‘এমন জোরে গাইব, যেন বাবা উপর থেকে শুনতে পান’

শো মাস্ট গো অন! জীবন কারো জন্যই থেমে থাকে না। স্বয়ং আইয়ুব বাচ্চু তাই চলে গেলেও এলআরবিও থেমে নেই। শো করতেই হচ্ছে। আর আইয়ুব বাচ্চুকে ছাড়া এলআরবি’র শুরুটাও হল সেই চট্টগ্রাম থেকে, যে শহর নিজ হাতে গড়েছিল আইয়ুব বাচ্চুকে।

চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে সংস্কৃতি মন্ত্রনালয় আয়োজিত উন্নয়ন কনসার্টে হাজির হয়েছিল এলআরবি। সাথে ছিল আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার। বাচ্চুর গিটার ছিল তার ছেলে আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুবের হাতে। মঞ্চে উঠে বাঁজালেনও সেই বাবার মতই।

বললেন, ‘আমার বাবা আপনাদের অনেক পছন্দের একজন। আমার বাবা আজ মঞ্চে নেই। আমরা এমন জোরে বাজাব, এমন জোরে গাইব, যেন আমার বাবা উপর থেকে শুনতে পান।’

সাথে যোগ দেন মাইলসের মানাম আহমেদ। কান্না জড়ানো কন্ঠে বেজ গিটারিস্ট স্বপ্ন বলেন, ‘৩৬ বছর পর বাচ্চু ভাইকে ছাড়া কোনো মঞ্চে গান গাইছি।’

বাচ্চুর মেয়ে বলেন, ‘আমার খুব ইমোশনাল লাগছে। আপনারা সবাই এমন জোরে গাইবেন, যেন বাবা উপর থেকে শুনে বলেন- আমি তোমাদের সাথে আছি।’

এলআরবি ব্যান্ডের ম্যানেজার শামীম আহমেদ বলেন, ‘বাচ্চু ভাই উপর থেকে দেখুক, তাঁর রকল্যান্ডকে। এই চট্টগ্রামের মাটিকে বাচ্চু ভাই বলতেন রকল্যান্ড।’

ড্রামার রোমেল বলেন, ‘বাচ্চু ভাই আপনাদের সন্তান। আপনারা বাচ্চু ভাইয়ের জন্য মন থেকে দোয়া করবেন।’

কনসার্ট শেষ হয় ‘সেই তুমি’ গানটা দিয়ে। মঞ্চে তখন এলআরবি আর আইয়ুব বাচ্চু পরিবারের সবাই। সে এক আবেগঘন দৃশ্য। পুরো স্টেডিয়ামটাই যেন তখন আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার।

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।