একি বাঁধনে বলো জড়ালে…

তুমি ভরেছ এ মন এক নিঝুম অরণ্যে

বসন্তে পাহাড় চূড়ায় আর বৃষ্টি দিয়ে

এই গানটি গাইছেন অর্থহীন ব্যান্ডের সুমন, পাশে অসম্ভব রূপবতী একজন তরুণী কানের কাছে সেলফোন ধরে তা শুনছেন। তরুণীর হাসিমাখা গাল দেখে সে সময়ে তার প্রেমে পড়েনি এমন ছেলের সংখ্যা গুণে বলা যাবে। ২০০৮ সালে একটি সেলুলার অপারেটরের এ বিজ্ঞাপন নিয়ে এসেছিলেন লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার ২০০৬ এর দ্বিতীয় রানার আপ আজমেরী হক বাঁধন।

বাঁধনের শুরু এই বিজ্ঞাপনের বছরখানেক আগে, সানসিল্ক মিনির বিজ্ঞাপন দিয়ে। তারও আগে তিনি লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার হয়ে দর্শকের নজরে এসেছেন। প্রকৌশলী বাবা পড়াশোনায় গুরুত্ব দিতে বলায় মেডিকেলের ছাত্রী বাঁধন মিডিয়ায় কিছুটা পিছিয়ে পড়েন সমসাময়িকদের তুলনায়। তবে ফাইনাল পরীক্ষা দিয়ে তিনি ভালো করেই কাজ শুরু করেন।

মোস্তফা সরোয়ার ফারুকীর তিব্বত সাবানের বিজ্ঞাপন তাকে আলোচনায় নিয়ে আসে নতুন করে। কক্সবাজারে চিত্রায়িত সে বিজ্ঞাপনে আবেদনময়ী বাঁধন নজর কাড়েন সকলের। পরবর্তীতে ক্রিকেটার তামিম ইকবালের সঙ্গেও বিজ্ঞাপন করেন লাক্স তারকা বাঁধন।

সিনেমায় বাঁধনের অভিষেক হয় ২০১০ সালে। সিনেমার নাম ছিল ‘নিঝুম অরণ্যে’, সহশিল্পী ছিলেন সজল। বাঁধনের সৌভাগ্য সে চলচ্চিত্রে তিনি পেয়েছিলেন ইলিয়াস কাঞ্চন, চম্পার মতো পর্দাকাঁপানো শিল্পীদের।

গুরুত্বপূর্ণ এক ঘটনা ঘটে বাঁধনের জীবনে। বিয়ে করে সংসারী হয়ে পড়েন তিনি, জন্ম হয় সন্তানের। মিডিয়ায় অনেকটা আড়ালে চলে যান আবার। কেটে যায় কিছুকাল। ব্যক্তিগত জীবনের চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে বাঁধন নিজেকে পুণরায় ফিরিয়ে আনেন মিডিয়ায়। মেয়েকে নিয়ে শুরু হয় তার নতুন যাত্রা। টুকটাক কাজও শুরু করলেন মিডিয়ায়।

এরই মাঝে নতুন করে নিজেকে প্রস্তুত করতে শুরু করলেন চলচ্চিত্রের জন্য। ‘দহন’ নামক এ চলচ্চিত্রে সাংবাদিকের ভূমিকায় দেখা যাওয়ার কথা ছিল বাঁধনের, পারিবারিক কারণে তিনি সরে গেলেন চলচ্চিত্রটি হতে। তার জায়গায় এসে গেলেন তার সময়েই লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার হওয়া জাকিয়া বারী মম।

বাঁধন নিজেকে ফিট রাখার রুটিন মেনে চলছেন নিয়মিত। সোশাল মিডিয়ায় নিত্যনতুন ছবি দিয়ে দর্শকদের আপডেট দিচ্ছেন নিয়মিত বিরতিতে। সংসার নিয়ে কঠিন বাস্তবের মুখোমুখি হওয়া বাঁধন আজ বেশি সাহসী, তিনি সমাজের চোখ রাঙানী উপেক্ষা করে চলতে পারেন, পারেন সিঙ্গেল মাদার হয়ে মাথা উঁচু করে বাঁচতে।

দন্তচিকিৎসক বাঁধন চাইলেই অভিনয় ছেড়ে দিতে পারতেন, তিনি তা করেননি। দর্শক তাকে যে ভালোবাসা দিয়েছে তার প্রতিদান দিতেই বাঁধন মিডিয়াতে আছেন, তার মতো করেই। কাজ করে চলেছেন খণ্ড নাটকসহ ধারাবাহিক নাটকে, নাট্যজগতের শীর্ষ তারকাদের সঙ্গেই।

মিডিয়ার তারকাদের জীবন সংগ্রামের অন্যতম দৃষ্টান্ত বাঁধন এভাবেই নাহয় বন্ধনে বেঁধে রাখুক দর্শকদের। ডাক্তার তো অনেকেই হতে পারে, বাঁধন হতে পারে কয়জনা?

অলিগলি.কমে প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার লেখকের। আমরা লেখকের চিন্তা ও মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রকাশিত লেখার সঙ্গে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল তাই সব সময় নাও থাকতে পারে।