সব ‘অটো’ হলে আপনারা কি করতে আছেন?

প্রেস কনফারেন্সে থেকে আমি পাগল হয়ে গিয়েছিলাম। পরে আমার ছেলের সঙ্গে ঘোড়া-ঘোড়া খেলার পর আবার মোটামুটি সুস্থ হয়েছি।

তর্কের খাতিরে ধরে নিলাম ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত আছে। কিন্তু দাবিগুলো তো সবই যৌক্তিক। মেনে নিতে সমস্যা কোথায়? মেনে নিন। ছেলেরা মাঠে ফিরুক। তার পর চক্রান্তকারীদের বের করেন। ব্যবস্থা নেন। যা ইচ্ছা করেন। আর চক্রান্ত করে যদি ক্রিকেটের ভালো চাওয়া হয়, যৌক্তিক দাবি তোলা হয়, তাহলে লোকের কাছে সেটাই গ্রহণযোগ্য হয়, চক্রান্ত থাকে না। সেটাও মাথায় রাখবেন।

আপনাদের না বলে মিডিয়ায় বলেছে বলে রাগ করেছেন। ঠিক আছে। জানতে পারা দিয়েই তো ব্যাপার, তারা নিজেরা বলুক বা মিডিয়ার মাধ্যমে। জানতে পেরেছেন, এখন দাবি মেনে নিন। তার পর ওদের ডেকে বকে দিন যে কেন মিডিয়ায় আগে বলল। ব্যস, খতম!

আপনারাই বলছেন এমন কোনো দাবি এসব নয়। তাহলে মানতে সমস্যা কোথায়? আপনার সঙ্গে সবার ভালো সম্পর্ক, সবার ব্যক্তিগত-পারিবারিক অনেক উপকার করেছেন। ধরে নিলাম, আপনার আবেগে চোট লেগেছে। তো, আজকে প্রেস কনফোরেন্সে সুন্দর করে বলতে পারতেন, ‘সব মেনে নিচ্ছি, তোমরা মাঠে ফেরো।’ তার পর নিজেরা বসে মান-অভিমান, ক্ষোভ, সব কিছুর কথা বলেন। সমস্যা কোথায়?

আপনাদের সবার এই উপলব্ধি জরুরী যে ক্রিকেট ও ক্রিকেটারদের জন্যই আপনারা। এই যে আপনাদের দায়িত্ব, এই সুরম্য ভবন, পেছনে মিডিয়ার ছুটোছুটি, এত পরিচিতি, সব ক্রিকেটারদের জন্য। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারদের সংখ্যা কমানো নিয়ে আজকে খুব তাচ্ছিল্য নিয়ে বললেন, ‘খেলা পারে না… দেব না টাকা…।’

ওই টাকা কিন্তু ভাই আপনার না। ক্রিকেটের টাকা, ক্রিকেটারদের টাকা। আপনারা মাধ্যম মাত্র। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা বোর্ডের রাজস্বের ভাগ পায় কোন কারণে জানেন তো? তারা বলেন, ‘আমাদের মাধ্যমেই টাকা আয় হয়, আমাদেরই প্রাপ্য।’ বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা অন্তত তেমন কিছুর দাবি এখনও করছে না। করলেও অযৌক্তিক না।

বলবেন তো অস্ট্রেলিয়ার মতো পারফর্ম করতে? বাংলাদেশ যা পারফর্ম করে, সেটি দিয়েই এই টাকা এসেছে ভাই। পারফর্ম না করলে, বোর্ডের টাকা কমলে, তখন তাঁদের টাকাও কমাবেন। সমস্যা কোথায়? আইসিসি তো ভাই আপনাদের চেহারা দেখে টাকা দেয় না। স্পন্সররাও না। ব্রডকাস্টাররাও না। ক্রিকেট-ক্রিকেটারদের জন্য দেয়।

ক্রিকেট মাঠে ফেরা জরুরী ভাই। জাতীয় লিগ গুরুত্বপূর্ণ। ক্যাম্প গুরুত্বপূর্ণ। ভারত সফর গুরুত্বপূর্ণ। যেটা চাইলেই মানতে পারেন, মানলেই সব ঝামেলা শেষ, কেবল ইগোর জন্য ঝুলিয়ে রাখার মানে হয় না। ক্রিকেটাররা ক্রিকেট খেলতে না চাওয়ার কারণ নেই। এটা তাঁদের প্রফেশন-প্যাশন। তাঁদেরকে মাঠে ফেরান।

সব অটো হবে না ভাই। অটো হলে আপনারা কি করতে আছেন?

আর ক্রিকেটারদেরও সব দুয়ার বন্ধ না করে এখন সেন্সিবলভাবে এগোতে হবে। সমাধানের পথ খোলা রাখতে হবে। প্রতিটি পদক্ষেপ গুরুত্বপূর্ণ।

– ফেসবুক ওয়াল থেকে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।