পছন্দের একটা চরিত্র পেতে…

বলিউড পৃথিবীর ইতিহাসেরই অন্যতম বৃহৎ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিগুলোর একটি। প্রতি বছর এই ইন্ডাস্ট্রি থেকে রেকর্ড সংখ্যক সিনেমা মুক্তি দেওয়া হয়। যখনই কোনো সিনেমা হিট হয়, তখন নির্মাতারাও ওই হিট সিনেমার জুটিকে নিয়ে কাজ করতে আগ্রহ হন। আবার অনেক সময় গল্প ও স্ক্রিপ্টের প্রয়োজনে ভিন্ন কোনো জুটি বা নতুন মুখকেও দেখা যায়।

অধিকাংশ পরিচালকেরই কিছু পছন্দের শিল্পী থাকেন, যাদের সাথে কাজ করতে তারা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। সাধারণত গল্প বুঝে কাস্টিংয়ের কাজটা পরিচালক-প্রযোজকরাই করেন। অনেক ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রমও হয়। অভিনয়রা নিজে থেকেই আগ্রহী হয়ে কোনো বিশেষ চরিত্র করতে পরিচালকদের প্রস্তাব করে বসেন। এমনই পাঁচটি নজীর নিয়ে আমাদের এবারের আয়োজন।

  • আমির খান

মিস্টার পারফেকশনিস্ট খ্যাত আমির খান একবারই এই কাজ করেছিলেন। ২০১১ সালের ‘ধোবি ঘাট’ নামের সেই সিনেমার পরিচালক আবার ছিলেন আমিরেরই স্ত্রী কিরণ রাও। কিরণ অবশ্য আমিরকে সিনেমায় রাখতে রাজি ছিলেন না। তিনি ভিন্ন কাউকে খুঁজছিলেন। ‘অরুণ’ নামের চরিত্রটি পেতে আমিরকে রীতিমত অডিশনও দিতে হয়েছিল।

  • অক্ষয় কুমার

বলা হয়, ২০১৮ সালের সিনেমা ‘প্যাডম্যান’ নির্মিত হয়েছে অরুনাচালাম মুরুগানাথামের জীবন নিয়ে টুইঙ্কল খান্নার লেখা বই ‘দ্য লিজেন্ড অব লক্ষ্মী প্রসাদ’ অবলম্বনে। সিনেমাটির প্রযোজকদের একজন হলেন টুইঙ্কল নিজে। অক্ষয়-পত্নী শুরুতে এই গল্প দিয়ে ছোট বাজেটের সিনেমা নির্মান করতে চেয়েছিলেন। পরে, স্বয়ং অক্ষয় সিনেমাটি করতে আগ্রহী হওয়ায় বাজেট বাড়ানো হয়।

  • সারা আলী খান

বছর খানেক আগে রোহিত শেঠি ‘সিম্বা’ নির্মানের ঘোষণা দেন। রণবীর সিংয়ের একটা পোস্টারও বের হয়। তখন থেকেই অনেক জল্পনা-কল্পনা ছিল, কে হবেন এই সিনেমার নায়িকা? গণমাধ্যমে অনেকগুলো নাম শোনা গেলেও শেষ অবধি সিনেমাটিতে নেওয়া হয় সারা আলী খানকে। রোহিত শেঠি জানান, সারা নিজে থেকে এসে সিনেমাটি করার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন।

  • ভিনিত কুমার সিং

খুবই আন্ডাররেটেড এই অভিনেতা শুধু মাত্র ‘মুক্কাবাজ’ সিনেমার স্ক্রিপ্ট লেখায় মনোযোগ দিতেই কয়েকটা বছর সিনেমা থেকে নিজেকে দূরে রেখেছিলেন। স্ক্রিপ্ট লেখা শেষ হলে তিনি নিজেই ভিন্নধর্মী পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপকে অনুরোধ করেন, এই স্ক্রিপ্ট দিয়ে সিনেমা করতে। স্ক্রিপ্ট পড়ে কাশ্যপও বুঝে যান, চরিত্রটি ভিনিতের চেয়ে ভাল কেউ করতে পারবেন না।

  • বরুণ ধাওয়ান

২০১৮ সালে বরুণ ধাওয়ানের সিনেমা ‘অক্টোবর’ বানিজ্যিক ভাবে খুব বেশি সফলতা না পেলেও সমালোচকদের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছে। অনেকের কাছে এটাই বরুণের ক্যারিয়ারের সেরা কাজ। যদিও, সিনেমাটির মূল পরিকল্পনায় ছিলেন না তিনি। পরিচালক সুজিত সরকারের কাছে সিনেমার স্ক্রিন প্লে শুনে নিজেই কেন্দ্রীয় চরিত্রটি করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

আরো পড়ুন

দেশিমার্টিনি অবলম্বনে

Related Post

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।