয়ের আগে সম্পর্ক নিয়ে এত লুকোছাপা কেন?

আমি আমার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে খুবই রক্ষণশীল। আমি খুব বেশি প্রাইভেট পার্সন। আমি সব সময় বিশ্বাস করি যে, ব্যক্তিগত জীবনকে যত বেশি সবার সামনে নিয়ে আসবো তত বেশি সেটা আমার কাজ থেকে দৃষ্টি সরিয়ে নেবে।

– ‘ভিরে দি ‍ওয়েডিং’ সিনেমাটি আসছে সামনেই। কতটা আশাবাদী?

– এটা চার নারীর গল্প। সেভাবে কোনো কেন্দ্রীয় চরিত্র নেই। আমি কারিনা (কাপুর খান), সওরা (ভাস্কর) ও শিখার (তালসানিয়া) সাথে নিজের কাজ দেখার জন্য মুখিয়ে আছি। সবাই খুবই প্রতিভাবান নারী অভিনেত্রী।

সিনেমাটি পুরোপুরিই নারীদের ওপর ভিত্তি করে বানানো হয়েছে। সাথে আরো কিছু আছে। নারী নির্ভর সিনেমা মানেই তাতে ভারিক্কি কিছু থাকতে হবে, এমন তো কোনো কথা নেই। আসলে ‘ভিরে দি ওয়েডিং’ একই সাথে নারী ও পুরুষ – সবার সিনেমা।

কান ফেস্টিভ্যালে (৭১ তম) থেকে তো ক’দিন বাদেই আপনাকে দেখা যাবে। সেখানে আপনি লরিয়াল প্যারিসের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। কতটা এক্সাইটেড?

– এই ফেস্টিভ্যালের সব কিছুই আমার খুব পছন্দ। এখানে আমার কোনো চাপ বোধ হয় না। আমি লরিয়াল প্যারিসের সামার এস্কেপের জন্য মুখিয়ে আছি। এখানে আমি সাজগোজের ব্যাপার পুরোপুরি রিয়ার (ছোট বোন ও ফ্যাশন ডিজাইনার) ওর নির্ভার করছি। ও জানে, কি করলে আমাকে বেশি সুন্দর দেখাবে।

সিনেমা না এমন সব পণ্যের এনডর্সমেন্ট – কোনটা ক্যারিয়ারের জন্য বেশি জরুরী?

– আমার মতে, দু’টোর ক্ষেত্রেই দায়িত্বটা সমান। সেলিব্রিটিরা অ্যাম্বাসেডর নির্বাচিত হন তাদের নিজেদের দেশ থেকে। সেটা সিনেমা হোক কিংবা হোক বিশ্বখ্যাত কোনো ব্র্যান্ড। আমি জানি, এই ফেস্টিভ্যালটি ফ্যাশনের দিক থেকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর মিডিয়া তো বরাবরই সিনেমা আর ফ্যাশনের দুনিয়াকে আলাদা করে দেখতে পছন্দ করে।

প্রায়ই আপনার ফ্যাশন সেন্স নিয়ে সমালোচনা হয়। বিষয়টাকে আপনি কিভাবে দেখেন?

– হিট করে আর মিস করে। আমি কখনোই ট্রলিংকে সিরিয়াসলি নেই না। আমি নিজের মত ড্রেস আপ করতে পছন্দ করে। সমালোচনা হল এক চিমটি লবন, দিলেই কি, না দিলেই বা কি!

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।