টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের যত ম্যাচ সেরা, সিরিজ সেরা

.

অভিজাত টেস্ট পরিবারের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য হিসেবে আমরা ইতোমধ্যেই পূরণ করে ফেলেছি টেস্ট ম্যাচ খেলার সেঞ্চুরি। তবে একটু পেছন ফিরে তাকালে হতাশার চিত্রটাই বড় হয়ে উঠে। এ পর্যন্ত খেলা ১০৬ টেস্টে সাফল্যের তুলনায় ব্যর্থতার পাল্লাটা অনেক বেশি ভারী।

৮০ টি হারের বিপরীতে জয় মাত্র ১০টি! যার মধ্যে সাতটি জয়ই এসেছে ‍র‌্যাংকিংয়ে তলানির দল জিম্বাবুয়ে এবং দ্বিতীয় সারির ‘দুর্বল’ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

বাকি ১৬টিতে ড্র। যার মধ্যে নয়টি টেস্ট ড্রয়ের পেছনেই ছিল বৃষ্টির অবদান; পুরো পাঁচদিন খেলে ড্র করেছি মাত্র সাতটি টেস্ট!

তবে দলীয় এই পরিসংখ্যানের বৃত্ত ভেঙ্গে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা যে ব্যক্তিগত নৈপুণ্যে অনেক বেশি উজ্জ্বল ছিলেন অন্য একটা তথ্যেই তার প্রমাণ।

১০৬ টেস্টের মধ্যে বাংলাদেশ মাত্র ১০ টিতে জিতলেও ব্যক্তিগত নৈপুণ্যের ঝলক দেখিয়ে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার ছিনিয়ে এনেছেন ২৮ টি ম্যাচে!

তার মানে বাংলাদেশ ম্যাচসেরার পুরস্কার ঘরে তুলেছে জয় এবং ড্র ম্যাচের যোগফলের চেয়েও দু’টি বেশি ম্যাচে! মানে খুব সোজা, প্রতিপক্ষ জিতেছে এমন ম্যাচেও ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার নিজেদের যোগ্যতা দিয়েই অর্জন করেছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা!

অনুমিতভাবেই ব্যক্তিগত এই কৃতিত্ব অর্জনের দিক বাকি সবাইকে ছাপিয়ে আপন মহিমায় ভাস্বর সময়ের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

এ পর্যন্ত ৫১টি টেস্ট ম্যাচে অংশ নিয়ে ছয়টিতেই ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন সাকিব।

এছাড়া ৩ বার করে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন –

মোহাম্মদ আশরাফুল ৬১ টেস্ট

মুশফিকুর রহিম ৬০ টেস্ট

মুমিনুল হক ২৭ টেস্ট

আর ৫০ টেস্টে দু’বার ম্যাচসেরা হওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন তামিম ইকবাল।

 

এছাড়া টেস্টে অন্তত এক বার করে ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন ১১ ক্রিকেটার-

মোহাম্মদ রফিক, মাশরাফি বিন মুর্তজা, এনামুল হক জুনিয়র, জাভেদ ওমর বেলিম, অলক কাপালি, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, রবিউল ইসলাম, ইলিয়াস সানি, সোহাগ গাজী ও তাইজুল ইসলাম।

এদের মধ্যে অভিষেকে ম্যাচসেরা হয়েছেন চার জন। জাভেদ ওমর বেলিম, মোহাম্মদ আশরাফুল, মুস্তাফিজুর রহমান ও ইলিয়াস সানি।

.

ব্যক্তিগত সাফল্যের আরেক অর্জন সিরিজ সেরার পুরস্কার জয়েও বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের সাফল্য রীতিমতো ঈর্ষণীয়!

টেস্টে এ পর্যন্ত বাংলাদেশের খেলা সিরিজের সংখ্যা ৫৪ টি। তার মধ্যে জিতেছে মাত্র তিনটি সিরিজে। ড্র করেছে সাতটি সিরিজে। বাকি ৪৪ টি সিরিজেই হার।

অথচ বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা সিরিজ সেরার পুরস্কার পেয়েছে মোট ১০ টি সিরিজে!

এখানেও যথারীতি বাকি সবাইকে ছাপিয়ে আপন আলোয় উজ্জ্বল সাকিব আল হাসান। ২৮ টি টেস্ট সিরিজে অংশ নিয়ে তিনি সিরিজ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন মোট চার বার।

এছাড়া একবার করে এই গৌরবের মুকুট মাথায় তুলেছেন – জাভেদ ওমর বেলিম, তামিম ইকবাল, মুমিনুল হক, রবিউল ইসলাম, এনামুল হক জুনিয়র ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।